মঙ্গলবার, , ১৩ নভেম্বর ২০১৮ ইং

নিজস্ব প্রতিবেদক

০৮ মে, ২০১৮ ০০:১১

বজ্রপাতে প্রাণ গেলো আরো পাঁচজনের

সিলেটে বজ্রপাতে প্রাণহানি কিছুতেই থামছে না। সোমবারও সিলেট বিভাগের বিভিন্ন স্থানে বজ্রপাতে মারা গেছেন ৫ জন। মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ ও সুনামগঞ্জ জেলায় এসব প্রাণহানির ঘটনা ঘটে।

শাল্লা: সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার ছায়ার হাওরপাড়ে বজ্রপাতে এক কৃষক নিহত হয়েছেন। গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১০ টায় উপজেলার ছায়ার হাওরে বজ্রপাতের ঘটনায় নিহত হন এই কৃষক। নিহত কৃষকের নাম নব কুমার দাস ওরফে সুনধন (৬৫)। বাড়ি উপজেলার হবিবপুর ইউনিয়নের নিয়ামতপুর গ্রামে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল সাড়ে ১০ টায় বাড়ির পাশের ছায়ার হাওরপাড়ের ধানের খলায় কাজ করছিলেন সব কুমার দাস। এ সময় বজ্রপাতের ঘটনা ঘটলে ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান তিনি। খবর পেয়ে বাড়ির লোকজন তার লাশ উদ্ধার করে।

শাল্লা থানার ওসি দেলোয়ার হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, হাওরে ধানের খলায় করার সময় বজ্রপাতে নব কুমার এক কৃষক মারা গেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

মৌলভীবাজার: মৌলভীবাজারে পৃথক দুইটি বজ্রপাতে মফিজ মিয়া (৩০) এবং আবু সামাদ (১৫) নামে দু'জনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার (৭ মে) সকাল ও দুপুরে এ দুর্ঘটনা দু’টি ঘটে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, সকালে সদর উপজেলার খলিলপুরে বাড়ীর পাশে ধান খেতে বজ্রপাত হলে ঘটনাস্থলেই আবু সামাদের মৃত্যু হয়। আবু সামাদ একই এলাকার ফয়েজ উদ্দিনের ছেলে।

অপর দিকে এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, আজ দুপুরে শ্রীমঙ্গলের হাইল হাওরে বৃষ্টির সময় নৌকার মধ্যে আশ্রয় নেন দুইজন কৃষক ও দুইজন মৎস্যজীবী। এ সময় বজ্রপাত হলে ঘটনা স্থলেই মফিজ মিয়ার মৃত্যু হয়। মফিজ মিয়া উপজেলার বরুনা এলাকার ইসলাম মিয়ার ছেলে।

একই ঘটনায় রশীদ মিয়া (৩৬) ও মো. রফিক মিয়া (৬০) আহত হন। আহতরা মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে জানান,  মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. অশোক ঘোষ।

বানিয়াচং: হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে বজ্রপাতে ধান কাটা দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের বৃন্দা চিত্তা হাওরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন দৌলতপুর ইউনিয়নের কবিরপুর গ্রামের প্রয়াত নাদু বৈষ্ণবের ছেলে অধীর বৈষ্ণব (২৭) ও তেলঘরি গ্রামের বীরেশ্বর বৈষ্ণবের ছেলে বসু বৈষ্ণব (৩২)।
বানিয়াচং উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান লুৎফুর রহমান জানান, সকালে বজ্রসহ বৃষ্টি হচ্ছিল। ওই সময় বৃন্দা চিত্তা হাওরে ধান কাটতে গিয়ে বজ্রপাতের শিকার হয় তিন শ্রমিক, যাদের মধ্যে একজন ঘটনাস্থলেই মারা যায়। আহত অবস্থায় দু'জনকে হাসপাতালে নেওয়ার পর আরেকজনের মৃত্যু হয়। আহত আরেকজন সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মামুন খন্দকার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, নিহত প্রত্যেকের পরিবারকে নগদ ২০ হাজার টাকা করে অর্থসহায়তা দেওয়া হয়েছে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত