Advertise

নিজস্ব প্রতিবেদক

২০ মে, ২০২০ ১৫:৩১

শাবির ল্যাবে সিলেট সদরের ৯১টি নমুনা

করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি)-এর পিসিআর ল্যাবে সিলেট সদরের ৯১ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পাঠানো হয়েছে। তবে আগামীকাল ২১ মে থেকে এই ল্যাবে শুধুমাত্র সুনামগঞ্জ জেলার সংগৃহীত নমুনা পরীক্ষা করা হবে।

বুধবার (২০ মে) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেট বিভাগের সহকারী পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান এ তথ্য জানান।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, আজ বুধবার সকালে সিলেট সদরের ৯১টি নমুনা পরীক্ষা করার জন্য শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশবিদ্যালয়ের ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। আজ রাতেই ফলাফল আসবে।

সুনামগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. শামস উদ্দিনের সাথে কথা হয়েছে জানিয়ে ডা. আনিসুর রহমান আরও জানান, আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে শুধুমাত্র সুনামগঞ্জ জেলার নমুনা শাবিপ্রবির ল্যাবে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের প্রধান ডা. শামসুল হক প্রধান সিলেটটুডে টোয়েন্টিফোরকে বলেন, ‘আমরা আজ প্রথমবারের মতো ৯১টি নমুনা পরীক্ষার মধ্য দিয়ে এর যাত্রা শুরু করেছি। ল্যাবে স্থাপনকৃত পিসিআর মেশিনে  সিঙ্গেল সাইকেলে প্রতিদিন ৯৪টি নমুনা শনাক্ত করা যাবে, যাতে ১ ঘণ্টা ৪০ মিনিট থেকে সর্বোচ্চ ২ ঘণ্টার মতো সময় লাগতে পারে। একইভাবে ডাবল সাইকেলে করলে প্রায় ১৮৮টি নমুনা শনাক্ত করা সম্ভব হবে।’

জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি (জিইবি) বিভাগে স্থাপিত ল্যাবে কাজ করতে সহযোগিতা করছেন বায়োকেমিস্ট্রি অ্যান্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগের শিক্ষকরাও (বিএমবি)।

করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব তহবিল থেকে প্রায় কোটি টাকা ব্যয়ে ল্যাব সংস্কার করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমদ।

গত ৯ এপ্রিল শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যানিমেল সায়েন্স বিশ্ববিদ্যালয়কে করোনা শনাক্ত করার জন্য পিসিআর ল্যাব চালুর অনুমোদন দেওয়া হয়। শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়া বাকি তিনটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিমধ্যে করোনার নমুনা পরীক্ষা আগেই শুরু হয়।

দেশে করোনা সংক্রমণ দেখা দেওয়ার পর গত ৭ এপ্রিল থেকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা শুরু হয়। এখন পর্যন্ত ওসমানীর ল্যাবে একদিনে সর্বোচ্চ ১৮৮টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

সিলেট বিভাগের চার জেলা মিলে প্রতিদিন গড়ে ৪০০ থেকে সাড়ে চারশ' জনের নমুনা সংগ্রহ করে ওসমানীর ল্যাবে পাঠানো হয়। ফলে ওসমানীর ল্যাবে কয়েকদিনের নমুনা জমে যাওয়ায় রিপোর্ট দিতে সংকট সৃষ্টি হয়। এ অবস্থায় ওসমানীর ল্যাবে জমা হওয়া নমুনা পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়। এতে পরীক্ষার ফলাফল পেতে সপ্তাহখানেক লেগে যায়।

তবে শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের পিসিআর ল্যাব চালু হলে সিলেটে করোনা শনাক্তকরণের সংকট অনেকখানি কেটে যাবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাব পরিচালনা করবে জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগ (জিইবি) ও বায়োকেমিস্ট্রি অ্যান্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগ (বিএমবি)। বিশ্ববিদ্যালয়ের 'ই' ভবনে জিইবি বিভাগে এ ল্যাব স্থাপন করা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত