আজ বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০২৪

Advertise

সেই আপনারা কোথায়?

এস এম নাদিম মাহমুদ  

আপনারা কথায় কথায় রোহিঙ্গাদের সাথে মুক্তিযুদ্ধে ভারতে আশ্রয় নেয়া বাংলাদেশিদের সাথে তুলনা করলেন। রোহিঙ্গাদের অবস্থা আমাদের একাত্তরের চেয়ে ভয়ানক বলে দাবি করলেন। আমরা যদি এক সময় আশ্রয় নিই, তাহলে আজ রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেব না কেন?

মুক্তবুদ্ধি চর্চাকারী এইসব মানুষ জানেন কি, রাখাইন ছেড়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের সাথে মিয়ানমারের সৈন্যদের মধ্যে কোন যুদ্ধ হয়েছিল না, যেটা একাত্তরে আমাদের সাথে পাকিস্তানের সাথে তুলনা করার মত কিছু ছিল কিনা? এইদেশের কৃষক, মজুর, মূর্খ-জ্ঞানীরা যুদ্ধে রক্ত ঢেলে ত্রিশ লাখ প্রাণের বিনিময়ে বাংলাদেশ পেয়েছে, আর আপনারা রোহিঙ্গাদের বিপর্যয়কে এক লাফে মুক্তিযুদ্ধের সাথে তুলনা করলেন।

ভারতে আশ্রয় নেয়া বাঙালিদের দ্বারা ভারতীয়দের খুন করা হয়নি, মাদক ব্যবসা করা হয়নি এমনকি ভারতের পাসপোর্ট নিয়ে অন্যদেশে পালিয়ে যাওয়ার ঘটনা ছিল না, অথচ অতি মানবিকতার দোহায় দিয়ে ঘরে আশ্রয় দেয়ার পর দেখেন গত দুই বছরে রোহিঙ্গাদের দ্বারা কতজন বাংলাদেশি খুন হয়েছেন? কতজন মাদক-চোরাকারবারিতে জড়িয়েছে? কতজন বাংলাদেশিদের জাতীয় পরিচয়পত্র জালিয়াতি করেছে? কতজন সন্ত্রাসী হয়ে সারা দেশে ছড়িয়ে গেছে?

মুক্তিযুদ্ধে ভারতে বাঙালিরা আশ্রয় নিয়ে যে মানবিক বিপর্যয় পোহাতে হয়েছিল, সেই তুলনায় রোহিঙ্গাদের অনেকটাই রাজার হালে রাখা হয়েছে। বিশ্বের এমন কোন দেশ নেই যাদের শরণার্থীর সংখ্যা বাংলাদেশের সমান। গত দুই বছর রোহিঙ্গাদের যেভাবে সাহায্য সহযোগিতা করা হয়েছে, তার ছিটে ফোঁটা আমার দেশের খেটে খাওয়া, বস্তিবাসী কিংবা মঙ্গাপিড়িত এলাকার মানুষরাও পায়নি।

রোহিঙ্গাদের খাদ্যের জন্য মরতে হয়নি, চিকিৎসার অভাবে মরতে হয়নি। তাদের মাথায় রাখা হয়েছে, এমনকি কেউ কেউ অস্থায়ীভাবে কর্মসংস্থান পেয়েছেন।

এমন সুযোগ সুবিধা রেখে মৃত্যুঝুঁকি নিয়ে মৃত্যুপুরিতে কে যেতে চাইবে শুনি? আপনি কি চাইবেন, আপনার চোখের সামনে আপনার স্ত্রী ধর্ষিত হোক, আপনার সন্তানকে মধ্যযুগীয় কায়দা জখম করা হোক?

বাংলাদেশ ব্যর্থ হয়েছে মানবিকতার কাছে। বিশ্ব পরাজিত হয়েছে মিয়ানমারের কূটকৌশলের কাছে। বিশ্বনেতারা হারিয়েছেন তাদের নেতৃত্ব। নিরাপত্তা, নাগরিকত্ব কেবল ছুতো, বাংলাদেশের মানিবকতাকে পুঁজি করে বিশ্ব রাজনীতির নোংরামির কবলে পড়েছে বাংলাদেশ। আপনার অতি মানবিক আচরণ, রোহিঙ্গাদের ফিরতে দিচ্ছে না। কৈই একদিনও তো রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফিরে নেয়ার জন্য মিছিল করলেন না, ফেইসবুকে ঝড় তুললেন না।

অতি আবেগের ফসল হিসেবে ঘরে তুলেছেন রোহিঙ্গাদের, তাদের ভবিষ্যৎ রক্ষায় আপনার দায়িত্বটুকু কী? মানবিক বিপর্যয় সারা বিশ্বে বছরের পর বছর ধরে আছে, সেটা দূর করার জন্য অতি মানবিক হওয়ার চেয়ে অতি কৌশলি হওয়া জরুরি বটে। আজ রোহিঙ্গারা প্রত্যাবর্তনে আগ্রহী নয়, কাল তারা বাংলাদেশে নাগরিকত্ব চেয়ে বসবে, তখন আপনারাই সেই আবেগের ফুসরতে টেনে রাখবেন, যেটা হতে পারে ভয়ানক বিপদ। এই বিপদ রুখবার শক্তি আপনার/আমার আছে কী?

এস এম নাদিম মাহমুদ, গবেষক, ওসাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাপান

মুক্তমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। sylhettoday24.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে যার মিল আছে এমন সিদ্ধান্তে আসার কোন যৌক্তিকতা সর্বক্ষেত্রে নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে sylhettoday24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় গ্রহণ করে না।

আপনার মন্তব্য

লেখক তালিকা অঞ্জন আচার্য অধ্যাপক ড. মুহম্মদ মাহবুব আলী ৪৮ অসীম চক্রবর্তী আজম খান ১১ আজমিনা আফরিন তোড়া ১০ আনোয়ারুল হক হেলাল আফসানা বেগম আবদুল গাফফার চৌধুরী আবু এম ইউসুফ আবু সাঈদ আহমেদ আব্দুল করিম কিম ৩২ আব্দুল্লাহ আল নোমান আব্দুল্লাহ হারুন জুয়েল ১০ আমিনা আইরিন আরশাদ খান আরিফ জেবতিক ১৮ আরিফ রহমান ১৬ আরিফুর রহমান আলমগীর নিষাদ আলমগীর শাহরিয়ার ৫৪ আশরাফ মাহমুদ আশিক শাওন ইনাম আহমদ চৌধুরী ইমতিয়াজ মাহমুদ ৭১ ইয়ামেন এম হক এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন একুশ তাপাদার এখলাসুর রহমান ৩৭ এনামুল হক এনাম ৪৪ এমদাদুল হক তুহিন ১৯ এস এম নাদিম মাহমুদ ৩৩ ওমর ফারুক লুক্স কবির য়াহমদ ৬৩ কাজল দাস ১০ কাজী মাহবুব হাসান কেশব কুমার অধিকারী খুরশীদ শাম্মী ১৭ গোঁসাই পাহ্‌লভী ১৪ চিররঞ্জন সরকার ৩৫ জফির সেতু জহিরুল হক বাপি ৪৪ জহিরুল হক মজুমদার জাকিয়া সুলতানা মুক্তা জান্নাতুল মাওয়া জাহিদ নেওয়াজ খান জুনাইদ আহমেদ পলক জুয়েল রাজ ১০৭ ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন ১২ ড. কাবেরী গায়েন ২৩ ড. শাখাওয়াৎ নয়ন ড. শামীম আহমেদ ৪১ ডা. আতিকুজ্জামান ফিলিপ ২০ ডা. সাঈদ এনাম ডোরা প্রেন্টিস তপু সৌমেন তসলিমা নাসরিন তানবীরা তালুকদার তোফায়েল আহমেদ ৩১ দিব্যেন্দু দ্বীপ দেব দুলাল গুহ দেব প্রসাদ দেবু দেবজ্যোতি দেবু ২৭ নাজমুল হাসান ২৪ নিখিল নীল পাপলু বাঙ্গালী পুলক ঘটক প্রফেসর ড. মো. আতী উল্লাহ ফকির ইলিয়াস ২৪ ফজলুল বারী ৬২ ফড়িং ক্যামেলিয়া ফরিদ আহমেদ ৪২ ফারজানা কবীর খান স্নিগ্ধা বদরুল আলম বন্যা আহমেদ বিজন সরকার বিপ্লব কর্মকার ব্যারিস্টার জাকির হোসেন ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ১৮ ভায়লেট হালদার মারজিয়া প্রভা মাসকাওয়াথ আহসান ১৯১ মাসুদ পারভেজ মাহমুদুল হক মুন্সী মিলন ফারাবী মুনীর উদ্দীন শামীম ১০ মুহম্মদ জাফর ইকবাল ১৫৩ মো. মাহমুদুর রহমান মো. সাখাওয়াত হোসেন মোছাদ্দিক উজ্জ্বল মোনাজ হক ১৪ রণেশ মৈত্র ১৮৩ রতন কুমার সমাদ্দার রহিম আব্দুর রহিম ৫৫ রাজু আহমেদ ১৯ রাজেশ পাল ২৮ রুমী আহমেদ রেজা ঘটক ৩৮ লীনা পারভীন শওগাত আলী সাগর শাওন মাহমুদ