শনিবার, ২৫ মে ২০১৯ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

১৬ এপ্রিল, ২০১৯ ১২:৫৬

এতো দর্শক গত ১৯ বছরে দেখিনি: ক্যাটরিনা

‘পিএস ৬৯ স্কুলের ব্যবস্থাপনা বিভাগে আমি গত ১৯ বছর ধরে কাজ করছি। এতো দর্শক কোনো অনুষ্ঠানে দেখি নাই। নিয়মিত নিরাপত্তা দলের সঙ্গে আমাদের অতিরিক্ত ৬ জন কর্মী নিযুক্ত করেতে হয়েছে এই ভিড় ব্যবস্থাপনা করতে।’

কথাগুলো বলছিলেন জ্যাকসন হাইটসে ২ দিনব্যাপী বৈশাখী মেলার নিরাপত্তা বিভাগের প্রধান ৪৭ বছর বয়সী ক্যাটরিনা হোপ।

এআরবি ওয়ার্ল্ড ওয়াইড আয়োজিত পিএস ৬৯ স্কুলে দুই দিনব্যাপী বৈশাখী মেলা শেষ হয়েছে স্থানীয় সময় ১৪ এপ্রিল রাত ১০টায়।

শেষ দিন গান গেয়েছেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী ফেরদৌসী আরা। দর্শক মাতিয়ে রেখেছেন তরুণ লোকশিল্পী শাহ মাহবুব। অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেছেন ফাহিম রেজা নূর ও সায়মা শ্যামলিপি।

অভিনেত্রী শিরিন বকুল ঘোষণা করেছন সুন্দর পোশাক পরিধান প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের নাম। এ সময় ফ্রি র‍্যাফেল ড্র এর বিজয়ীর নাম ঘোষণা করেন ডিজিটাল ওয়ান ট্রাভেলের কর্ণধার বেলায়েত হোসেন বেলাল। তিনি ড্র এর পুরস্কার নিউইয়র্ক-ঢাকা রিটার্ন টিকেটটি স্পন্সর করেছেন।

শুভেচ্ছা বক্তব্য রেখেছেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান এবং এটর্নি মঈন চৌধুরী।

নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে ১৩ এপ্রিল শুরু হওয়া দুই দিনব্যাপী বৈশাখী মেলার উদ্বোধন করেছিলেন সংগীতজ্ঞ মুত্তালিব বিশ্বাস। এ সময় তার সঙ্গে প্রধান অতিথি হিসেবে মঞ্চে ছিলেন রাষ্ট্রদূত ও জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন নিউইয়র্ক বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল সাদিয়া ফায়জুন্নসো।

মেলায় উপচে পড়া ভিড় সম্পর্কে লেখক আহমাদ মাযহার বলেন, এটি আমার কাছে একটি অভূতপূর্ব ঘটনা। বৈশাখী মেলা প্রাঙ্গণ এবং অনুষ্ঠানের মিলনায়তনে তিল ধারণের ঠাঁই নেই। তাই কর্তৃপক্ষ প্রবেশের পথ বন্ধ করে রেখেছে। কেউ মেলা থেকে বাহির হলে অন্য কাউকে প্রবেশ করতে দেয়। ঘণ্টাখানেক চেষ্টা করেও ঢুকতে পারি নাই। তবে বাইরে শত শত মানুষের এই মুখরতা এবং সাজসজ্জার ফেস্টুনের সঙ্গে মানুষের ছবি তোলা দেখে ভালোই লাগছিল। এ যেন মেলার বাহিরে আরেকটি মেলা।

মেলার পরিকল্পনাকারী ও সমন্বয়ক তোফাজ্জল লিটন বলেন, আমরা কল্পনাও করিনি এতো দর্শক হবে। আমরা আন্তরিক ভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি, কারণ আমাদের অনেক প্রিয় মানুষ মেলায় প্রবেশ করতে পারেন নাই এই ভিড়ের জন্য। তবে ভালো লেগেছে মানুষের এই মিলন মেলা দেখে। আমরা আগামীতে আরও বড় জায়গায়  এই মেলা আয়োজন করবো।  

সুন্দর পোশাক পরিধান প্রতিযোগিতার ৫-৯ বছরের বিভাগে প্রথম হয়েছেন স্বপ্ন দ্বীপ, দ্বিতীয় হয়েছেন স্কদি, তৃতীয় হয়েছে রিক। ১০-১৭ বছরের বিভাগে প্রথম হয়েছেন আকাশ নন্দী, দ্বিতীয় হয়েছেন রোদশী, তৃতীয় হয়েছে শাবিল। ১৮ বছর থেকে উন্মুক্ত বয়সের বিভাগে প্রথম হয়েছেন রিমি রোম্মান, দ্বিতীয় হয়েছেন এ্যানি নন্দী, তৃতীয় হয়েছে ঝুনু সাহা।

দম্পতি জোড়ায় প্রথম হয়েছেন, জয় দাশ ও লিপি সাহা, দ্বিতীয় হয়েছেন আব্দুল্লাহ খালেক ও কামরুন নাহার ডলি, তৃতীয় হয়েছেন, আব্দুল মান্নান ও আরিফা ইয়াসমিন।

প্রত্যেক বিজয়ীদের ১৩৪৭৬০৫ ০৫৯৩ ও ৩৪৭ ২৭৯ ৩৪৯৮ নাম্বারে এসএমএস করে যোগাযোগ করার অনুরোধ করা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত