আজ মঙ্গলবার, , ২৪ এপ্রিল ২০১৮ ইং

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ ০১:৪২

সিলেটে আজ বাংলাদেশের ‘অভিষেক’

‘এটা দারুণ গ্রাউন্ড। আমি বেশ হতবাক যে এখানে গত সাড়ে তিন বছরে আমি আসিনি।’- এমন মন্তব্য হাথরুসিংহের।

কেবল হাথরু কেনো, এই আফসোস তো সিলেটের সকল ক্রীড়ামোদী দর্শকদেরও।

৬১৫ ফুট দৈর্ঘ্য ও ৪৮৫ ফুট প্রস্থের সিলেট ক্রিকেট স্টেডিয়ামটি ২০০৭ সালে নির্মিত হয়। ২০১৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দিয়ে আন্তর্জাতিক আঙিনায় যাত্রা শুরু হয় এ স্টেডিয়ামের।  তবে আগে কখনোই যে সিলেট স্টেডিয়ামে খেলে নি বাংলাদেশ। আজকেই প্রথম এই মাঠে নামবে টাইগারবাহিনী। ফলে আজকের টি২০’র মাধ্যমেই সিলেটে ‘অভিষেক’ হচ্ছে বাংলাদেশের।

সিলেট স্টেডিয়ামের সৌন্দর্যের কথা বলাই বাহুল্য। অবকাঠামোগত দিক থেকেও এটি দেশের আধুনিক স্টেডিয়াম। আর সিলেটের দর্শকের কথা কে না জানে। ঘরোয়া লীগেও এখানে গ্যালারিতে উপচে পড়ে দর্শক। টিকিটের জন্য রীতিমত মারামারি লেগে যায়। স্থানীয় ‘মেয়র কাপেও’ দর্শকের ভিড় সামলাতে পুলিশকে রীতিমত লাঠিপেটা করতে হয়।

এমন মাঠে আগে কেনো বাংলাদেশ দলের খেলা হয়নি তা সত্যিই এক বিস্ময় বটে। তবে দেরীতে হলেও সিলেটের মাঠে বাংলাদেশ দলকে পেয়ে খুশি এখানকার ক্রীড়া পাগল দর্শকরা। আজ মাঠে দর্শকদের যে ঢল নামবে তা আগেভাগেই বলে দেওয়া যায়। টিকিট নিয়ে কাড়াকাড়ি যথারীতি চলছেই।

১৬ ফেব্রুয়ারি রাতে অনলাইনে ছাড়া হয় এই ম্যাচের ১৭ হাজার টিকিট। এক ঘণ্টার মধ্যেই শেষ হয়ে যায় সব টিকিট। শনিবার সিলেট স্টেডিয়ামের বুথে ছাড়া হয় ৬ হাজার টিকিট। দুপুর ১২টা থেকে শুরু হয় টিকিট বিক্রি। তবে ৬ টা থেকেই বুথের সামনে লাইনে জড়ো হন কয়েক শ’ টিকিটপ্রত্যাশী। সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে দীর্ঘ হতে থাকে এই লাইন।  তবে বিসিবি’র সিলেট ভ্যানুর মিডিয়া ম্যানেজার ফরহাদ আহমদ কোরেশী জানিয়েছেন, এবার টিকিট নিয়ে কোনো অব্যবস্থাপনা হয়নি।

সিলেটের মাঠে প্রথম ম্যাচ। এই বিষয়টি অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে বলেও জানালেন মাহমুদউল্লাহ। এই ম্যাচটাকে স্মরণীয় করে রাখতে চান বলেও জানালেন তিনি।  বললেন- ‘সিলেটের প্রথম ম্যাচটা স্মরণীয় করে রাখতে চাই’।

সিলেটের দর্শকদের প্রত্যাশা এমনটি। ম্যাচটা অন্তত স্মরণীয় করে রাখবে বাংলাদেশ। পরাজয়ের বৃত্ত ভেঙ্গে সিলেট থেকেই শুরু হবে জয়যাত্রা।

নিজেদের মাঠে বাংলাদেশ দলের প্রথম ম্যাচ দেখার উত্তেজনা তো আছেই। এরসাথে স্থানীয় দর্শকদের কাছে বাড়তি উৎসাহ যোগাচ্ছেন দলের দুই নবীন সদস্য জাকির হোসেন ও আবু জাহেদ রাহি। দু’জনের বাড়িই সিলেটে। প্রথম টি২০তেই জাকিরের অভিষেক হয়েছে। আজকের ম্যাচের রাহির অভিষেকের সম্ভাবনার কথা জানিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ। ফলে এই লোকাল হিরোর প্রতিও আজ বিশেষ নজর থাকবে সিলেটের দর্শকদের।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত