জুড়ী প্রতিনিধি

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১৬:৩৯

জুড়ীতে অবৈধকরাত কল স্থাপনে এলাকাবাসীর আপত্তি

মৌলভীবাজারের জুড়ীতে জনবহুল ঘনবসতি এলাকায় সরকারি জায়গায় ব্যক্তি মালিকাধীনভাবে করাতকল স্থাপনের প্রতিবাদ জানিয়েছে এলাকাবাসী।

বুধবার জুড়ী উপজেলা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলে এলাকাবাসীর পক্ষে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল জব্বার।তিনি অভিযোগ করে বলেন,জাঙ্গিরাই এলাকার ঘনবসতি স্থানে সরকারি খাস জায়গায় বন বিভাগের যোগসাজসে কথিত সমাজসেবক হাবিবুর রহমান ও সাবেক ইউপি সদস্য খুরশিদ আলী করাতকল স্থাপন করতে চান।

জুড়ী-বড়লেখা সড়কের পাশে আমাদের এলাকার মানুষের চলাচলের জন্য সরকারীভাবে ১২ ফুট প্রস্হ একটি রাস্তা রয়েছে।এই রাস্তাটি আমাদের চলাচলের একমাত্র রাস্তা।একই গ্রামের আব্দুল হাসিম এর পুত্র, কথিত সমাজসেবক,গত ইউপি নির্বাচনে পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী ও  প্রভাবশালী হাবিবুর রহমান ও জারু মিয়ার পুত্র,  সাবেক ইউপি সদস্য খুরশিদ আলী একত্রে মিলিত হইয়া একমাত্র চলাচলের এই রাস্তাটির পাশ ঘেষে সরকারি(এনিমি) মাত্র ৪ শতক জায়গায় অবৈধভাবে অনুমতি ছাড়া একটি করাতকল স্হাপন করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। করাতকলটি চালু হলে অত্র ঘনবসতি এলাকায় শব্দদুষণ সহ নানাবিধ সমস্যায় ভোগান্তির কারণ হয়ে দাঁড়াবে। বিশেষ করে পরিবেশের মারাত্বক ক্ষতি হবে। জনবসতি এলাকা হইতে করাতকল ২০০ গজ দুরে স্থাপনের আইনি নির্দেশনা থাকলে ও তারা এ আইনের তোয়াক্কা করছেন না।অর্থ ও শক্তির জোরে রাস্তার পাশেই তারা করাতকল স্থাপনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত ও মৌখিক অভিযোগ দিয়ে কোনো সুরাহা পাওয়া যাচ্ছে না।আশংকা করা হচ্ছে উক্ত স্থানে করাতকল স্থাপন করা হলে চলাচলের একমাত্র রাস্তার উপরে গাছ ফেলে রেখে একসময় রাস্তাটি বন্ধ করে দেয়ার পায়তারা চলছে।তাছাড়া যেখানে অবৈধ করাত কল স্থাপনের চেষ্ঠা করছেন সেখানের এক বারে পাশে মাদ্রাসা,মসজিদ রয়েছে। অভিযোগকারীরা করাতকল স্হাপনের কাজ বন্ধ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্হা গ্রহণের জোর দাবী জানান।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্হিত ছিলেন স্হানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য বাসনা আক্তার,ভুক্তভোগী শিল্পি বেগম,আম্বিয়া বেগম,মানকি বেগম,শাহেরা বেগম,ফাতেমা বেগম,নুরজাহান বেগম,নুরুন্নেছা বেগম,রাবেয়া বেগম,রুশিয়া বেগম,আঙ্গুরা বেগম ও রিনা বেগম প্রমুখ।

জুড়ী রেঞ্জ কর্মকর্তা মো আলা উদ্দিন বলেন, এ জায়গায় করাতকল স্থাপনের কোন অনুমতি নেই। বিষয়টি খোঁজ নিয়ে বলতে হবে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত