নিজস্ব প্রতিবেদক

২৯ ফেব্রুয়ারি , ২০২৪ ০০:৩৫

সিলেটে আবাসিক হোটেলে অসামাজিক কার্যকলাপ, পাঁচ দিনে নারীসহ আটক ১৮

ছবি: সংগৃহীত

সিলেট নগরের আবাসিক হোটেলগুলো থেকে অসামাজিক কার্যকলাপ রুখতে নিয়মিত অভিযান চালাচ্ছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। গত ৫ দিনের অভিযানে বিভিন্ন আবাসিক হোটেল থেকে ১৮ জন তরুণ-তরুণীকে আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়ের করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দক্ষিণ সুরমার কদমতলি এলাকার কয়েস আবাসিক হোটেলে অভিযান চালিয়ে তরুণ-তরুণীসহ ৪ জনকে আটক করা হয়েছে।

আটককৃতরা হলেন- মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার মো. সাহাব উদ্দিন সাজু (৩১), সিলেটের ওসমানীনগর উপজেলার মো. নয়ন মিয়া (২৮), একই উপজেলার ঝুমা বেগম (২৭) ও গোপালগঞ্জ জেলার পপি গুপ্ত (৩০)।

এরআগে মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) ওসমানী হাসপাতাল এলাকার হোটেল বাধন আবাসিক থেকে তরুণ-তরুণীসহ ৪ জনকে আটক করা হয়।

আটকৃতরা হলেন- সিলেটের দক্ষিণ সুরমার মো. সোহেল মিয়া (৩৫), জকিগঞ্জ উপজেলার ফারজানা আক্তার (১৯), সুনামগঞ্জ জেলার দোয়ারাবাজার থানার মো. উজ্জল আহমদ (২০) ও খুলনা জেলার রুপসা থানার ঝর্না বেগম (২০)।

এরআগে শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে সিলেটের দক্ষিণ সুরমার তিতাস অবাসিক হোটেল থেকে ১০ তরুণ-তরুণীকে আটক করা হয়েছে।

আটককৃতরা হলেন- ইমরান শেখ (১৮), শামসুল মিয়া (২৬), ময়না আহমদ (২৫), আসাদ শেখ (২৪), মো. কুটি মিয়া (৪২), সজিব দাস (২৬), রুবেল মিয়া (২২), শারমিন (২৫), পারভিন আক্তার লিজা (২৬), শ্যামলি খাতুন (২৬)।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার (গণমাধ্যম) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘অসামাজিক কার্যকলাপ বন্ধ করতে নগরীর সবগুলো আবাসিক হোটেল মালিকদের সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে। যাতে কেউ এ ধরনের কাজে জড়িত না থাকেন। এরপরও অসামাজিক কার্যকলাপ বন্ধ না করায় আমরা অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। পাশাপাশি এসব হোটেলের মালিকদের বিরুদ্ধেও আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।’

আপনার মন্তব্য

আলোচিত