বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯ ইং

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

১০ জুন, ২০১৯ ২১:৫৭

চকলেটের লোভ দেখিয়ে শিশু ধর্ষণ: বখাটে রুহুল আমিন গ্রেপ্তার

সুনামগঞ্জ শহরের মল্লিকপুরে প্রথম শ্রেণি পড়ুয়া এক শিশুকে চকলেটের লোভ দেখিয়ে ধর্ষনের ঘটনায় বখাটে রহুল আমীনকে (১৮) গ্রেপ্তার করেছে সদর থানা পুলিশ।

রবিবার রাতে অভিযান চালিয়ে মল্লিকপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সোমবার সকালে পুলিশ রুহুল আমীনকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করে। ধর্ষিত শিশু কন্যা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

জানা যায়, শনিবার রাত ৮টার দিকে নিজ বসবাড়ির রাস্তায় ছিল বিধবা দিনমজুর নারীর পিতৃহীন কন্যা। এসময় প্রতিবেশি তেরাব আলীর বখাটে ছেলে রুহুল আমিন (১৮) ওই শিশুকে চকলেট দেওয়ার কথা বলে তার বসতঘরে ডেকে নেয়। ওইসময় ওই বসতঘরে কেউ ছিলনা। এই সুযোগে তাকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে। আসার সময় এ ঘটনা কাউকে খুলে না বলার জন্য হুমকি দেয়। ওই শিশুকন্যা বসতঘরে এসে রাতে ঘুমিয়ে পড়ে। রাতে তার প্রচ- ঝড় ওঠে ও ব্যথা শুরু হয়। দিনমজুর বিধবা মা ঘটনা জানতে চাইলে সে বখাটের হুমকির বিষয়টি মনে করে চেপে যায়। রবিবার বিকেলে প্রতিবেশি চাচাতো ভাইয়ের বউয়ের কাছে এ ঘটনা খুলে বললে ওই নারী তাৎক্ষণিকভাবে শিশুর মাকে বিষয়টি জানান।

এসময় তিনি মেয়েকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে আসতে চাইলে রুহুল আমিনের বাবা, মা, বোন ও বোন জামাই তাদেরকে হাসপাতালে আসতে বারণ করে। এক পর্যায়ে তাদের অবরুদ্ধ করে রাখে। এ সময় আশপাশের মানুষ জড়ো হলে তারা অসুস্থ মেয়েকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়ার কথা বলেন। এই খবর মহিলা পরিষদ ও স্থানীয় কাউন্সিলর জানতে পারায় ভিকটিমের মাকে হাসপাতলে চিকিৎসা নেওয়ার কথা জানান।

অবশেষে রবিবার রাত ৮টার দিকে শিশু কন্যাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছেন মা। এদিকে মেয়েকে হাসপাতালে ভর্তি করার পর ধর্ষকের পরিবার হুমকি ধমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

ওই শিশুকন্যার মা বলেন, আমার মেয়েকে চকলেট দেওয়ার কথা বলে বখাটে রুহুল আমিন ধর্ষন করেছে। রাতে মেয়ের প্রচ- জ্বর ওঠে। ব্যাথায় কাতরায়। আজ বিকেলে আমার এক বউয়ের কাছে ঘটনা বলার পর আমি হাসপাতালে নিয়ে এসেছি। তবে হাসপাতালে আসতে আমাকে বারণ করা হয়েছে এবং হুমকি দেওয়া হয়েছে।

সদর থানার ওসি মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ বলেন, ধর্ষণের ঘটনা জানার পর রাতে অভিযান চালিয়ে রহুল আমীন নামে এক বখাটেকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছে সদর থানা পুলিশ। সকালে আদালতে প্রেরণ করণে আদালত তাকে জেল হাজতে পাঠান। আইন অনুযায়ি তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত