COVID-19
CORONAVIRUS
OUTBREAK

Bangladesh

Worldwide

54

Confirmed Cases,
Bangladesh

06

Deaths in
Bangladesh

25

Total
Recovered

936,204

Worldwide
Cases

47,249

Deaths
Worldwide

194,578

Total
Recovered

Source : IEDCR

Source : worldometers.info

জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া, তাহিরপুর

২৩ মার্চ, ২০২০ ২২:২৬

তাহিরপুরে হ্যান্ড গ্লাভস ও স্যানিটাইজার সঙ্কট

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর  উপজেলায় গত এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে বিভিন্ন বাজারে সঙ্কট দেখা দিয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, প্রভিসেফ, হ্যান্ড গ্লাভস ও মাস্ক। ফলে প্রয়োজনীয় সেবামূলক এই পণ্যগুলো না পেয়ে বিপাকে পড়েছেন সবস্তরের জনসাধারণ। বিভিন্ন ফার্মেসীতে খোঁজ নিয়ে এমন তথ্য জানা গেছে। মাস্ক কিনতে ক্রেতারা ছুটছেন ফুটপাতের নিম্নমানের পণ্যের দিকে।

জানা যায়, নভেল করোনা ভাইরাসের প্রভাবে সাধারণ মানুষের সেবামূলক পণ্য হ্যান্ড স্যানিটাইজার,প্রভিসেফ,ডেটল,হ্যান্ড গ্লাভস ও মাস্কের চাহিদা বৃদ্ধি পেয়েছে। ফার্মেসী ডেলট মিললেও স্যানিটাইজার, প্রভিসেফ,হ্যান্ড গ্লাভস ও মাস্ক পাওয়া যাচ্ছে না। হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও প্রভিসেফ এসিআই ও জেনারেল কোম্পানি এবং হ্যান্ড গ্লাভস ও মাস্ক গেট ওয়েল কোম্পানি বাজারে সরবরাহ করে থাকে। এ ছাড়াও বিভিন্ন ব্যক্তি বাইরের দেশ থেকে হ্যান্ড গ্লাভস ও মাস্ক আমদানি করে বাজারে সরবরাহ করেন। অন্য কোনো কোম্পানি এই জরুরী সেবামূলক পণ্য সরবরাহ না করায় ভোগান্তিতে রয়েছেন ডাক্তার, ফার্মেসীর মালিক ও ক্রেতারা।

বাদাঘাট বাজারে আমির উদ্দিন বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণের পূর্বে স্যানিটাইজার ও মাস্ক ফার্মেসীতে পাওয়া যেত এখন সেখানে পাওয়া যাচ্ছে না। শুধু ডেটল পেয়েছি। মাস্ক ফুটপাত থেকে কিনেছি।

তাহিরপুর বাজারের সাদেক আলী বলেন, পূর্বে স্যানিটাইজার ও মাস্কের চাহিদা কম ছিল এখন চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় ফার্মেসীতে পাওয়া যাচ্ছে না। এখন নিন্ম মানের মাস্ক কিনতে হচ্ছে।

তাহিরপুর হাসপাতালে সম্মুখে মা ফার্মেসীর স্বত্তাধিকারী সজলসহ উপজেলার বিভিন্ন বাজারের ফার্মেসীর দোকানীরা বলেন,আমাদের কাছে স্যানিটাইজার,প্রভিসেফ,হ্যান্ড গ্লাভস ও মাস্ক কোম্পানিকে চাহিদা দিয়েছি কিন্তু তারা দিচ্ছে না। বলছে তাদের কাছেও নেই। আমাদের কাছে ছিল শেষ হয়ে গেছে অনেক আগেই। এদিকে স্যানিটাইজার, প্রভিসেফ, হ্যান্ড গ্লাভস ও মাস্ক উৎপাদনকারী কোম্পানি আমাদের না দেওয়ায় আমরা পাচ্ছি না।

শরীফ ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানির তাহিরপুর উপজেলার এমআইও আশরাফুল ইসলাম জানান, এলাকায় বিভিন্ন দোকানীদের আমাদের কোম্পানির হেক্সিকাড চাহিদাও আছে কিন্তু দিতে পারছি না সরবরাহ কম থাকায়। এই বিষয়টি আমাদের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষে জানিয়েছি সংকটের বিষয়ে।

এ ব্যাপারে এসিআই কোম্পানির সুনামগঞ্জ জেলার এরিয়া ম্যানেজার মোহাম্মদ ফারুক হোসাইন বলেন, আমাদের হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও প্রভিসেফ বাজারে সরবরাহ রয়েছে। তবে সেটা চাহিদা তুলনায় খুবই কম। আমরা বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি।

হাসপাতালের ডাক্তারগন ও অন্যান্য চিকিৎসকগন বলছেন,বাজারে হ্যান্ড স্যানিটাইজার,প্রভিসেফ,হ্যান্ড গ্লাভস ও মাস্ক না থাকার কারণে রোগী দেখতে আমাদের সবচেয়ে বেশি অসুবিধা হচ্ছে। সবচেয়ে ভালো মাস্ক হলো, ‘এন ৯৫।’ কিন্তু সেটা নেই বাজারে। সাধারণ মানুষ সহ আমরা নিন্ম মানের মাস্ক ব্যবহার করতে হচ্ছে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত