Advertise

বেনাপোল প্রতিনিধি

০১ এপ্রিল, ২০২০ ১৫:০২

বেনাপোলে শ্লীলতাহানির অভিযোগে আওয়ামী লীগ নেতা আটক

যশোরের বেনাপোলে মধ্যরাতে মদ্যপ অবস্থায় হিন্দু সম্প্রদায়ের এক গৃহবধূকে শ্লীলতাহানি ও মারপিটের অভিযোগে গণপিটুনির শিকার বাবু সরদার (৪০) নামে এক আওয়ামী লীগ নেতাকে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার রাত ১২টার দিকে বেনাপোল পৌরসভার ছোটআঁচড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আটক বাবু সরদার বেনাপোল পৌরসভার ছোটআঁচড়া গ্রামের মৃত আকবর আলী ওরফে ক্লে আকবরের ছেলে। শ্লীলতাহানির শিকার রিতা সরকার একই গ্রামের রবীন সরকারের স্ত্রী।

রবীন সরকার জানান, তার স্ত্রী রিতা সরকার প্রকৃতির ডাকে সাড়া দেওয়ায় রাত ১২টার সময় ঘরের বাইরে যান। শৌচাগার থেকে তিনি বের হলে স্থানীয় বাবু সরদার মদ্যপ অবস্থায় তার কাপড় ধরে টানাটানি করে। এ সময় তার স্ত্রীর চিৎকার চেঁচামেচিতে ঘর থেকে বের হয়ে স্ত্রীকে বাবু সরদারের হাত থেকে রক্ষা করতে গেলে তাকে লাইট দিয়ে বাবু সরদার আঘাত করে। এ সময় তার স্ত্রী তাকে ঠেকাতে গেলে স্ত্রীর মাথায়ও লাইট দিয়ে আঘাত করে গুরুতর জখম করে। তার স্ত্রী রক্তাক্ত অবস্থায় অজ্ঞান হয়ে পড়লে বাবু সরদার দৌড়ে পালিয়ে যায়।

তার স্ত্রীকে নাভারন বুরুজ বাগানে ভর্তি করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

ঘটনার শিকার রিতা সরকার বলেন, বাবু সরদার খারাপ কাজের উদ্দেশ্যে গভীর রাতে আমার কাপড় ধরে টানাটানি করে। এ সময় সে মদ্যপান করা অবস্থায় ছিল।

স্থানীয় বেনাপোল পৌর পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি শান্তিপদ গাঙ্গুলী বলেন, গভীর রাতে চিৎকারের শব্দে ঘর থেকে বের হয়ে বলি কি হয়েছে, কি হয়েছে এ সময় বাবু সরদার দৌঁড়ে এসে আমার মাথায়ও লাইট দিয়ে আঘাত করে। আমি দ্রুত ঘটনাটি শুনে থানায় ফোন করলে থানা থেকে পুলিশ এসে বাবু সরদারকে আটক করে নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে রিতার স্বামী রবীন সরকার বাদী হয়ে বেনাপোল পোর্ট থানায় শ্লীলতাহানির অভিযোগ দায়ের করেছেন।

বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি মামুন খান বলেন, রাতে ঘটনা শুনে পুলিশ পাঠিয়ে বাবু সরদারকে আটক করা হয়েছে। বুধবার সকাল ১০টার সময় বেনাপোল পোর্ট থানায় রিতার স্বামী রবীন সরকার বাদী হয়ে শ্লীলতাহানির অভিযোগ করেছেন।
আসামিকে যশোর আদালতে পাঠানো হবে বলে তিনি জানান।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত