মঙ্গলবার, , ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

নিজস্ব প্রতিবেদক

০৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:২৭

সাংসদ হতে চান একডজন ‘স্বশিক্ষিত’ প্রার্থী

সিলেটের ৬ আসন

সিলেটের ৬টি আসনে এবার ৬৬টি জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এসব প্রার্থীরা মনোনয়পত্রের সাথে জমা দেওয়া হলফনামায় নিজেদের শিক্ষাগত যোগ্যতার কথা উল্লেখ করেছেন। হলফনামায় ১২ জন প্রার্থী নিজেদের স্বশিক্ষিত বলে উল্লেখ করেছেন।

এছাড়া অষ্টম শ্রেণি থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যন্ত শিক্ষাগত যোগ্যতা আরও ১২ জনের। তাদের মধ্যে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত দুইজন, মাধ্যমিকের গন্ডি পেরিয়েছেন চারজন এবং উচ্চ মাধ্যমিক পাস ছয়জন প্রার্থী। স্নাতক ডিগ্রিধারী রয়েছেন এক ডজন প্রার্থী, মাস্টার্স ও দাওরায়ে হাদিস (সমমান এমএ) রয়েছেন ১২ জন, তিনজন ডক্টরেটসহ তাকমিল ফিল হাদীস, তাকলিম, টাইটেল ও কামিল পাস রয়েছেন ১১ জন এবং বিএ-এলএলবিধারী সাতজন প্রার্থী রয়েছেন।

লেখক, শিক্ষবিদ অধ্যাপক মুহম্মদ জাফর ইকবাল তাঁর একটি লেখায় এ প্রসঙ্গে লিখেছেন- 'স্বশিক্ষিত’ বলে আরেকটা নতুন শব্দের সঙ্গে এবারে পরিচিত হলাম। এতদিন জেনে এসেছি যেকোনো শিক্ষিত মানুষই হচ্ছে স্বশিক্ষিত, কারণ শিক্ষার কোনো ট্যাবলেট নেই যেটা পানি দিয়ে খেলেই আমরা শিক্ষিত হয়ে যাই। ...শিক্ষিত মানুষ মানেই স্বশিক্ষিত মানুষ। প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা না থাকলে একজন সম্ভবত সেটা জানাতে সংকোচবোধ করেন সে জন্যে এই শব্দটি ব্যবহার করেন। আমি ব্যক্তিগতভাবে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা না থাকলেই একজনকে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করতে রাজি নই। ...যারা রাজনীতি করেন, প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা নেই কিন্তু আজীবন গণমানুষের সঙ্গে থেকে কাজ করেছেন। সেটি আমার কাছে বিন্দুমাত্র অগৌরবের কিছু নয়।'

'নির্বাচনী টুকিটাকি এবং বাড়াবাড়ি' শিরোনামের তাঁর এই লেখাটি ৭ ডিসেম্বর সিলেটটুডে টোয়েন্টিফোর ডটকম-এ প্রকাশিত হয়েছে।

হলফনামা ঘেঁটে দেখা গেছে- স্বশিক্ষিতের তালিকায় জাতীয় পার্টির ৩জন, বিএনপি, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম, ইসলামি শাসনতন্ত্র আন্দোলন ও স্বতন্ত্রপ্রার্থী রয়েছেন২ জন করে এবং গণফোরামের একজন।

সিলেটের ৬৬ প্রার্থীর মধ্যে ডক্টরেট ডিগ্রীধারী আছেন তিনজন। তাঁরা হলেন- সিলেট-১ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ড. এ কে আব্দুল মোমেন, সিলেট-২ আসনে এনামুল হক সর্দার (স্বতন্ত্র) ও সিলেট-৫ আসনে আহমদ আল ওয়ালী (স্বতন্ত্র )।

স্বশিক্ষায় শিক্ষিত প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন,  সিলেট-১ আসনে জাতীয় পার্টির মাহবুবুর রহমান, সিলেট-২ আসনে ইসলামী আন্দোলনের আমির উদ্দিন ও গণফোরামের মোকাব্বির খান, সিলেট-৩ আসনে সতন্ত্র প্রার্থী জুনায়েদ মোহাম্মদ, জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের নজরুল ইসলাম, সিলেট-৪ আসনে জাপা‘র এম. ইসমাইল আলী আশিক, পার্টির প্রেসিডিয়াম মেম্বার আহমেদ তাজ উদ্দিন তাজ রহমান, সিলেট-৫ আসনে জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের উবায়দুল্লাহ ফারুক, বিএনপির শরীফ আহমদ লস্কর, স্বতন্ত্র ফয়জুল মুনীর, সিলেট-৬ আসনে বিএনপির হোসেন খান হেলাল (হেলাল খান) ও ইসলামী আন্দোলনের আজমল হোসেন।

এছাড়া মাধ্যমিকের গণ্ডি পেরোতে না পারা (৮ম শ্রেনী) দুই প্রার্থী হলেন-সিলেট-২ আসনে বিশ্বনাথ উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান ও সিলেট-৩ আসনের ইসলামী আন্দোলনের এম এ মতিন বাদশা।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত