Sylhet Today 24 PRINT

রাস্তায় হেলে পড়েছে গাছ, দুর্ঘটনার আশঙ্কা

কানাইঘাট প্রতিনিধি |  ২১ জুন, ২০২০

সিলেটের কানাইঘাট উপজেলা সড়কের বেশ কয়েক জায়গায় রাস্তার দুই পাশে থাকা বড় বড় গাছ হেলে পড়েছে। ঝুঁকি নিয়ে এসব সড়কে চলাচল করছে যানবাহন। দ্রুত এসব গাছ কেটে না ফেললে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। মহামারী করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে বন বিভাগ বা প্রশাসন গাছগুলো কাটার উদ্যোগও নিতে পারছে না।

শনিবার সরেজমিনে দেখা যায়, কানাইঘাট-সিলেট রোডে প্রায় ২ কিলোমিটার রাস্তার পাশজুড়ে গাছগুলো ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। এর মধ্যে হাসপাতালের দেয়াল ঘেঁষে উত্তর পূর্ব দিকে একটি রেন্টির গাছ হেলে আছে, যাহ যেকোনো সময় মারাত্মক দুর্ঘটনার কারণ হতে পারে। অথচ এই রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন শত শত যানবাহন চলাচল করে। গাছের নিচ দিয়ে আশপাশের স্কুলগামী শিক্ষার্থীরা ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করে, রাস্তার পাশেই রয়েছে রায়গড় জামে মসজিদ। কিন্তু এই গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা দিয়ে উপজেলার সরকারি বড় বড় কর্মকর্তা যাতায়াত করেন কিন্তু কেউ গাছটি কাটার কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেননি কখনও।

বিজ্ঞাপন

স্থানীয় এলাকাবাসী জানিয়েছেন, হাসপাতালের দেয়াল ঘেঁষে গাছটি বেড়ে উঠে। কিন্তু গাছটির পরিধি ধীরে ধীরে বড় হতে থাকে। রাস্তার দিয়ে শত শত যানবাহন প্রতিদিন চলাচল করে, বিশেষ করে বাস-গাড়ি গাছটির নিচ দিয়ে অতিক্রমের সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা, কয়েকদিন আগে একটি ট্রাকে গাছের ধাক্কা লেগে সামনের গ্লাস ভেঙ্গে পড়ে। বর্তমানে কানাইঘাটের লোভাছড়ার পাথর বিভিন্ন জায়গায় সরবরাহ হচ্ছে। প্রতিদিন দিন-রাত বড় ট্রাক-লরি ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় চলাচল করে। কিন্তু বড় ধরনের দুর্ঘটনার ঝুঁকি থাকা সত্ত্বেও গাছটি কাটার কোন পদক্ষেপ নেননি সরকারি কর্মকর্তারা। এলাকাবাসী অনেক সময় এ নিয়ে অনেক উদ্যোগ নেন কিন্তু সরকারি ভিন্ন বাধা থাকায় গাছটি কাটা হয়নি।

স্থানীয় বাসিন্দা উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আফতাব উদ্দিন বলেন, গাছটি অনেক দিন ধরে হেলে আছে। এছাড়া উপজেলার রাস্তাজুড়ে বেশ কয়েক জায়গায় ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে গাছগুলো যা যেকোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটাতে পারে।

এ ব্যাপারে উপজেলা বিট কর্মকর্তা দেওয়ান শাহেদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, উপজেলা সড়কে বেশ কয়েকটি গাছ ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছে। আমি উপজেলা সমন্বয় সভায় বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেছি। কিন্তু বেশ কয়েকজন চেয়ারম্যান-কর্মকর্তা অনুপস্থিত থাকায় কোনও সিদ্ধান্তে আসা যায়নি। বর্তমানে করোনায় পরিস্থিতি থাকায় বিষয়টি নিয়ে আর আলোচনা হয়নি। আমি সর্বদা অবগত আছি।

কানাইঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. বারিউল করিম খান বলেন, গাছগুলো ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছে। কিন্তু সরকারি জায়গার উপর গাছ তাই কিছু বিধিনিষেধ আছে। বর্তমানে করোনার পরিস্থিতিতে সমন্বয় সভা না হওয়ায় সবার অনুমতি নেওয়া যাচ্ছে না। তবে বিষয়টি গুরুত্বের সহিত দেখা হচ্ছে।

টুডে মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
[email protected] ☎ ৮৮ ০১৭ ১৪৩৪ ৯৩৯৩
ওয়াহিদ ভিউ (পঞ্চম তলা), পূর্ব জিন্দাবাজার,
সিলেট-৩১০০, বাংলাদেশ।
Developed By - IT Lab Solutions Ltd.