সিলেটটুডে ডেস্ক

১২ আগস্ট, ২০২০ ০২:০৮

জীবন সঙ্কটে প্রণব মুখার্জি

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির অবস্থার আরও অবনতি হয়েছে। সোমবার কোভিড-১৯ সংক্রমণ শনাক্তের পর থেকে তিনি দিল্লির একটি সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। সোমবারই তার মস্তিস্কে অস্ত্রোপচার করা হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে তার অবস্থা সংকটাপন্ন।

বিবিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী মঙ্গলবার সন্ধ্যায় প্রকাশিত মেডিকেল বুলেটিনে দিল্লির আর্মি (রিসার্চ এন্ড রেফারেল) হাসপাতাল জানিয়েছে, প্রণব মুখার্জীর অবস্থা এখনও সংকটজনক। সোমবার থেকে তিনি ভেন্টিলেটর সাপোর্টে রয়েছেন। বিশেষজ্ঞদের নিয়ে গঠিত মেডিকেল বোর্ড প্রণব মুখার্জির দেখাশোনা করছে।

দিল্লির ওই সামরিক হাসপাতালের মেডিকেল বুলেটিনে লেখা হয়েছে, ‘মাথায় আঘাত পাওয়ায় জমাট বাঁধা রক্ত সরাতে সাবেক রাষ্ট্রপতির মস্তিস্কে জীবনদায়ী অস্ত্রোপচার করা হয়। তারপর থেকে তার শারীরিক অবস্থার কোনও উন্নতি হয়নি বরং অবনতি হয়েছে। তিনি এখনও ভেন্টিলেটর সাপোর্টে রয়েছেন।’

বোরবার রাতে শৌচালয়ে পড়ে যাওয়ার পর বেশ কিছুক্ষণ সেখানেই পড়ে থাকেন প্রণব মুখার্জি। চোট পান মাথায়। সোমবার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে পরীক্ষায় জানা যায়, মাথায় রক্ত জমাট বেঁধেছে। এরপর অস্ত্রোপচার করার সিদ্ধান্ত নেন চিকিৎসকেরা। তখনই কোভিড পরীক্ষায় পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হন তিনি।

কংগ্রেসের ৮৬ বছর বয়সী বর্ষীয়ান এই নেতা সোমবার এক টুইট বার্তায় নিজের করোনা আক্রান্ত হওয়ার কথা জানিয়ে লেখেন, ‘আমি কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়েছি। অন্য কাজে হাসপাতালে যাওয়ার পর করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে। গত সপ্তাহে আমার সংস্পর্শে আসা সবাইকে সেলফ আইসোলেশনে থাকার অনুরোধ করছি’।

দীর্ঘদিন কংগ্রেসের অন্যতম শীর্ষ নেতা ও গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী পদে থাকার পরে ২০১২ সালে ভারতের রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন প্রণব মুখার্জি। তিনি ভারতের রাষ্ট্রপতি পদে দায়িত্ব পালন করেন ২০১২ থেকে ২০১৭ পর্যন্ত। এরপর ২০১৯ সালে তাকে ভারতের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মান ‘ভারতরত্ন’ দেওয়া হয়।

তিনি অর্থমন্ত্রী, প্রতিরক্ষামন্ত্রী এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মত গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) এবং বিশ্বব্যাংকের বোর্ডেও দায়িত্ব পালন করেন। প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং সোমবারই হাসপাতালে যান প্রণব মুখার্জিকে দেখতে। রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ ফোন করে খোঁজ নেন।

করোনাভাইরাস আক্রান্তের দিকে দিয়ে ভারতের অবস্থান এখন বিশ্বে তৃতীয়। ভারতে যে হারে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে তাতে বিশেষজ্ঞরা উদ্বিগ্ন। গত ২৪ ঘন্টায় প্রায় ৬৪ হাজার নতুন সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এখন প্রায় ২৩ লাখ।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত