COVID-19
CORONAVIRUS
OUTBREAK

Bangladesh

Worldwide

54

Confirmed Cases,
Bangladesh

06

Deaths in
Bangladesh

25

Total
Recovered

862,573

Worldwide
Cases

42,528

Deaths
Worldwide

179,127

Total
Recovered

Source : IEDCR

Source : worldometers.info

হোসাইন আহমদ সুজাদ

০২ মার্চ, ২০২০ ১৬:২৬

সিলেট বিএনপি: মাঠে নিষ্ক্রিয়, কোন্দলে সক্রিয়

অনেকদিন ধরেই ক্ষমতার বাইরে বিএনপি। নানা মামলা-নিপীড়নেরও শিকার হচ্ছেন নেতাকর্মীরা। তবু সিলেটে থেমে নেই দলটির নেতাদের মধ্যকার কোন্দল। দলীয় বিভিন্ন কর্মসূচিতে মাঠে নেতাকর্মীদের তেমন উপস্থিতি দেখা না গেলেও বিভেদ-বিভক্তিতে ঠিকই সক্রিয় হয়ে ওঠেন তারা।

সর্বশেষ সিলেট জেলা বিএনপির আওতাধীন বিভিন্ন উপজেলা ও পৌর বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি গঠন নিয়ে আবার বিভক্তি দেখা দিয়েছে। প্রকাশ্যে বিবৃতি দিয়ে ঘোষিত কমিটি প্রত্যাখ্যান করেছেন বিএনপির একাংশ।

জানা যায়, গত শনিবার জেলার ১৩ উপজেলা ও ৫টি পৌরসভা বিএনপির আহবায়ক কমিটি গঠন করেন জেলা বিএনপির আহবায়ক কামরুল হুদা জায়গীরদার। কমিটি গঠন হওয়ার সাথে সাথে বিপক্ষে অবস্থান নেন জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির ৯ সদস্য। ঘোষিত কমিটি প্রত্যাখ্যান করে গণমাধ্যমে বিবৃতি দেন জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য- কাইয়ূম চৌধুরী, এডভোকেট আশিক উদ্দিন, আব্দুল মান্নান, এডভোকেট এমরান আহমদ চৌধুরী, নাজিম উদ্দিন লস্কর, আহমেদুর রহমান চৌধুরী, ইসতিয়াক আহমদ সিদ্দিকী, এডভোকেট হাসান পাটোয়ারী রিপন ও মাহবুবুল হক চৌধুরী।

প্রত্যাখানকারী নেতাদের দাবি, জেলার আহবায়ক কমিটির সর্বশেষ সভায় সিদ্ধান্ত হয়- উপজেলা ও পৌর বিএনপির খসড়া কমিটি তৈরী করে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে জেলা আহবায়ক কমিটির পরবর্তী সভায় অনুমোদন সাপেক্ষে কমিটি প্রকাশিত হবে। কিন্তু জেলা আহবায়ক কোন সভার আহবান না করে কমিটি ঘোষণা করেন। এসব কমিটিতে ত্যাগীদের স্থান হয়নি বলেও অভিযোগ তাদের।

তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে জেলা বিএনপির আহ্বায়কের দাবি, পছন্দের ব্যক্তিরা কমিটিতে স্থান না পাওয়ায় কয়েকজন নেতা কমিটি প্রত্যাখ্যান করে বিবৃতি দিয়েছেন।

সূত্রে জানা যায়, গত ২ অক্টোবর সিলেট জেলা বিএনপির ২৫ সদস্যের আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এ সময় কমিটির পক্ষে বিপক্ষে শুরু হয় দ্বন্দ্ব। পরে এই ২৫ সদস্যের নেতারা দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েন তবে কমিটির মধ্যে থাকা বড় একটি অংশ মিলেমিশে চলতে দেখা যায় হরহামেশাই। জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটি তিন মাসের মধ্যে সম্মেলন শেষ করে জেলা শাখার কমিটি গঠন করার কথা থাকলেও উপজেলা ও পৌর বিএনপির কমিটি করতে তারা সময় পার করেছে ৫ মাস।

আহ্বায়ক কমিটির একাধিক নেতা জানান, উপজেলা ও পৌর বিএনপিতে নিজেদের পছন্দের লোক ঢুকাতে দুই পক্ষই ছিলেন অনড়। এতেই কমিটি গঠনে লেগেছে লম্বা সময়। গত ১৬ নভেম্বর জেলা বিএনপির বর্ধিত সভায় ১৭টি কমিটির আহবায়কের নাম চূড়ান্ত করেন। কিন্তু সভা থেকে বের হয়ে একটি অংশ এর বিপক্ষে অবস্থান নেয়। এতে ১৭ জন আহবায়কদের নাম চূড়ান্ত  করেও কমিটি ঘোষণা করতে পারেনি দলটি। সর্বশেষ সিলেটের ১৩ উপজেলা ও ৫টি পৌরসভায় একজনকে আহবায়ক ও ২০ জনকে সদস্য করে মোট ১৮টি আহবায়ক কমিটি ঘোষনা দেন সিলেট জেলা বিএনপির আহবায়ক কামরুল হুদা জায়গিরদার।
 
এসব কমিটির আহবায়করা হলেন- সিলেট সদর উপজেলায় আহবায়ক তারেক কালাম, দক্ষিন সুরমায় সিরাজুল ইসলাম, কানাইঘাট উপজেলায় আব্বাস উদ্দিন চেয়ারম্যান, কানাইঘাট পৌর শাখায় আবিদুর রহমান কাউন্সিলর, জকিগঞ্জ উপজেলায় এডভোকেট কাওছার রশিদ বাহার, জকিগঞ্জ পৌর শাখায় ইকবাল আহমদ, জৈন্তাপুর উপজেলায় এবিএম জাকারিয়া, গোয়াইনঘাট উপজেলায় লুৎফুর রহমান, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় আব্দুল মান্নান মনাফ, বিশ্বনাথ উপজেলায় মোহাম্মদ গৌছ খান, বিশ্বনাথ পৌর শাখায় তালেব আলী, ওসমানীনগর উপজেলায় জরিদ আহমদ, বালাগঞ্জ উপজেলায় আব্দুর রশিদ, গোলাপগঞ্জ উপজেলায় ডা. আব্দুল গফুর, গোলাপগঞ্জ পৌর শাখায় হাসান ইমাদ, বিয়ানীবাজার উপজেলায় নজরুল ইসলাম খান, বিয়ানীবাজার পৌর শাখায় মো. নুরুল হুদা বাবুল, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় ইফতেখার উদ্দিন ফেদল।

এ বিষয়ে জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য মাহবুবুল হক চৌধুরী সিলেটটুডে টোয়েন্টিফোরকে বলেন, আমাদের সবাইকে নিয়ে সভা করে সিলেট জেলা বিএনপির আহবায়ক কামরুল হুদা জায়গীরদার সিলেট জেলার ১৮ টি ইউনিটের আহবায়ক ঠিক করেছেন। কিন্তু আহবায়ক কমিটির সদস্য করা হবেন তা নিয়ে আমাদের সাথে আলোচনা করেননি। তিনি নিজের ইচ্ছামত লোকদের দিয়ে ১৮ টি ইউনিটের কমিটি ঘোষণা করেছেন যা বিএনপির গঠনতন্ত্র বিরোধী। বিষয়টি আমরা কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছেও অবহিত করেছেন।

তবে জেলা বিএনপির আহবায়ক কামরুল হুদা জায়গীরদার এমন অভিযোগ অস্বীকার করে সিলেটটুডেকে বলেন, আমি সবার সাথে সভা করেই কমিটি ঘোষণা করেছি। প্রত্যাখানকারি ৯ নেতা তাদের পছন্দের লোক কমিটিতে নিতে পারেননি। তাই তারা এখন নানা অভিযোগ করছেন। ত্যাগিকর্মিদের নিয়েই কমিটি করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, কয়েকজনের অভিযোগে বিএনপির কিছুই হবে না। এসব কমিটি আর সংসধোনও করা হবে না।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত