বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং

গোয়াইনঘাট প্রতিনিধি

০৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৯:০৯

গোয়াইনঘাটে উদ্বোধনের জন্য প্রস্তুত উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স

সিলেটের গোয়াইনঘাটে মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সরকারের গৃহীত মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে। উপজেলার বাইপাস সংলগ্ন এলাকায় ১কোটি ৯৬লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মিত হয় এই মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স। গোয়াইনঘাটের মুক্তিযোদ্ধাদের অফিসিয়াল কার্যক্রম পরিচালনা এবং তাদের কল্যাণে উক্ত ভবন বাণিজ্যিক পরিসরেও কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

১১শতক ভূমির উপর সীমানা প্রাচীরসহ তৃতীয় তলা বিশিষ্ট স্থাপত্যশৈলীর  উক্ত মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে নিচ তলায় রয়েছে ৫টি দোকান। দ্বিতীয় তলায়ও ৫টি দোকান রয়েছে। তৃতীয় তলায় ১টি কমিউনিটি সেন্টার,অফিস,লাইব্রেরী ও সম্মেলন কক্ষ রয়েছে। এছাড়া উক্ত কমপ্লেক্সের একেবারে উপরে রয়েছে নামাজের স্থান। আধুনিক সকল নির্মাণ সামগ্রীর মিশেলে স্থাপিত এই ভবনটি নির্মাণ কাজ শুরু হয় ২০১৬সালের ২৬ডিসেম্বর।

সরকারের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী এবং স্থানীয় এম.পি ইমরান আহমদ ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের মাধ্যমে ভবনটির নির্মাণ কাজের শুভ সূচনা করেছিলেন। চলতি বছরের ৩০জুন ভবনটির নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে বলে উপজেলা প্রকৌশলী কার্যালয় হতে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

নির্মাণ প্রতিষ্ঠান ই.এফ. ট্রেনিং উপজেলা প্রকৌশল অধিদপ্তরের মাধ্যমে উক্ত মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সটি নির্মাণ কাজ বাস্তবায়ন করে। ২ কোটি ৩৮ লক্ষ ৮ হাজার টাকা বরাদ্ধ হলেও সংশোধিত চুক্তি মূল্য ১ কোটি ৯৬ লক্ষ ৪ হাজার টাকার মধ্যে ভবনটির নির্মাণ কাজ সম্পূর্ণ হয়ে গেছে বলে জানিয়েছে এল.জি.ই.ডি।

উক্ত ভবনের নির্মাণ কাজের দায়িত্বে থাকা উপ-সহকারী প্রকৌশলী ইসরাইল হোসেন জানান, গোয়াইনঘাটের মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনটির নির্মাণ কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে। উক্ত কমপ্লেক্সটি এখন উদ্বোধনের জন্য প্রস্তুত রয়েছে।

উপজেলা প্রকৌশলী রাশেন্দ্র চন্দ্র দেব জানিয়েছেন, গোয়াইনঘাটে মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সরকারের গৃহীত প্রকল্প উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনটির নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। অচিরেই ভবনটি আমরা আনুষ্ঠানিকভাবে সিলেটের জেলা প্রশাসকের কাছে হস্তান্তর করব।

গোয়াইনঘাটের উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. আব্দুল হক জানান, মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণার্থে সরকারের নানামুখী প্রকল্পে আমরা কৃতজ্ঞ। সরকারের প্রধানমন্ত্রী এবং প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী আমাদের গোয়াইনঘাটের মুক্তিযোদ্ধাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন বলেই এই কমপ্লেক্স ভবন আমরা উপহার পেয়েছি। আমরা সরকারের এই মহতী উদ্যোগেকে স্বাগত জানাই এবং আমরা চির কৃতজ্ঞ।

গোয়াইনঘাটের উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিশ্বজিত কুমার পাল জানান, দেশের সবকটি স্থানে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন সরকারের গৃহীত উন্নয়ন প্রকল্পের ধারাবাহিকতার অংশ। গোয়াইনঘাটের উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনটি অচিরেই উদ্বোধন করা হবে। সরকারের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য ইমরান আহমদ প্রধান অতিথি থেকে উক্ত কমপ্লেক্স ভবনটি অচিরেই উদ্বোধন করবেন।

সরকারের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেন, বর্তমান সরকার মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে আন্তরিক। তাদের স্বার্থে সরকার দেশব্যাপী অগণিত উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যানার্থে সরকারের প্রধানমন্ত্রীর নিজ উদ্যোগে গৃহীত প্রকল্প উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনটিও উন্নয়ন ধারাবাহিকতার একটি অংশ। বর্তমান সরকার মুক্তিযোদ্ধাদের যে কোন সমস্যা সমাধানে সর্বোপুরি তাদের কল্যানার্থে নানামুখী উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করছেন। গোয়াইনঘাটসহ সারা দেশের মুক্তিযোদ্ধা এবং তাদের পরিজনরাও সরকারের বিভিন্ন সুবিধাদি পাচ্ছেন। ভবিষ্যতেও আওয়ামী লীগ সরকার মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে কাজ করে যাবে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত