নিজস্ব প্রতিবেদক

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১১:৩৮

ছাত্রাবাসে তরুণী ধর্ষণ: প্রধান আসামী সাইফুর গ্রেপ্তার

সিলেট এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে তরুণী গণধর্ষণের ঘটনায় হওয়া মামলার প্রধান আসামী মো. সাইফুর রহমানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

রোববার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টায় সুনামগঞ্জের ছাতক থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে নিশ্চিত করেন সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার (এসপি) মিজানুর রহমান।

তিনি আরও বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভি‌ত্তি‌তে মামলার প্রধান আসামিকে গ্রেপ্তার করা হ‌য়ে‌ছে। তা‌কে সি‌লেট পু‌লি‌শের কা‌ছে হস্তান্ত‌রের প্রক্রিয়া চল‌ছে।’

পুলিশের একাধিক সূত্র জানায়, উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকা নোয়াবাই খেয়াঘাট থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

সিলেট মহানগর পুলিশের শাহপরান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল কাইয়ুম বলেন, ‘ঘটনার পর থেকেই পুলিশ আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা করে যাচ্ছিল। রোববার সকালে পুলিশের বিশেষ শাখার একটি দল ছাতক থেকে সাইফুরকে গ্রেপ্তার করে। প্রযুক্তির সহায়তায় তার অবস্থা নিশ্চিত হওয়ার পর পুলিশের একটি দল অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।’

বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে বলেও জানান তিনি।

বিজ্ঞাপন

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় স্বামী-স্ত্রী এমসি কলেজে বেড়াতে যান। এ সময় কলেজ ক্যাম্পাস থেকে ৫-৬ জন জোরপূর্বক কলেজের ছাত্রাবাসে নিয়ে যায় দম্পতিকে। সেখানে একটি কক্ষে স্বামীকে আটকে রেখে গৃহবধূকে গণধর্ষণ করে তারা। খবর পেয়ে গৃহবধূকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে শাহপরাণ থানা পুলিশ।

এ ঘটনায় গৃহবধূর স্বামী বাদী হয়ে নগরীর শাহপরাণ থানায় ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। তবে এজাহারে ছয় আসামির নাম রয়েছে, তিনজন অজ্ঞাতপরিচয় আসামি রয়েছে। নাম থাকা আসামিদের ছয়জনই ছাত্রলীগের কর্মী হিসেবে পরিচিত। তারা হলেন- সাইফুর রহমান, মাহবুবুর রহমান রনি, তারেক, অর্জুন লঙ্কর, রবিউল ইসলাম ও মাহফুজুর রহমান।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত