আজ বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০১৯ ইং

যোগ্য নাগরিক আচরণই বিশুদ্ধ জাতীয়তাবাদ

মাসকাওয়াথ আহসান  

জাতীয়তাবাদের অপপ্রয়োগে বিরক্ত সাধারণ নাগরিকের সামনে জাতীয়তাবাদের সঠিক প্রয়োগের একটি দৃষ্টান্ত উপস্থিত হয়েছে। সাধারণ নাগরিক সমাজ দেশের অভ্যন্তরীণ ব্যবস্থাপনার নানা সংকটে প্রধানমন্ত্রীর ও সরকারের সমালোচনা করে। কিন্তু দেশ যখনই বহিঃশত্রুর দ্বারা আক্রান্ত হয়; তখন এই জনমানুষই জাতীয়তাবাদের মন্ত্রে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সরকারের শীর্ষ নেতৃত্বকে সুপ্রিম কমান্ড হিসেবে মান্য করে।

মায়ানমার কর্তৃক "রোহিঙ্গা শরণার্থী পুশ ইন" আর আকাশ সীমা লঙ্ঘন করে হেলিকপ্টার বাংলাদেশের আকাশে ঘোরাঘুরি করিয়ে পেশীপ্রদর্শন ও যুদ্ধের উস্কানির সময় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দলীয় নেত্রী থেকে সামষ্টিক জনমানুষের নেত্রী হয়ে উঠেছেন। ভূ-রাজনৈতিক নানা চ্যালেঞ্জের মুখে শেখ হাসিনা বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গা শরণার্থীকে বাংলাদেশে আশ্রয় দিয়ে খুব কঠিন অথচ মানবিকভাবে সঠিক সিদ্ধান্ত নেবার কারণে বিশ্বনন্দিত হয়েছেন।

মায়ানমার সরকার যখন রোহিঙ্গাদের ওপর গণহত্যা ও উচ্ছেদ চালাচ্ছিলো; ভারত, চীন, পাকিস্তানের সরকারগুলো তখন ব্যবসায়িক স্বার্থে মায়ানমার সরকারের এপোলজিস্ট হয়ে রোহিঙ্গা হত্যাযজ্ঞের বিষয়ে স্বার্থপর নীরবতায় চলে যায়। একাকী বাংলাদেশ তখন ব্যবসায়িক ও নিজস্ব অন্যান্য স্বার্থের কথা না ভেবে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের আশ্রয় দেয়।

বিশ্বমানবতা তখন দক্ষিণ এশিয়ার একমাত্র মানবিক নেতৃত্ব শেখ হাসিনাকে সোনালী হৃদয়ের মানুষ বলে সম্মান জানায়। ইতিহাসের সঠিক মুহূর্তে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারাটাই একজন মানুষের জন্য অমরতার আয়োজন করে; একটি জাতির জন্য সভ্যতার অভিজ্ঞান নিশ্চিত করে। গোটা পৃথিবীর মানুষই এখন জানে মানবিক ঔদার্যের দেশ বাংলাদেশ।

এখন বাংলাদেশের এই বিশ্ব অবস্থান সুসংহত করার ক্ষেত্রে সমাজের অনেক দায়িত্ব রয়েছে। বিপুল সংখ্যক শরণার্থীর আগমনে দেশের অভ্যন্তরে কোন বিশৃঙ্খলা যাতে না ঘটে সে ব্যাপারে সরকারকে সহযোগিতা করাই বিশুদ্ধ জাতীয়তাবাদ। বিশ্বের মানবিক ও সভ্য একটি দেশের যে সম্মান বাংলাদেশ পেয়েছে; তার যোগ্য নাগরিক আচরণই জাতীয়তাবাদ।

বাংলাদেশে বসবাসরত হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান-আদিবাসীদের সঙ্গে সভ্য ও মানবিক আচরণ করতে পারাটাই জনগণের জন্য চ্যালেঞ্জ। কারণ সভ্য ও মানবিক আচরণ রোহিঙ্গা শরণার্থীদের সামনে প্রদর্শন করে; হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান-আদিবাসীদের সঙ্গে অমানবিক কিছু করলে সভ্যতার সম্মানের অযোগ্য হয়ে পড়বে বাংলাদেশ।

সরকার যেহেতু রোহিঙ্গা শরণার্থী পুনর্বাসনের কাজটি করছে; এই কাজে সরকারের নির্দেশাবলী পালন করাটাই সরকারকে সাহায্য করা। এই পুনর্বাসন কাজের মাঝে রাজনীতি-ভোট খোঁজা অপ্রয়োজনীয়। এরকম জাতীয় সংকটকালে যারা রাজনীতি-ভোট খোঁজে তারা জনগণের কাছে সম্মান হারাবে। শরণার্থী রোহিঙ্গাদের ইস্যুটি কেবলই মানবিক; এখানে ধর্ম কিংবা রাজনীতির লাভজনক দোকান খোলার চেষ্টা অমানবিকতা।

গোটা বিশ্বমানবতা যেভাবে রোহিঙ্গা শরণার্থী পুনর্বাসনে বাংলাদেশের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে; তাতে শরণার্থী ব্যবস্থাপনা সুশৃঙ্খল করতে পারলে আর্থিক ও অন্যান্য ত্রাণ সহযোগিতার অভাব হওয়ার কথা নয়। মায়ানমারের গণহত্যার এপোলজিস্ট চীন-ভারতও যেখানে নিজেদের পলিটিক্যালি ইনকারেক্ট অবস্থান শোধরাতে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য ত্রাণসাহায্য পাঠিয়েছে; তাতে বোঝা যায় সময় বাংলাদেশের অনুকূলে।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র নীতি; সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব, কারো সঙ্গে বৈরিতা নয়। ফলে বাংলাদেশ মায়ানমারের কোন যুদ্ধের সস্তা উস্কানিকে গ্রাহ্য করবে না; যা করার তা বিশ্বসভায় সংলাপের টেবিলে করবে এটা সুনিশ্চিত।

মনে রাখা দরকার, যে জাতিসংঘ অধিবেশনে মুখ দেখানোর উপায় না থাকায় মায়ানমারের অপরাধী নেত্রী অন সান সু চি যোগ দিচ্ছেন না; বাংলাদেশের মানবিক নেত্রী শেখ হাসিনা সে বিশ্বসভায় কথা বলতে যাচ্ছেন, সোনালী হৃদয়ের মানুষ হিসেবে; সুতরাং ডিপ্লোম্যাসিতে বাংলাদেশের জয় অনিবার্য।

মাসকাওয়াথ আহসান, সাংবাদিক, সাংবাদিকতা শিক্ষক

মুক্তমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। sylhettoday24.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে যার মিল আছে এমন সিদ্ধান্তে আসার কোন যৌক্তিকতা সর্বক্ষেত্রে নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে sylhettoday24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় গ্রহণ করে না।

আপনার মন্তব্য

লেখক তালিকা অঞ্জন আচার্য অসীম চক্রবর্তী আজম খান ১০ আজমিনা আফরিন তোড়া আফসানা বেগম আবু এম ইউসুফ আবু সাঈদ আহমেদ আব্দুল করিম কিম ২০ আব্দুল্লাহ আল নোমান আব্দুল্লাহ হারুন জুয়েল আমিনা আইরিন আরশাদ খান আরিফ জেবতিক ১২ আরিফ রহমান ১৪ আরিফুর রহমান আলমগীর নিষাদ আলমগীর শাহরিয়ার ৩৯ আশরাফ মাহমুদ আশিক শাওন ইমতিয়াজ মাহমুদ ৪৮ ইয়ামেন এম হক এখলাসুর রহমান ১৯ এনামুল হক এনাম ২৪ এমদাদুল হক তুহিন ১৯ এস এম নাদিম মাহমুদ ১৪ ওমর ফারুক লুক্স কবির য়াহমদ ৩১ কাজল দাস ১০ কাজী মাহবুব হাসান খুরশীদ শাম্মী ১১ গোঁসাই পাহ্‌লভী ১৪ চিররঞ্জন সরকার ৩৫ জফির সেতু জহিরুল হক বাপি ২৮ জহিরুল হক মজুমদার জান্নাতুল মাওয়া জাহিদ নেওয়াজ খান জুয়েল রাজ ৬৫ ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন ড. কাবেরী গায়েন ২২ ড. শাখাওয়াৎ নয়ন ডা. সাঈদ এনাম ডোরা প্রেন্টিস তপু সৌমেন তসলিমা নাসরিন তানবীরা তালুকদার দিব্যেন্দু দ্বীপ দেব দুলাল গুহ দেব প্রসাদ দেবু দেবজ্যোতি দেবু ২৪ নিখিল নীল পাপলু বাঙ্গালী পুলক ঘটক ফকির ইলিয়াস ২৪ ফজলুল বারী ৪৩ ফড়িং ক্যামেলিয়া ফরিদ আহমেদ ৩২ ফারজানা কবীর খান স্নিগ্ধা বদরুল আলম বন্যা আহমেদ বিজন সরকার বিপ্লব কর্মকার ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ১৪ ভায়লেট হালদার মারজিয়া প্রভা মাসকাওয়াথ আহসান ৯৮ মাসুদ পারভেজ মাহমুদুল হক মুন্সী মিলন ফারাবী মুনীর উদ্দীন শামীম ১০ মুহম্মদ জাফর ইকবাল ১০৬ মো. মাহমুদুর রহমান মো. সাখাওয়াত হোসেন মোছাদ্দিক উজ্জ্বল মোনাজ হক রণেশ মৈত্র ৮৮ রতন কুমার সমাদ্দার রহিম আব্দুর রহিম ১৩ রাজেশ পাল ১৯ রুমী আহমেদ রেজা ঘটক ৩২ লীনা পারভীন শওগাত আলী সাগর শাখাওয়াত লিটন শামান সাত্ত্বিক শামীম সাঈদ শারমিন শামস্ ১৪ শাশ্বতী বিপ্লব শিতাংশু গুহ শিবলী নোমান শুভাশিস ব্যানার্জি শুভ ২৪ শেখ মো. নাজমুল হাসান ২১ শেখ হাসিনা শ্যামলী নাসরিন চৌধুরী সঙ্গীতা ইমাম সঙ্গীতা ইয়াসমিন ১৬ সহুল আহমদ সাইফুর মিশু সাকিল আহমদ অরণ্য সাব্বির খান ২৮

ফেসবুক পেইজ