Advertise

তাহিরপুর প্রতিনিধি

২১ মে, ২০২০ ১৯:২৯

আম্পানের প্রভাব তাহিরপুরের জনজীবন বিপর্যস্ত

ঘূর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাবে সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় গত বুধবার থেকে থেমে বৃষ্টির সাথে বাতাস প্রবাহিত হচ্ছে। তবে কোথাও কোন ক্ষয়ক্ষতির খরব পাওয়া যায় নি।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি হচ্ছে। এতে করে জেলার সকল নদীতে পানি বৃদ্ধি পেয়েছে।

করোনার কারণে কর্মহীন মানুষ গুলো বৈরী আবহাওয়ার কারনে আরও বিপাকে পড়েছে।
 
বাজারে মানুষের আগমনে দোকানীরা ঈদের বেচা কেনা গত কিছু দিন ভাল গেলেও এখন বৈরী আবহাওয়া কারনে মানুষ বের হতে না পারায় বেচাকেনা কমে গেছে।

তাহিরপুর উপজেলা সদরের কসমেটিক ব্যবসায়ী সাদেক আলী জানান, বেচাকেনা একবারেই নাই। একে তো করোনা অন্যদিকে আম্পানের কারণে বৈরী আবহাওয়ায় মানুষজন বাজারে আসছে না। আর একবারে বাজারে না বাড়িতে থাকতে পারছেন না তারাই কেবল বাজারে আসছে। ঈদের আমেজ নেই এবার।

বাদাঘাট  ইউনিয়নের বাদাঘাট বাজারের কাপড় ব্যবসায়ীরা জানান, করোনা দোকান এতাদিন বন্ধ রাখতে হয়েছিল। এখন দোকান খোলার পর কিছু বেচাকেনা হয়েছিল কিন্তু গত দু দিন ধরে খুবই খারাপ অবস্থা, বেচাকেনা নেই। ঘূর্ণিঝড় আম্পানের কারণে মানুষ ঘরেই অবস্থান করছে। ঈদের কেনা কাটা নাই বললেই চলে।

রিকশা চালক সাব্বির মিয়া জানান, ঝড়বৃষ্টির কারণে বাড়ি থেকে বের হতে পারছি না। করোনার কারণে এমনিতে কষ্টে আছি। এখন মরার উপর খাঁড়ার ঘা হয়ে এসেছে ঘূর্ণিঝড়।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত