সিলেটটুডে ডেস্ক

০৮ মার্চ, ২০২১ ১৯:৫৩

বাসার গেটে ময়লা ফেলে রাস্তায় ময়লা ফেলার ‘প্রতিবাদ’

যত্রতত্র ময়লা না ফেলতে বার বার অনুরোধ করা হচ্ছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) পক্ষ থেকে। মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম নিজেও আছেন এই অনুরোধে। তবু থামছে না যত্রতত্র ময়লা ফেলা। এই দলে আছেন মিরপুর সেকশন-৬ এলাকায় জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ নির্মিত সরকারি আবাসনের বাসিন্দারাও।

সোমবার (৮ মার্চ) সকালে ওই এলাকা পরিদর্শনে গিয়ে মেয়র দেখতে পান রাস্তার একটা বড় অংশ জুড়ে ময়লার স্তুপ, এরপর সিদ্ধান্ত নেন এই ময়লা সরকারি আবাসনের গেটের সামনে ফাঁকা জায়গা রাখা হবে। যেই কথা সেই কাজ ময়লা অপসারণের যন্ত্র দিয়ে সেই রাস্তার ময়লা নিয়ে রাখলেন সরকারি আবাসনের গেটের সামনে। মেয়রের এই ‘প্রতিবাদকে’ আলোচনার জন্ম দিয়েছে।

এ বিষয়ে মেয়র সাংবাদিকদের বলেন, দেখুন এখানে ৬৫০টার অধিক ফ্লাট আছে। যারা এই ভবনটা করেছেন, যারা এখানে থাকেন এটা দুঃখজনক ব্যাপার। যারা ভবন করেছেন তারা চিন্তা করেন নাই ৬৫০টি ফ্ল্যাট বা ৭২০ ফ্ল্যাটের মালিকরা ময়লাটা কোথায় ফেলবে? ওনারা ময়লাটা রাস্তায় ফেলে দিয়েছে, যারা সরকারি কর্মকর্তা উনারা যদি রাস্তায় ময়লা ফেলেন বাকিরা কি করবে?

‘এজন্য বলেছি ময়লাটা পরিষ্কার করে ওনাদের সামনে যে সৌন্দর্যমণ্ডিত জায়গা আছে সেখানে ময়লাটা ফেলে দেন। আমি বলেছি ভেতরে জায়গা দিন ওনারা বলেছে ওনাদের ভেতরে গন্ধ হবে। ভেতরে গন্ধ হবে আর রাস্তার ওপরে ফেলে দিচ্ছে এটা তো হাজার হাজার জনগণ গন্ধ পাচ্ছে। তাই আমি তাদের একটা মেসেজ দিতে চাই যে আপনার দ্রুত সকলের সাথে আলাপ করে সুন্দর করে একটা জায়গা দিন আমি এসটিএস করে দেব। এসটিএসের জন্য টাকা চাচ্ছি না। আমরা নিজের খরচে এসটিএস করে নেব।

তিনি বলেন, প্রত্যেকের উচিত যার যার জায়গায় খাল পরিষ্কার করুন, এসটিএসের জন্য জায়গা রাখুন। আমরা সবাই মিলে শহর পরিষ্কার রাখতে চাই। শহর তো এমনিতেই অপরিকল্পিত এভাবে যদি আরও অপরিকল্পিত করে ফেলি তাহলে ভবিষ্যৎ প্রজন্ম বাঁচবে কিভাবে। আসুন সবাই মিলে শহরটাকে পরিষ্কার রাখি।

এসময় স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত