সিলেটটুডে ডেস্ক

০৫ ডিসেম্বর, ২০২৩ ২১:৩৬

হাকিমপুরী জর্দার কাউজ মিয়া আবারও সেরা করদাতা

জর্দা ব্যবসায়ী মো. কাউছ মিয়া এবারও সেরা করদাতা হয়েছেন।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) মঙ্গলবার ২০২২-২৩ করবর্ষের সেরা করদাতাদের নাম প্রকাশ করে। এতে শীর্ষ করদাতা হিসেবে তার নাম ঘোষণা করা হয়।

এবার ১৪১ ব্যক্তি, কোম্পানি ও প্রতিষ্ঠানকে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ‘সেরা করদাতা’ হিসেবে ট্যাক্সকার্ড দেয়া হবে। অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের জ্যেষ্ঠ সহকারী সচিব নুসরাত জাহান নিসুর সই করা গেজেটে এ সব তথ্য জানানো হয়।

জাতীয় ট্যাক্স কার্ড নীতিমালা, ২০১০ (সংশোধিত) অনুযায়ী ২০২২-২৩ করবর্ষের সেরা করদাতা হিসেবে যে ১৪১ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের নামের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে এর মধ্যে রয়েছেন ব্যক্তি ৭৬ জন, কোম্পানি ৫৪টি ও অন্যান্য শ্রেণিতে ১১ জন।

সেরা করদাতাদের আনুষ্ঠানিকভাবে সম্মাননা ও ট্যাক্স কার্ড দেবে এনবিআর। ২০১৬ সাল থেকে সেরা করদাতাদের ট্যাক্স কার্ড ও সম্মাননা দিয়ে আসছে প্রতিষ্ঠানটি।

হাকিমপুরী জর্দা প্রস্তুতকারী কোম্পানির স্বত্বাধিকারী মো. কাউছ মিয়া গত কয়েকবছর ধরে সেরা করদাতা হিসেবে ট্যাক্সকার্ড ও সম্মাননা পেয়ে আসছেন।

একেবারে তৃণমূল থেকে উঠে আসা এ ব্যবসায়ী সরকারকে কর দিতে শুরু করেন ১৯৬৮ সাল থেকে। বহু বছর ধরে সততা, আন্তরিকতা ও স্বপ্রণোদনার স্বীকৃতিস্বরূপ কাউছকে জাতীয় রাজস্ব খাতের গুরুত্বপূর্ণ অ্যাওয়ার্ড সিআইপি মর্যাদায় ভূষিত করা হয়।

কাউছ মিয়ার জন্ম ১৯৩১ সালের ২৬ আগস্ট চাঁদপুর শহরে। বাবা আব্বাস আলী মিয়া ব্যাপারী ও মা ফাতেমা খাতুন। নবম শ্রেণিতে পড়ার সময় দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু হলে পড়াশোনায় বিঘ্ন ঘটে কাউছের। যুদ্ধ-পরবর্তী সময়ে কিশোর বয়সেই চাঁদপুর শহরে ব্যবসায়ী জীবনের শুরু।

২০ বছর ব্যবসা করার পর ১৯৭০ সালে নারায়ণগঞ্জে এসে ব্যবসা শুরু করেন কাউছ মিয়া। জর্দা ব্যবসায় উত্থান হলেও বর্তমানে ৪০টি ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত তিনি। আগা নবাব দেউড়ীতে থেকে ব্যবসা-বাণিজ্য পরিচালনা করছেন তিনি।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত