COVID-19
CORONAVIRUS
OUTBREAK

Bangladesh

Worldwide

123

Confirmed Cases

12

Deaths

33

Recovered

1,330,240

Cases

73,868

Deaths

277,707

Recovered

Source : IEDCR

Source : worldometers.info

নিউজ ডেস্ক

১৭ জানুয়ারি, ২০১৫ ১৯:৫০

বঙ্গবন্ধু কাপের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে সিলেট স্টেডিয়াম

ছবিঃ সিলেট টুডে ২৪


দীর্ঘ ১৫ বছর পর চলতি মাসেই শুরু হচ্ছে বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপ ফুটবল টূর্নামেন্ট। আন্তর্জাতিক এই ফুটবল টূর্নামেন্টে বাংলাদেশসহ ৬টি দল অংশ নিচ্ছে। টূর্নামেন্টের গ্রুপ পর্বের তিনটি এবং একটি সেমিফাইনালসহ মোট চারটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে। ক্রমেই ঘনিয়ে আসা এই টূর্নামেন্টের জন্য এখন স্টেডিয়ামের সংস্কার কাজ চলছে জোরেশোরে। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) প্রেসক্রিপশন মেনেই চলছে সংস্কার কাজ। দু-চারদিনের মধ্যেই সংস্কার কাজ শেষে স্টেডিয়াম পুরো প্রস্তুত হয়ে যাবে বলে মন্তব্য সংশ্লিষ্টদের।

বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপ সর্বশেষ আয়োজিত হয়েছিল ১৯৯৯ সালে। এরপর দীর্ঘ ১৫ বছরেও অনুষ্ঠিত হয়নি এই টূর্নামেন্টটি। বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাহউদ্দিন দ্বিতীয় মেয়াদে নির্বাচিত হওয়ার পর জোরেশোরেই বলেছিলেন এই টূর্নামেন্ট আয়োজন তিনি করবেন। সেই প্রতিশ্রুতিরই বাস্তবায়ন ঘটছে চলতি মাসের শেষের দিকে।

টূর্নামেন্টটি গত ১৬ জানুয়ারি থেকে হওয়ার কথা থাকলেও এক দফা পিছিয়ে আগামী ২৯ জানুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে। আর অনেক আলোচনার এই টূর্নামেন্টের শুরুটা হচ্ছে সিলেট থেকেই। টূর্নামেন্টের উদ্বোধনী পর্বটা সিলেট জেলা স্টেডিয়ামেই অনুষ্ঠিত হবে। ২৯ জানুয়ারি থেকে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত গ্র“প পর্বের তিনটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে এখানে।

বঙ্গবন্ধু কাপের জন্য সিলেট জেলা স্টেডিয়াম নির্ধারিত হওয়ার পর জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ (এনএসসি) মাঠ সংস্কারে উদ্যোগ নেয়। পরে স্টেডিয়ামের সার্বিক অবস্থা দেখে যান এনএসসি’র প্রকৌশলী। এছাড়া বাফুফে’র গ্রাউন্ডস কমিটির চেয়ারম্যান বজলুর রহমান বাবুলও স্টেডিয়ামের অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে গেছেন।

আন্তর্জাতিক এই টূর্নামেন্টের জন্য স্টেডিয়ামের যেসব সংস্কার কাজ করা হচ্ছে তার মধ্যে রয়েছে মাঠ থেকে ক্রিকেট পিচ সরানো, ফ্লাডলাইটের আধুনিকায়ন, সাজঘর, প্রেসবক্স ও ভিআইপি বক্সের উন্নয়ন, স্টেডিয়ামের গেইট ও নিরাপত্তার জন্য পর্যাপ্ত বেষ্টনী, ডিজিটাল স্কোরবোর্ড প্রভৃতি। এরমধ্যে মাঠ থেকে ক্রিকেট পিচ সরানো ও বাংলাদেশ-নেপাল ম্যাচের দিন ভেঙ্গে যাওয়া নিরাপত্তা বেষ্টনীর সংস্কার সাধনও হয়েছে। এছাড়া ফিফার গাইডলাইন অনুযায়ী প্লেয়ার ড্রেসিং রুম ভবন থেকে প্রেসবক্স সরিয়ে আনা হয়েছে ক্রীড়াভবনের চতুর্থ তলায়।

 প্রেসবক্সের আধুনিকায়নও করা হয়েছে, যেখানে একসাথে শতাধিক সংবাদকর্মী ম্যাচ কাভার করার সুযোগ পাবেন। স্টেডিয়ামের দু’তলাস্থ ভিআইপি বক্সেও লেগেছে উন্নয়নের ছোঁয়া। আমূল পাল্টে ফেলা হচ্ছে এটির খোলনচাল। এসব কাজের জন্য ইতিমধ্যেই ৫০ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

তবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে কাজ, ফ্লাডলাইটের আধুনিকায়ন, সেটির কাজ এখনো শেষ হয়নি। বঙ্গবন্ধুর কাপের সবগুলো ম্যাচ হবে সন্ধ্যা ৫টা থেকে। ম্যাচগুলো সরাসরি সম্প্রচার করার জন্য পর্যাপ্ত আলোর প্রয়োজন। সেজন্য ফ্লাডলাইটের সংস্কার জরুরী। এ কাজে ব্যয় হবে প্রায় দেড় কোটি টাকা।

এ ব্যাপারে জেলা ফুটবল সংস্থার (ডিএফএ) সভাপতি মাহী উদ্দিন সেলিম বলেন, বঙ্গবন্ধু কাপের জন্য স্টেডিয়ামের সংস্কার কাজ চলছে। বেশ কিছু কাজ ইতিমধ্যেই শেষ হয়েছে। এসব কাজের জন্য বাফুফে থেকে প্রায় ৫০ লাখ টাকা দেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি। ফ্লাড লাইটের আধুনিকায়নের কাজও চলছে বলে জানান তিনি।


আপনার মন্তব্য

আলোচিত