COVID-19
CORONAVIRUS
OUTBREAK

Bangladesh

Worldwide

164

Confirmed Cases

17

Deaths

33

Recovered

1,361,598

Cases

76,315

Deaths

293,654

Recovered

Source : IEDCR

Source : worldometers.info

সিলেটটুডে ডেস্ক

১৭ ফেব্রুয়ারি , ২০২০ ২০:৩৪

সৈয়দপুর বিমানবন্দরে আগ্রহ নেপালের

সৈয়দপুর বিমানবন্দর ব্যবহারে আগ্রহ দেখিয়েছে নেপাল।  বাংলাদেশের সাথে ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসারিত করতেই নেপালের এমন আগ্রহ বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেছেন, দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী এটি ব্যবহারের প্রস্তাব দিয়েছেন। আমরা শিগগিরই সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেব।

সোমবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) ঢাকায় সফররত নেপালের পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রদীপ কুমার গাওয়ালি বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সাথে এক মতবিনিময় সভা করেন। মতবিনিময় সভা শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। সভায় নেপালের পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রদীপ কুমার গাওয়ালি, বাণিজ্য সচিব ড. জাফর উদ্দীনসহ দুই দেশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘তিনি দুই দেশের বাণিজ্যের উন্নয়নে কথা বলেছেন। কীভাবে দুই দেশের যোগাযোগ বাড়ানো যায় সে বিষয়েও কথা হয়েছে। আগামী মাসের প্রথম দিকে নেপাল ও বাংলাদেশের মধ্যে ঢাকায় সচিব পর্যায়ের একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। নেপালের সঙ্গে আমাদের প্রিফারেন্সিয়াল ট্রেড এগ্রিমেন্টের (পিটিএ) জন্য অনেক দিন থেকে কথাবার্তা চলছে।’

নেপালের পররাষ্ট্রমন্ত্রী একটা কম্বাইন্ড টিম গঠনের প্রস্তাব দিয়েছেন উল্লেখ করে টিপু মুনশি বলেন, ‘এটা ভালো প্রস্তাব। তাছাড়া আমাদের সৈয়দপুর বিমানবন্দর ব্যবহারের প্রস্তাব দিয়েছেন তারা। রেলওয়ে যোগাযোগের বিষয়ে কথাবার্তা অনেক দূর এগিয়েছে। এ বিষয়টিতে তারা গুরুত্ব দিয়েছেন।’

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, ‘নেপালের বিরাগনগর থেকে সৈয়দপুরের বিমানবন্দরের ফ্লাইং টাইম প্রায় ২৫ মিনিট। এ বিমানবন্দর তারা ব্যবহার করতে পারলে দুই দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ হবে।’

নেপালের সৈয়দপুর বিমানবন্দর ব্যবহার কবে নাগাদ কার্যকর হবে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এটা ওনাদের চাহিদা। আমি ওনাদের বললাম, এ বিষয়ে ইমেডিয়েটলি সিভিল অ্যাভিয়েশন ও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সাথে কথা বলবো। প্রস্তাবের পর মনে হয়েছে এটা আমাদের ও ওনাদের দুই দেশের জন্যই ভালো হবে। এখন প্রতিদিন মোট ১০টা ফ্লাইট সৈয়দপুর যাচ্ছে। ওনারা যদি একটা-দুটা ফ্লাইট শুরু করে তাহলে যোগাযোগ বাড়বে।’

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের প্রধানমন্ত্রীও নেপালের সাথে বাণিজ্যসহ যোগাযোগ বাড়াতে খুব ইন্টারেস্ট। আমাদের পরবর্তী মিটিংগুলো খুব প্রোটেন্সিয়াল হবে। আমরা নেপালের সাথে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য বাড়ানোর বিষয়ে খুব আশাবাদী।’
 
বাংলাদেশ নেপালে কোনো ধরনের পণ্য রফতানি করে এমন প্রশ্নের জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ওখানে আমাদের প্রচুর পণ্য রফতানি হচ্ছে। প্রাণের অনেক আইটেম যাচ্ছে, পাটজাত পণ্যসহ অনেক পণ্য যাচ্ছে।’

চীনে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে বিশ্বব্যাপী বাণিজ্যে খারাপ অবস্থা বিরাজ করছে। বাংলাদেশের মোট বাণিজ্যের প্রায় ৭০ ভাগ বাণিজ্য চীনের সাথে। তাই বাংলাদেশেও এর ব্যাপক প্রভাব পড়বে এবং ইতোমধ্যে প্রভাব পড়তে শুরু করেছে বলে জানান বাণিজ্যমন্ত্রী।

আসন্ন রমজানে ভোগ্যপণ্যের প্রস্তুতির বিষয়ে সাংবাদিকরা বাণিজ্যমন্ত্রীকে প্রশ্ন করতে চাইলে তিনি বলেন, আগে নেপালের ইস্যুটা শেষ করে এ বিষয়ে কথা বলবো।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত