COVID-19
CORONAVIRUS
OUTBREAK

Bangladesh

Worldwide

56

Confirmed Cases,
Bangladesh

06

Deaths in
Bangladesh

25

Total
Recovered

936,829

Worldwide
Cases

47,263

Deaths
Worldwide

194,604

Total
Recovered

Source : IEDCR

Source : worldometers.info

তাহিরপুর প্রতিনিধি

২৩ মার্চ, ২০২০ ১৮:২৬

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে কঠোর অবস্থানে তাহিরপুরে উপজেলা প্রশাসন

সন্ধ্যার পর ওষুধ ও জরুরী পণ্য বিক্রেতার দোকান ছাড়া সব দোকান বন্ধের নির্দেশ

নভেল করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় সন্ধ্যার পর ওষুধ ও জরুরী পণ্য বিক্রেতার দোকান ছাড়া সব বন্ধ করেছে তাহিরপুর উপজেলা প্রশাসন।

সোমবার (২৩ মার্চ) সকাল ১১টায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এই নির্দেশনা প্রদান করে উপজেলা প্রশাসন। এছাড়া প্রতিটি বাজারে গবাধি পশুর হাট বাজারে বিক্রিসহ সব কিছু পরিবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এ নির্দেশনা না মানলে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে হুশিয়ারি করা হয়।

এর পূর্বে উপজেলায় সব দোকানপাটসহ রেস্টুরেন্টে সাধারণ মানুষের জনসমাগম, আড্ডা বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। জনসমাগম বন্ধে জেলায় পর্যটন সমৃদ্ধ এলাকাগুলোতেও পযটকদের আগমন নিষিদ্ধ করা হয় জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

জানা যায়, উপজেলার বিভিন্ন পাড়ামহল্লা, হাটবাজারে বিভিন্ন রেস্টুরেন্টসহ দোকানগুলোতে টেলিভিশন চ্যানেলের মাধ্যমে দোকানদাররা বিভিন্ন টিভি প্রোগ্রাম সিনেমা ও ভিডিও গেম প্রচারপূর্বক জনসমাগম করছেন। যার ফলে সাধারণ জনগণের স্বাস্থ্য ঝুঁকি বাড়ছে এবং সেখানে অপ্রয়োজনীয় আড্ডা হচ্ছে।

তাই স্থানীয় হাটবাজার, বাসস্টেশন, হোটেল-রেস্তোরাঁয় বিভিন্ন টিভি চ্যানেলের মাধ্যমে সিনেমা, প্রোগ্রাম পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত বন্ধ রাখার নির্দেশ প্রদান করা হয়। একইসঙ্গে সব ধরনের গণজমায়েত ও আড্ডা নিষিদ্ধ করা হয়।

এখন থেকে এধরনের কার্যক্রম অব্যাহত রাখলে তাদের বিরুদ্ধে প্রমাণসহ (ছবি ও ভিডিও) স্থানীয় প্রশাসন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, পুলিশ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধির কাছে জানানোর জন্য অনুরোধ করা হয়।

তাহিরপুর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা বিজেন ব্যনার্জি জানান, উপজেলার সব চায়ের দোকান বন্ধসহ অন্যান্য ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানে অযথা যাতে কেউ আড্ডা না দেন সেজন্য উপজেলার মানুষের কাছে অনুরোধ করা হয়েছে। জনসমাগম হয় এমন কোন কাজ থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে। করোনাভাইরাস প্রতিরোধ চায়ের স্টলসহ বিভিন্ন দোকানে যেন জনসমাগম না হয় সে জন্য চায়ের দোকান বন্ধ রাখার জন্য নিদর্শনা দেওয়া হয়েছে। সে অনুযায়ী প্রচারণা চালানোসহ সবাইকে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ লিফলেট বিতরণ ও নিদর্শনা মেনে চলার জন্য অনুরুধ করেছি। অন্যথায় কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত