বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯ ইং

কমলগঞ্জ প্রতিনিধি

১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ১৮:১৯

কমলগঞ্জে শত্রুতার জেরে সবজি বাগান ও গাছ কর্তন

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুরে পূর্ব শত্রুতার জেরে কয়েকজন কৃষকের সবজি বাগান ও গাছ কর্তন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসব ফসল ও গাছ কর্তন করায় এখন পরিবার-পরিজন নিয়ে বিপাকে পড়েছেন ভুক্তভোগী কৃষকরা।  

জানা যায়, মাধবপুর ইউনিয়নের ধলাইপাড় গ্রামের কবরস্থানের উত্তরকোনে অবস্থিত এলাকায় স্থানীয় কয়েকজন কৃষক দীর্ঘদিন যাবত নানা জাতের মৌসুমি সবজিসহ নানা জাতে গাছ রোপণ করে আসছেন। তার মধ্যে রয়েছে কাঁঠাল, পেয়ারা, কলা, তেজপাতা, শিমগাছ, লাউগাছ, টমেটো, বেগুন, ফরাস ও বৃক্ষ প্রজাতির মধ্যে আকাশমণি, বেলজিয়াম, সেগুন ও বাঁশ বাগান রয়েছে।

পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বুধবার (১৬ অক্টোবর) ভোর রাতের কোন এক সময় কে বা কারা মনাফ মিয়ার প্রায় ৩ লাখ টাকা মূল্যের পিয়ারা, কলা, কাঁঠাল, তেজপাতা, শিম ও লাউগাছ, সানুর মিয়ার প্রায় ৫০ হাজার টাকার সবজি বাগান,আব্দুল মজিদের প্রায় ২ লাখ টাকার আকাশমণি, বেলজিয়াম, সেগুন, কলা ও সবজি ক্ষেত, ইউনুছ মিয়ার প্রায় ২ লাখ টাকার বাঁশ ,আকাশমণি গাছ ও সবজি ক্ষেত, সিরাজ মিয়ার প্রায় দেড় লাখ টাকার টমেটো, বেগুন ও ফরাসের সবজি ক্ষেত ও আফিয়া বেগমের প্রায় ৫০ হাজার টাকার সবজি ক্ষেত ও গাছ গাছালি কেটে বিনষ্ট করে দুর্বৃত্তরা। বুধবার সকালে তাদের জমির এই অবস্থা দেখে সবাই কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে।

কৃষক মনাফ মিয়া, আব্দুল মজিদ, সানুর মিয়া ও আফিয়া বেগম জানান, একই এলাকার হাজী জহির উদ্দিন, আব্বাছ আলী ও আহমদ আলীদের সাথে জমি-জমা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। তারাই হয়তো আমাদের এই কষ্টার্জিত বাগান বিনষ্ট করেছে। ধারদেনা করে এই জমি চাষাবাদ করেছি যাতে পরিবার-পরিজন নিয়ে ভালো ভাবে সংসার চালাতে পারি। কিন্তু এখন আমরা ধারদেনা কিভাবে পরিশোধ করবো আর সংসারই কি ভাবে চালাবো ? এখন পথে বসা ছাড়া আর কোন রাস্তা দেখছিনা।

ঘটনার খবর পেয়ে কমলগঞ্জ থানার এস আই তোফায়েল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন মাধবপুর ইউপি চেয়ারম্যান পুষ্প কুমার কানু ও ইউপি সদস্য মোতাহের আলী। এ ঘটনায় কৃষক আব্দুল মজিদ বাদী হয়ে কমলগঞ্জ থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত