আজ মঙ্গলবার, , ২২ মে ২০১৮ ইং

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৮ জানুয়ারী, ২০১৮ ২৩:৩৬

আমরা যে সময় যাপন করছি তা দুঃসময়: ওয়াসি আহমেদ

সিলেটটুডে-উৎস প্রকাশন সাহিত্য পুরস্কার প্রদান

কথাসাহিত্যিক ওয়াসি আহমেদ বলেছেন, আমার লেখা গল্পে আমি আমার সময়কে ধরার চেষ্টা করেছি। আমরা যে সময় যাপন করছি তা দুঃসময়। এর উপশম কি আদৌ সম্ভব? লেখক যখন কিছু লেখেন তার ভাবনা থাকে তা পাঠকের মনে সঞ্চারিত করা। এর বেশি লেখকের করার কিছু নেই।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সিলেটটুডে টোয়েন্টিফোর ডটকম-উৎস প্রকাশন সাহিত্য পুরস্কার ২০১৮ প্রদান অনুষ্ঠানে পুরষ্কারপ্রাপ্তির প্রতিক্রিয়ায় তিনি এসব কথা বলেন।

নগরের একটি হলরুমে প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক ওয়াসি আহমেদের হাতে সিলেটটুডে টোয়েন্টিফোর ডটকম-উৎস প্রকাশন সাহিত্য পুরস্কার ২০১৮ তুলে দেওয়া হয়।

পুরষ্কারপ্রাপ্তির প্রতিক্রিয়ায় তিনি আরও বলেন, সিলেটে আমার জন্ম ও বেড়ে উঠা হলেও সিলেটে যারা সাহিত্য চর্চা করেন তাদের সাথে আমার খুব একটা যোগাযোগ নেই। তবু শেকড়ের টান উপেক্ষা করা যায় না। শেকড়ের টানেই এখানে আসা।

তিনি বলেন, এখানে পুরষ্কার নিতে এসে আমি কিছুটা অপ্রস্তুত। প্রতিষ্ঠিত তরুণ লেখককে এ ধরণের পুরষ্কার দিলে তারা আরো উৎসাহিত হতো।

বক্তব্যেও শেষ পর্যায়ে নিজের লেখা থেকে পাঠ করে শোনান ওয়াসি আহমেদ।

ভাষাসৈনিক এমিরেটাস অধ্যাপক মো. আব্দুল আজিজের সভাপতিত্বে পুরষ্কার প্রদান অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন একুশে পদকপ্রাপ্ত লোকসংগীতশিল্পী সুষমা দাস।

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সিলেটটুডে টোয়েন্টিফোর ডটকম’র সম্পাদক আব্দুল আলিম শাহ ও উৎস প্রকাশনের প্রধান নির্বাহী মোস্তফা সেলিম। পুরষ্কারপ্রাপ্ত লেখকের জীবনী পাঠ করেন কবি সুমনকুমার দাশ।

আবৃত্তিকার নাজমা পরভীনের সঞ্চালনায় ওয়াসি আহমদের সাহিত্যকর্ম নিয়ে বক্তব্য রাখেন কবি মোস্তাক আহমদ দীন, কবি শুভেন্দু ইমাম ও নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. আতফুল হাই শিবলী। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন সিলেটটুডে টোয়েন্টিফোর ডটকম’র প্রধান সম্পাদক কবির য়াহমদ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে পুরস্কারপ্রাপ্ত লেখককে উত্তরীয় পরিয়ে দেন সভাপতি সহ অতিথিরা। এসময় তাঁরা সম্মাননা স্মারক এবং উপহারসামগ্রীও তুলে দেন।

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার বিশিষ্টজনেরা উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত