ডা. আতিকুজ্জামান ফিলিপ

২২ মে, ২০২১ ২১:৫৬

‘আমলা সুরক্ষায়’ আমলাদের কি প্রাণান্তকর প্রচেষ্টা!

খবরে দেখলাম অতিরিক্ত সচিব জেবুন্নেসাকে নিয়ে কোনরকম ‘নেতিবাচক সংবাদ’ না করতে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়! কি অবিশ্বাস্য ব্যতিক্রমী ইমিউনিটি! আমলা সুরক্ষায় আমলাদের কি প্রাণান্তকর প্রচেষ্টা!

তর্কের খাতিরে ধরে নিলাম, সাংবাদিক রোজিনা ইসলাম ইস্যুতে সাম্প্রতিককালে অতিরিক্ত সচিব জেবুন্নেসার বিরুদ্ধে যেসব খবর বেরিয়েছে সেগুলো অসত্য ও বানোয়াট। কিন্তু প্রশ্ন হলো, যদি আমার আপনার মতো কোন সাধারণ নাগরিকের বিরুদ্ধে কখনো ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় এমন করে অসত্য ও বানোয়াট খবর বের হয় তখন কি আমরা এমন কোন ইমিউনিটি পাবো? রাষ্ট্র কি আমাকে বা আমাদেরকে সে নিশ্চয়তা দিতে পারে?

জেবুন্নেসা যেমন এই রাষ্ট্রের একজন নাগরিক আমিও তেমনি এই রাষ্ট্রের একজন নাগরিক। এই রাষ্ট্রকে আমিও নিয়মিত প্রতিবছর ট্যাক্স দিই। আমি যদি এমন কোন ইমিউনিটি না পাই তাহলে জেবুন্নেসা কেন পাবেন?

যে কারো সম্পর্কে অসত্য ও বানোয়াট খবর তৈরি ও প্রচার একটি গর্হিত অপরাধ। এধরনের কাজ থেকে যে কারো বিরত থাকা উচিৎ, সেটাই একজন নাগরিকের সামাজিক দায়িত্ববোধের পরিচায়ক। তবে কোন আমলাকে রক্ষা করতে প্রচারমাধ্যমকে সতর্ক করে এমন চিঠি দেওয়ার আর কোন নজির এদেশে আছে কি না আমার জানা নেই!

আপনার মন্তব্য

আলোচিত