শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

০২ আগস্ট, ২০১৯ ১৭:৪৮

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত তাহিরপুর-সুনামগঞ্জ সড়ক দ্রুত মেরামতের দাবিতে মানববন্ধন

ঈদের আগে তাহিরপুর-সুনামগঞ্জ সড়কসহ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হাওর এলাকার সকল সড়ক মেরামত করে সড়ক যোগাযোগ স্বাভাবিক করার দাবি জানিয়েছে পরিবেশ ও হাওর উন্নয়ন সংস্থা। শুক্রবার বিকাল তিনটায় সুনামগঞ্জের তাহিরপুর বাজারে এক মানববন্ধনে তারা এসব দাবি জানায়। মা

নববন্ধনে তাহিরপুরের বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ যোগ দেন। মানববন্ধন চলাকালীন পরিবেশ ও হাওর উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি কাসমির রেজার সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক পিযুষ পুরকায়স্থ টিটু'র সঞ্চালনায় সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর খোকন, ইউপি সদস্য বিউটি রানী তালুকদার, হুমায়ূন, বাবলু, রাসেল এবং এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

বক্তারা বলেন, বন্যার পানি নেমে গেলেও এখনো রাস্তাগুলো সংস্কার করা হয়নি। এজন্য সারা দেশের সাথে আমাদের যাতায়াত অনেক কষ্টসাধ্য হয়ে গেছে। জরুরী প্রয়োজনেও কোথাও যাওয়া যাচ্ছে না। একমাসেরও বেশি সময় ধরে তাহিরপুর -সুনামগঞ্জ সড়কটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এখনো যান চলাচল স্বাভাবিক হয়নি। এতে বয়স্ক, শিশু ও রোগীদের অবর্ণনীয় দুর্ভোগে পোহাতে হচ্ছে। সভাপতির বক্তব্যে কাসমির রেজা  বলেন, সাম্প্রতিক বন্যায় সিলেট বিভাগের ৩৬ টি উপজেলায় বার হাজার কিলোমিটার রাস্তা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এসব রাস্তাঘাট এখন চলাচলের অনুপযোগী। সামনেই ঈদ। ঈদের আগে সড়ক সংস্কার না হলে নাড়ীর টানে বাড়ি ফেরা মানুষকে অসহনীয় দুর্ভোগে পড়তে হবে। ঈদের বন্ধে অনেক পর্যটক টাঙ্গুয়ার হাওরে আসেন। সড়ক মেরামত না হলে তাদেরও দুর্ভোগে পড়তে হবে। তাই ঈদের আগেই আমরা হাওর এলাকার সকল ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক মেরামত করে সড়ক যোগাযোগ স্বাভাবিক করার দাবি জানাই। এসব সড়কে যান চলাচল না করাতে অনেক শ্রমিক বেকার হয়ে গেছে, শহর থেকে গ্রামে জিনিসপত্র না আসাতে দ্রব্যমূল্য বেড়ে যাচ্ছে। মানুষের দুর্ভোগ কমাতে সংশ্লিষ্ট মহলকে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার জোর দাবি জানাচ্ছি। ব্যক্তিবর্গ।

বক্তারা বলেন, বন্যার পানি নেমে গেলেও এখনো রাস্তাগুলো সংস্কার করা হয়নি। এজন্য সারা দেশের সাথে আমাদের যাতায়াত অনেক কষ্টসাধ্য হয়ে গেছে। জরুরী প্রয়োজনেও কোথাও যাওয়া যাচ্ছে না। একমাসেরও বেশি সময় ধরে তাহিরপুর -সুনামগঞ্জ সড়কটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এখনো যান চলাচল স্বাভাবিক হয়নি। এতে বয়স্ক, শিশু ও রোগীদের অবর্ণনীয় দুর্ভোগে পোহাতে হচ্ছে। সভাপতির বক্তব্যে কাসমির রেজা  বলেন, সাম্প্রতিক বন্যায় সিলেট বিভাগের ৩৬ টি উপজেলায় বার হাজার কিলোমিটার রাস্তা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এসব রাস্তাঘাট এখন চলাচলের অনুপযোগী। সামনেই ঈদ। ঈদের আগে সড়ক সংস্কার না হলে নাড়ীর টানে বাড়ি ফেরা মানুষকে অসহনীয় দুর্ভোগে পড়তে হবে। ঈদের বন্ধে অনেক পর্যটক টাঙ্গুয়ার হাওরে আসেন। সড়ক মেরামত না হলে তাদেরও দুর্ভোগে পড়তে হবে। তাই ঈদের আগেই আমরা হাওর এলাকার সকল ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক মেরামত করে সড়ক যোগাযোগ স্বাভাবিক করার দাবি জানাই।

সভাপতির বক্তব্যে কাসমির রেজা  বলেন, সাম্প্রতিক বন্যায় সিলেট বিভাগের ৩৬ টি উপজেলায় বার হাজার কিলোমিটার রাস্তা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এসব রাস্তাঘাট এখন চলাচলের অনুপযোগী। সামনেই ঈদ। ঈদের আগে সড়ক সংস্কার না হলে নাড়ীর টানে বাড়ি ফেরা মানুষকে অসহনীয় দুর্ভোগে পড়তে হবে। ঈদের বন্ধে অনেক পর্যটক টাঙ্গুয়ার হাওরে আসেন। সড়ক মেরামত না হলে তাদেরও দুর্ভোগে পড়তে হবে। তাই ঈদের আগেই আমরা হাওর এলাকার সকল ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক মেরামত করে সড়ক যোগাযোগ স্বাভাবিক করার দাবি জানাই। এসব সড়কে যান চলাচল না করাতে অনেক শ্রমিক বেকার হয়ে গেছে, শহর থেকে গ্রামে জিনিসপত্র না আসাতে দ্রব্যমূল্য বেড়ে যাচ্ছে। মানুষের দুর্ভোগ কমাতে সংশ্লিষ্ট মহলকে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার জোর দাবি জানাচ্ছি। 

আপনার মন্তব্য

আলোচিত