সিলেটটুডে ডেস্ক:

২২ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:৪২

‘ভুল সিগন্যালে’ মুখোমুখি দুই ট্রেন, অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন যাত্রীরা

একই লাইনে মুখোমুখি হয়ে পড়েছিল দুটি ট্রেন। স্টেশনে ভুল সিগনালের কারণে এই ঘটনা ঘটে। তবে শেষ পর্যন্ত মুখোমুখি সংঘর্ষ থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছে ট্রেন দুটি। এতে বড় ধরণের দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পান প্রায় হাজারো যাত্রী।

মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুর পৌনে ২টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথের কুমিল্লা রেলওয়ে স্টেশনের সন্নিকটে শহরতলীর ধর্মপুর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। এ সময় আতঙ্কে যাত্রীরা ট্রেন থেকে নেমে পড়েন। এ নিয়ে রেলওয়ে ও রেলপথ নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান ম্যাক্স কর্তৃপক্ষ একে অপরকে দোষারোপ করে পরস্পর বিরোধী বক্তব্য দিয়েছে।

কুমিল্লা রেলওয়ে স্টেশন সূত্রে জানা যায়, ঢাকা অভিমুখী কর্ণফুলী এক্সপ্রেস ট্রেনটি নির্দিষ্ট সময়ের প্রায় ২০ মিনিট বিলম্বে কুমিল্লা স্টেশনে প্রবেশ করছিল। এ সময় বিপরীত দিক থেকে আসা রেল সড়ক নির্মাণে জড়িত ম্যাক্সের পাথর বোঝাই একটি ট্রেনের কয়েকটি বগিও একই লাইন হয়ে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। ম্যাক্সের ট্রেনটি ধর্মপুর রেলক্রসিং থেকে দক্ষিণে চলে আসে। অপর দিকে কর্ণফুলী ট্রেনটি তখন কুমিল্লা স্টেশন থেকে পৌনে এক কিলোমিটার দক্ষিণে ম্যাক্সের পাথর বোঝাই ট্রেন থেকে মাত্র ১২০ গজ দূরে অবস্থান করছিল।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুটি ট্রেনের চালকই দক্ষতা ও দ্রুততার সাথে ট্রেন থামিয়ে ফেলেন। এ সময় দুর্ঘটনা সংগঠিত হওয়ার আতঙ্কে কর্ণফুলী ট্রেনের যাত্রীরা ট্রেন থেকে নেমে পড়েন। তবে কেউ আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি। এদিকে দুইটি ট্রেন একই লাইনে চলে আসার ঘটনায় কর্ণফুলী ট্রেনের দায়িত্বরত স্টাফরা স্টেশন মাস্টারকে দায়ী করেন। তবে এজন্য ম্যাক্সের স্টাফরা কর্ণফুলীর চালককে দোষারোপ করেন।

এ বিষয়ে কুমিল্লা রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মো. সফিকুর রহমান ভূঁইয়া সাংবাদিকদের জানান, ভুল বোঝাবুঝি ও সমন্বয়হীনতার কারণে এমনটি হতে পারে। তবে অল্প সময়ের মধ্যে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে। এতে কেউ আহত হয়নি।

রেলওয়ে কুমিল্লার ঊর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী (পথ) মো. লিয়াকত আলী মজুমদার বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে এবং এ ঘটনায় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত