আজ শুক্রবার, ২২ নভেম্বর, ২০১৯ ইং

ফিদেল কাস্ত্রো : ‘History Will Absolve Me’

মোনাজ হক  

বিপ্লবী ফিদেল কাস্ত্রোর ৯০ বছরে স্বাভাবিক মৃত্যুর পর এই মহান মানুষটির জীবনী আর একবার পড়লাম। কিউবার স্বৈরাচারী শাসক বাতিস্তার বিরুদ্ধে ফিদেল কাস্ত্রোর বিপ্লবী আন্দোলন ও প্রথম সশস্ত্র সংঘর্ষ হয় ১৯৫২-তে কিন্তু তাতে ফিদেল গ্রেফতার হয় ও আদালতে বিচার শুরু হয়।

"ইতিহাস আমাকে মুক্তিদান করবে" (স্প্যানিশ:"La historia me absolverá") এই শিরোনামে ফিদেল কাস্ত্রো কর্তৃক প্রণীত চার ঘণ্টার আদালতে শুনানি বক্তৃতায় ১৬ অক্টোবর ১৯৫৩ তিনি তাঁর নিজের প্রতিরক্ষা বক্তব্য রাখেন ও নিজের বিরুদ্ধে অভিযোগ যে তিনি মনকা ব্যারাকস আক্রমণের নেতৃত্বে দিয়েছিলো তা খণ্ডন করে, পরে কিউবার আদালত তাঁকে খালাস দিলে তিনি মেক্সিকোতে আশ্রয় নেন, সেখানেই পরিচয় হয় ফিদেল কাস্ত্রোর আর একজন বিপ্লবী তরুণ ছাত্র চে গুয়েভারার সাথে। মেক্সিকোতে বসেই তাঁরা কিউবার বিপ্লব এর পরিকল্পনা করেন।

ডিসেম্বর ১৯৫৬ সালে গ্রানমা ইয়ট (নৌকায়) যাতে মাত্র ১২ জন যাত্রী ধারণ করে সেটাতেই ৮১ জন সহযোদ্ধা দেরকে নিয়ে ফিদেল ও চে কিউবায় ঢোকে। নিজেদেরকে সংগঠিত করে ও মাত্র ৩০০ গেৰিলেওস ১০ হাজার বাতিস্তার রেগুলার আর্মির বিরুদ্ধে গেরিলা যুদ্ধে লিপ্ত হয় । কিউবার বিপ্লবের ঘটনার সাথে আমাদের বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের হুবহু মিল খুঁজে পাওয়া যায়, তাই হয়তো কিউবার এই বিপ্লবী নেতা ফিদেল কাস্ত্রো ১৯৭৩ সালে আলজিয়ার্সে জোট নিরপেক্ষ দেশ সমূহের একটি শীর্ষ সম্মেলনে অংশগ্রহণের সময় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সাথে এক একান্ত সাক্ষাৎকারের পরে সাংবাদিকদেরকে বলেছিলেন - "আমার কখনো হিমালয় পর্বতমালা দেখার সৌভাগ্য হয়নি, কিন্তু আজ আমি শেখ মুজিব এর সাথে আলিঙ্গনে তাঁর ব্যক্তিত্ব ও সাহসের যে পরিচয় পেয়েছি সেটিই হিমালয় পর্বতমালা, তাই আজ আমি এভাবেই হিমালয় কে প্রত্যক্ষ করার অভিজ্ঞতা পেলাম".

কিউবার বিপ্লবের ইতিহাস ও আমাদের মতোই মাত্র ৬০ বছরের, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নাকের ডগায় বিপ্লব করে সমাজতন্ত্র কায়েম করেছে, এখন কিউবায় শিক্ষিতের হার ১০০ শতাংশ, প্রতি ২৫০ জনের জন্যে একজন ডাক্তার বিনা মূল্যে স্বাস্থ্য সেবার জন্যে, প্রতিটি মানুষেই বাসস্থান আছে, কেউ বেকার নেই কিউবায়।

এতো সাফল্য থাকা সত্ত্বেও ফিদেল কাস্ত্রোর শত্রুর অভাব ছিল না, যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গ রাজ্যে এক্সিল কিউবান রা আজ কাস্ত্রোর মৃত্যুতে আনন্দ উল্লাস করছে এই বলে যে কাস্ত্রো দেশটায় সমাজ তন্ত্র কায়েম করতে অনেক কাউন্টার বিপ্লবীদেরকে হত্যা করেছে। বিপ্লব করে যে দেশ স্বাধীন হয়েছে সেই দেশে কাউন্টার বিপ্লবীদের আবির্ভাব হয়েছে, বাংলাদেশেও তাই হয়েছে কিন্তু একটি অসতর্ক মুহূর্তের জন্যে আমাদের বিপ্লবী নেতা বঙ্গবন্ধুকে প্রাণ দিতে হয়েছে, কিন্তু কাস্ত্রো কে হত্যা করার জন্যে ৬৩৮ বার সি এই এ এর প্ল্যান ও ব্যর্থ হয়েছে কিউবায়। তাহলে কি বাংলাদেশের বিপ্লব পরবর্তীতে সুস্থ পরিকল্পনার অভাব আছে? দেশ স্বাধীনের সাড়ে তিন বছরের মাথায় বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছে কাউন্টার বিপ্লবীরা, ৪৫ বছর পরেও দারিদ্র নির্মূল হয়নি, ১০% মানুষ ৯০% মানুষের সম্পদ দখল করে ভোগ করছে, পার্লামেন্টে ৬০ শতাংশ সাংসদ পুঁজিপতি তারাই আইন প্রণয়ন করেন, এখনো চিকিৎসা সেবা জনগণকে বিনা মূল্যে দিতে পারিনি আমরা, ১০% ওয়ালারা সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড এ যায় সর্দি জ্বরের চিকিৎসার জন্যে, আর শিক্ষা কে প্রাইভেট ব্যবসায় পরিণত করেছি, আর একদিকে মৌলবাদী জঙ্গিরা ধর্মের নাম মানুষ হত্যায় ব্যস্ত। আর সরকার ৬% প্রবৃদ্ধির ও উন্নতির গল্প শোনাচ্ছে জনগণকে।

সবাইকে অনুরোধ করবো সময় পেলে কিউবার বিপ্লবের ইতিহাস পড়বেন, সে সময় আমরা স্কুলে পড়তাম বিপ্লবী চে ও ফিদেল এর কাহিনী পড়ে অনুপ্রেরণা পেয়ে একাত্তরের স্বাধীনতার বিপ্লব করেছিলাম।

বিপ্লবের ইতিহাস ভালোভাবে জানলেই তখন আমরাও বুঝতে  শিখবো  যে "ইতিহাস আমাকে মুক্তিদান করবে" এর অর্থ কি।

মোনাজ হক, সম্পাদক, আজকের বাংলা, জার্মানি।

মুক্তমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। sylhettoday24.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে যার মিল আছে এমন সিদ্ধান্তে আসার কোন যৌক্তিকতা সর্বক্ষেত্রে নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে sylhettoday24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় গ্রহণ করে না।

আপনার মন্তব্য

লেখক তালিকা অঞ্জন আচার্য অসীম চক্রবর্তী আজম খান ১০ আজমিনা আফরিন তোড়া ১০ আফসানা বেগম আবু এম ইউসুফ আবু সাঈদ আহমেদ আব্দুল করিম কিম ২০ আব্দুল্লাহ আল নোমান আব্দুল্লাহ হারুন জুয়েল আমিনা আইরিন আরশাদ খান আরিফ জেবতিক ১৩ আরিফ রহমান ১৪ আরিফুর রহমান আলমগীর নিষাদ আলমগীর শাহরিয়ার ৪০ আশরাফ মাহমুদ আশিক শাওন ইমতিয়াজ মাহমুদ ৫৩ ইয়ামেন এম হক এখলাসুর রহমান ১৯ এনামুল হক এনাম ২৫ এমদাদুল হক তুহিন ১৯ এস এম নাদিম মাহমুদ ২১ ওমর ফারুক লুক্স কবির য়াহমদ ৩১ কাজল দাস ১০ কাজী মাহবুব হাসান খুরশীদ শাম্মী ১২ গোঁসাই পাহ্‌লভী ১৪ চিররঞ্জন সরকার ৩৫ জফির সেতু জহিরুল হক বাপি ২৮ জহিরুল হক মজুমদার জান্নাতুল মাওয়া জাহিদ নেওয়াজ খান জুয়েল রাজ ৭৫ ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন ড. কাবেরী গায়েন ২২ ড. শাখাওয়াৎ নয়ন ডা. সাঈদ এনাম ডোরা প্রেন্টিস তপু সৌমেন তসলিমা নাসরিন তানবীরা তালুকদার দিব্যেন্দু দ্বীপ দেব দুলাল গুহ দেব প্রসাদ দেবু দেবজ্যোতি দেবু ২৬ নিখিল নীল পাপলু বাঙ্গালী পুলক ঘটক ফকির ইলিয়াস ২৪ ফজলুল বারী ৬২ ফড়িং ক্যামেলিয়া ফরিদ আহমেদ ৩৩ ফারজানা কবীর খান স্নিগ্ধা বদরুল আলম বন্যা আহমেদ বিজন সরকার বিপ্লব কর্মকার ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ১৬ ভায়লেট হালদার মারজিয়া প্রভা মাসকাওয়াথ আহসান ১১০ মাসুদ পারভেজ মাহমুদুল হক মুন্সী মিলন ফারাবী মুনীর উদ্দীন শামীম ১০ মুহম্মদ জাফর ইকবাল ১১৭ মো. মাহমুদুর রহমান মো. সাখাওয়াত হোসেন মোছাদ্দিক উজ্জ্বল মোনাজ হক রণেশ মৈত্র ১২৭ রতন কুমার সমাদ্দার রহিম আব্দুর রহিম ১৭ রাজেশ পাল ১৯ রুমী আহমেদ রেজা ঘটক ৩২ লীনা পারভীন শওগাত আলী সাগর শাখাওয়াত লিটন শামান সাত্ত্বিক শামীম সাঈদ শারমিন শামস্ ১৪ শাশ্বতী বিপ্লব শিতাংশু গুহ শিবলী নোমান শুভাশিস ব্যানার্জি শুভ ২৪ শেখ মো. নাজমুল হাসান ২১ শেখ হাসিনা শ্যামলী নাসরিন চৌধুরী সঙ্গীতা ইমাম সঙ্গীতা ইয়াসমিন ১৬ সহুল আহমদ সাইফুর মিশু সাকিল আহমদ অরণ্য সাব্বির খান ২৮

ফেসবুক পেইজ