COVID-19
CORONAVIRUS
OUTBREAK

Bangladesh

Worldwide

49

Confirmed Cases,
Bangladesh

05

Deaths in
Bangladesh

19

Total
Recovered

768,370

Worldwide
Cases

36,912

Deaths
Worldwide

160,238

Total
Recovered

Source : IEDCR

Source : worldometers.info

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

২১ ফেব্রুয়ারি , ২০২০ ২০:৪০

একমাস আগের ঘটনাকে কচুরিপানা নিয়ে সংঘর্ষ বলে অপপ্রচার

“সুনামগঞ্জে কচুরিপানা নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১০” এই শিরোনামে একটি সংবাদ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হতে থাকে। এনিয়ে ব্যাপক চাঞ্চল্যেরও সৃষ্টি হয়। তবে খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে আদতে বৃহস্পতিবার সুনামগঞ্জের দক্ষিণ সুনামগঞ্জ কোন সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেই নি। গত ২৩ জানুয়ারি সুনামগঞ্জের দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার একটি জলমহাল নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনাকে বৃহস্পতিবার কচুরিপানা নিয়ে সংঘর্ষ বলে সংবাদ প্রকাশ করা হয়।

স্থানীয়দের মধ্যে দেওয়া তথ্যমতে, চলতি বছরের ২৩ জানুয়ারি উপজেলার পশ্চিম বীরগাঁও ইউনিয়নের উপ্তিরপাড় গ্রামের পাশে মনুকাটা জলমহাল নিয়ে মো. আলী আহমদ ও ফারুক আহমদদের সাথে মনুকাটা জলমহাল নিয়ে একই গ্রামের মো. আমির আলী ও হযরত আলীদের বিরোধ চলছিল। বেশ কয়েকমাস ধরেই উভয়পক্ষের মধ্যে টান টান উত্তেজনা চলে আসছিল এই জলমহাল নিয়ে। এর রেশ ধরে ২৩ জানুয়ারি বিরোধকে কেন্দ্র করেই এ সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে। এতে উভয়পক্ষের ২৫ জন আহত হন।

এদিকে বৃহস্পতিবার দক্ষিণ সুনামগঞ্জে কোন সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে স্থানীয়দের সাথে কথা হলে তারা জানান, ২০ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার উপজেলার পশ্চিম বীরগাঁও ইউনিয়নে কোন সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেনি। এক মাস আগের জলমহালকে নিয়ে সংঘর্ষকে কচুরিপানার নাম দিয়ে একটি চক্র প্রচার করছে।

২৩ জানুয়ারি সংঘর্ষে গুরুতর আহত হওয়া হয়রত আলী বলেন, আমাদের সংঘর্ষ হয়েছিলো ১ মাস আগে। এটাকে সেই সময় জলমহাল থেকে উঠে আসার সময় সংবাদকর্মীরা ছবিটি তুলেন এবং পরবর্তীতে এটি নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হয়। কিন্তু বৃহস্পতিবার থেকে দেখলাম এটি কচুরিপানা নিয়ে সংঘর্ষ বলা হচ্ছে কিন্তু বিষয়টি ভুয়া।

পশ্চিম বীরগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম বলেন, বৃহস্পতিবার পশ্চিম বীরগাঁও ইউনিয়নের উক্তিরপাড় এলাকায় কোন সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেনি। গনমাধ্যমে যে ছবিটি ভাইরাল হয়েছে সেটি একমাস আগের একটি সংঘর্ষ। এই সংঘর্ষের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে, আসামি আটক হয়েছে এবং হাজত হয়ে এখন জামিনে মুক্ত হয়ে তারা ভালোভাবে চলাচল করতেছে।

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি কাজী জমিরুল ইসলাম মমতাজ বলেন, বৃহস্পতিবার আমরা এমন কোন সংঘর্ষের ঘটনার কথা শুনিনি। যদি এমন কোন ঘটনা ঘটতো তাহলে আমরা গণমাধ্যম কর্মীরা এখানে উপস্থিত থাকতাম। মূলত ঘটনাটি একমাস আগের এবং এটি একটি জলমহাল নিয়ে ছিলো। এই সংঘর্ষের সাথে কচুরিপানার কোন সম্পর্ক নেই।

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হারুনুর রশিদ চৌধুরী বলেন, এই ঘটনাটি এক মাস আগের। আমরা এই ঘটনায় আসামিদের আটক করে আদালতে প্রেরণও করেছি। ২০ ফেব্রুয়ারি এমন কোন সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেনি।

তিনি আরো বলেন, গণমাধ্যমে কাজ বস্তুনিষ্ট ও সত্য সংবাদ তুলে ধরা, কিন্তু অন্য একটি সংঘর্ষের ছবি ব্যবহার করে সংবাদ প্রকাশ করা হয় যার ভিত্তিহীন, বানোয়াট এবং মিথ্যা।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত