জৈন্তাপুর প্রতিনিধি

০৩ ডিসেম্বর, ২০২০ ২২:১৮

জৈন্তাপুরে আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস উপলক্ষে হুইল চেয়ার বিতরণ

‘কোভিড-১৯ প্রেক্ষাপটে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে সম্পৃক্ত করি, নতুন ভাবে টেকসই বিশ্ব গড়ি’ এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলায় ২৯তম আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস ও ২২তম জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস পালন করা হয়।

বৃহস্পতিবার (০৩ ডিসেম্বর) বেলা ২টায় জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদ চত্বরে উপজেলা সমাজসেবা অফিসের পক্ষ থেকে ২২ জন শারীরিক প্রতিবন্ধীর মাঝে হুইল চেয়ার ২জন দৃষ্টি প্রতিবন্ধীর মাঝে স্মাট কেন ডিভাইস ও ১ জন শ্রাবণ প্রতিবন্ধীর মাঝে এয়ারিং এইড বিতরণ করা হয়েছে।

জৈন্তাপুর উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ ভূঁইয়ার পরিচালনায় হুইল চেয়ার, স্মাট কেন ডিভাইস ও এয়ারিং এইড বিতরণ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মশিউর রহমান (এনডিসি), বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেটের জেলা প্রশাসক কাজী এম এমদাদুল ইসলাম, জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বশির উদ্দিন, জৈন্তাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদা পারভীন, জৈন্তাপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি শাহেদ আহমদ, জৈন্তাপুর অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি মুইনুল মুরসালিন রুহেল, নিজপাট ইউনিয়ন পরিষদের ভাপপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ইয়াহিয়া, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আনোয়ার হোসেন, ইউপি সদস্য হুমায়ুন কবির, আলতাফুর রহমান, শাহ আলম বেপারি সহ অন্যান্যরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মশিউর রহমান (এনডিসি) বলেন, ‘প্রতিবন্ধী মানুষের অধিকার অর্জনে সরকার বিভিন্ন ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। যাতে করে প্রতিবন্ধীরা সমাজে বুঝা হয়ে না থাকে। প্রতিবন্ধী মানুষদের ভাগ্যের উন্নয়ন হচ্ছে। শিক্ষা ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধী মানুষের শিক্ষা গ্রহণের সংখ্যা আগের তুলনায় বৃদ্ধি পেয়েছে চাকরিতে দেখা যায় অনেকেই যোগ্যতা অনুযায়ী টিকে থাকতে পারছে। চাকরি দেওয়ার ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধী মানুষদের খোঁজা হচ্ছে। সরকার শিক্ষা ক্ষেত্রে উপবৃত্তি দিচ্ছে, ভাতার পরিমাণও বাড়ানো হয়েছে। সেবা গ্রহণের পথ এখন আরো সুগম হয়েছে। তাই আমরা প্রতিবন্ধী মানুষদের অবহেলা না করে মর্যাদা করি। এরা সমাজের বুঝা নয় এরা আমাদের সম্পদ।’

প্রসঙ্গত, বিভাগীয় কমিশনার মশিউর রহমান শুক্রবার সকালে জৈন্তাপুরের ডিবির হাওরের লাল শাপলার বিল পরিদর্শন করবেন।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত