সিলেটটুডে ডেস্ক

০৪ জুন, ২০২৪ ২৩:৫০

বুধবার বসছে অধিবেশন, বৃহস্পতিবার বাজেট পেশ

দ্বাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম বাজেট অধিবেশন বুধবার (৬ জুন) বিকেল ৫টায় বসবে।

বৃহস্পতিবার (৭ জুন) অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী সংসদে বাজেট প্রস্তাব উপস্থাপন করবেন।

আলোচনা শেষে আগামী ৩০ জুন বাজেট পাস হবে। এর আগে ১০ জুন সোমবার চলতি অর্থবছরের সম্পূরক বাজেট পাস হতে পারে বলে সংসদ সচিবালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

সংসদ সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের বাজেট অধিবেশনের শুরুতে শোক প্রস্তাব উত্থাপন ও সভাপতিমন্ডলীর সদস্য নির্বাচন করবেন স্পিকার। তবে সম্প্রতি ভারতে নিহত হওয়া সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীমের আসন শূন্য ঘোষণার বিষয়ে জাতীয় সংসদ এখনো কোন সিদ্ধান্তে পৌছাতে পারেনি। মরদেহ এখনো না পাওয়ায় আসন শূন্য ঘোষণার বিষয়ে জটিলতা তৈরি হওয়ায় শোক প্রস্তাবে তার নাম থাকছে না। তাই শোক প্রস্তাবের পর অধিবেশন মুলতবি না করে দিনের অন্যান্য কার্যসুচি চলবে।

সূত্র আরও জানায়, বাজেট অধিবেশন শুরু হওয়ার আগে বিকেল ৩টায় জাতীয় সংসদের কার্যউপদেষ্টা কমিটির বৈঠক বসবে। স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধী দলীয় নেতা জিএম কাদেরসহ অন্যান্যরা উপস্থিত থাকবেন। এই বৈঠকে নির্ধারণ করা হবে বাজেট অধিবেশনের কার্যসূচি। ওই বৈঠকেই বাজেট অধিবেশন কতদিন চলবে ও বাজেটের ওপর কতঘন্টা আলোচনা হবে, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এবারের বাজেট অধিবেশন চলতি দ্বাদশ জাতীয় সংসদের তৃতীয় অধিবেশন। এ অধিবেশনেই ২০২৪-২০২৫ অর্থবছরের জন্য প্রায় ৮ লাখ কোটি টাকার বাজেট উত্থাপনের প্রস্তুতি চলছে। এটি হবে বর্তমান অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর প্রথম বাজেট।

জানা গেছে, চলতি ২০২৩-২০২৪ অর্থবছরে ৭ লাখ ৬১ হাজার ৭৮৫ কোটি টাকার বাজেট বাস্তবায়নাধীন। এর মধ্যে পরিচালনসহ অন্যান্য ব্যয় ৪ লাখ ৯৮ হাজার ৭৮৫ কোটি টাকা এবং বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির ব্যয় ২ লাখ ৬৩ হাজার কোটি টাকা। আগামী ২০২৪-২০২৫ অর্থবছরে ৭ লাখ ৯০ হাজার কোটি টাকার কিছু বেশি ব্যয় বরাদ্দ রেখে বাজেট পরিকল্পনা সাজানো হচ্ছে বলে কয়েকজন কর্মকর্তা ইঙ্গিত দিয়েছেন।

আরও জানা গেছে, এবারের বাজেটের আকার ৭ লাখ ৯৬ হাজার ৯০০ কোটি টাকা। এর মধ্যে পরিচালনা ও অন্যান্য ব্যয়: ৫ লাখ ৩১ হাজার ৯০০ কোটি টাকা আর উন্নয়ন ব্যয় বা এডিপি ২ লাখ ৬৫ হাজার কোটি টাকা। জিডিপি প্রবৃদ্ধি হার ধরা হয়েছে ৬ দশমিক ৭৫ শতাংশ। নতুন বাজেটে মূল্যস্ফীতি ৬ দশমিক ৫ শতাংশে ধরে রাখার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। ২০২৪-২৫ অর্থবছরের বাজেটে ভর্তুকি ও প্রনোদনা বাবদ বরাদ্দ ধরা হয়েছে ১ লাখ ২০ হাজার ৫৮৫ কোটি টাকা। যার মধ্যে বিদ্যুৎ ও জ্বালানী খাতে ব্যয় হবে ৪০ হাজার কোটি টাকা। আর খাদ্য নিরাপত্তায় ভর্তুকি ও প্রনোদনা বরাদ্দ ৭ হাজার ৩৬০ কোটি টাকা। বাজেট ঘাটতি মেটাতে বিদেশ থেকে ঋণ নেয়া হবে ১ লাখ ১৫ হাজার কোটি টাকা। আর অভ্যন্তরীণ উৎস থেকে ঋণের পরিমাণ ১ লাখ ৬৫ হাজার কোটি টাকা।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত