সিলেটটুডে ডেস্ক

২২ মে, ২০২৪ ১০:১২

সাবেক এমপি হারলেন উপজেলা নির্বাচনেও

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন জাফর আলম। দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে দলের মনোনয়ন পাননি তিনি। স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিমের কাছে হেরে যান। মাত্র তিন মাসের ব্যবধানে সেই জাফর আলম এবার কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়ে হেরে গেছেন।

আওয়ামী লীগ দলীয় সাবেক সংসদ সদস্য হেরেছেন বর্তমান চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদীর কাছে।

মঙ্গলবার (২১ মে) দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. ফখরুল ইসলাম বলেন, ফজলুল করিম সাঈদী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তাকে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে।

সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্র অনুযায়ী, চেয়ারম্যান পদে ফজলুল করিম সাঈদী ৫৯ হাজার ৯৫৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। আর জাফর আলম পেয়েছেন ৫৮ হাজার ২৮২ ভোট। অপরদিকে আনারস প্রতীকের আবদুল্লাহ আল হাসান পেয়েছেন ৪ হাজার ৩২৬ ভোট এবং মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থী বদিউল আলম পেয়েছেন ১ হাজার ২ ভোট।

চকরিয়া উপজেলায় মোট ভোটার তিন লাখ ৬১ হাজার ৮৭ জন। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোট পড়েছে ১ লাখ ২৪ হাজার ৭২টি। ভোটের হার ৩৪ দশমিক ৩৬ শতাংশ।

জাফর আলম ২০০৪ থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত চকরিয়া পৌরসভার মেয়র ছিলেন। ২০১০ সালের মেয়র নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী নুরুল ইসলামের কাছে অল্প ভোটের ব্যবধানে হেরে যান তিনি। ২০১৪ সালে চকরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হয়ে জয়ী হন। এরপর ২০১৮ সালের একাদশ সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে নির্বাচিত হন সংসদ সদস্য। তবে ২০২৪ সালের ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে হেরে যান।

গত সংসদ নির্বাচনে নিজের অবস্থান তুলে ধরে পেকুয়ার একটি নির্বাচনী সভায় প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কুরুচিপূর্ণ ও উদ্ভট মন্তব্য করার অভিযোগ তুলে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগ তাকে চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির পদ থেকে অব্যাহতি দেয়। একই সঙ্গে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কাছে তাকে বহিষ্কারের জন্য সুপারিশ করা হয়।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত