নবীগঞ্জ প্রতিনিধি

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ২২:৫৫

নাম-ঠিকানা বলতে পারছে না মেয়েটি

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে অজ্ঞাতপরিচয়ের বাক প্রতিবন্ধী এক কিশোরীকে উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার বিকেলে উপজেলা সমাজ সেবার মাধ্যমে নবীগঞ্জ থানা পুলিশ এই কিশোরীকে হবিগঞ্জ আদালতে প্রেরণ করেছেন। আদালত কিশোরীকে সেফ হোমে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।
 
জানা যায়, উপজেলার দীঘলবাক ইউনিয়নের দূর্গাপুর বাজার থেকে হুসেনপুর যাওয়ার পথে ১৬ বছর বয়সী একটি মেয়ে কান্না করছে দেখতে পান ইউপি সদস্য খালেদ হাসান দুলন। এসময় তার সাথে ছিলেন সুমন আহমেদ, মোহাম্মদ আলী ও মহিবুর রহমান। পরে তারা কিশোরীটি নাম জিজ্ঞাস করলেও সে কথা বলতে পারেনি। এসময় স্থানীয় আরো লোকজন জড়ো হয়ে বাক প্রতিবন্ধী ওই মেয়েটিকে প্রশাসনের কাছে হস্তান্তরের জন্য ইউপি সদস্য খালেদ হাসান দুলনের জিম্মায় দেন।

বিজ্ঞাপন



পরে খালেদ হাসান নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করে উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তাকে অবহিত করে মেয়েটিকে নবীগঞ্জ থানা পুলিশের কাছে প্রদান করেন।

নবীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) উত্তম কুমার দাশ জানান, পুলিশ মেয়েটিকে হবিগঞ্জ আদালতে প্রেরণ করলে আদালতের বিচারক মেয়েটিকে সেফ হোমে পাঠানের নির্দেশ দিয়েছেন।

তিনি জানান, কিশোরীকে থানায় আনার পর, তার পরিচয় জানতে তাকে বিভিন্ন করা হলেও কিছুই বুঝাতে পারেনি। তাকে কাগজে বিভিন্ন জেলার নাম লেখে দিলে, সে আবার একই লেখাই লিখে। ইশারায় বুঝাতে চেয়েছে কেউ তাকে গাড়ি দিয়ে নামিয়ে দিয়ে গেছে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত