Advertise

মাধবপুর প্রতিনিধি

১৯ মে, ২০২০ ১৩:৩৬

মাধবপুরে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল জব্দ, ব্যবসায়ীর ১৫ দিনের জেল

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার জগদিশপুর তেমুনিয়ায় গোডাউনে সরকারি খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল রাখার দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত মনোরঞ্জন সরকার নামে এক ব্যবসায়ীকে ১৫ দিনের কারাদণ্ড দিয়েছে। এ সময় সরকারি ৪৫০ কেজি চাল জব্দ করা হয়েছে।

সোমবার (১৮ মে) রাত ১০টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাসনূভা নাশতারান মাধবপুর উপজেলার জগদিশপুর পুরাতন তেমুনিয়া মনোরঞ্জন সরকারের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বিজয় সেন্টারের গোডাউনে অভিযান চালিয়ে সরকারী সিল মোহরকৃত বস্তায় ৪৫০ কেজি চাল জব্দ করেন।

বিজ্ঞাপন

চালগুলো ১০ টাকা কেজি দরে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির, যা কার্ডধারীদের কাছে বিতরণযোগ্য। মনোরঞ্জন কোনও নিয়োগপ্রাপ্ত ডিলার নন। পরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাসনুভা নাশতারান ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে সরকারি চাল মজুদ রাখার দায়ে গুদামের মালিক মনোরঞ্জনকে ১৫ দিনের কারাদণ্ড প্রদান করেন। মনোরঞ্জন বর্তমানে থানা পুলিশের হেফাজতে রয়েছেন।

এদিকে ইউএনও জগদীশপুর ইউনিয়নের ভিজিডির কার্ডধারীদের চাল পেয়েছেন কি না তা খতিয়ে দেখছেন।

উপজেলা খাদ্য অফিস সূত্রে জানা যায়, জগদিশপুর ইউনিয়নে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা কেজিতে চাল বিক্রয় করার জন্য এনাম খান ও নাছির খান নামে দুজন ডিলার রয়েছে। কার্ডধারী রয়েছেন ১২শ লোকের অধিক। দুজন ডিলার খাদ্য গুদাম থেকে চাল উত্তোলন করে গত রোববার থেকে কার্ডধারীদের মাঝে বিক্রি শুরু করে।

ডিলারদের কাছে জানতে চাওয়া হলে তারা জানান, আমরা নিয়ম অনুযায়ী স্বচ্ছতার সাথে চাল কার্ডধারীদের মাঝে বিতরণ করছি।

প্রশাসনের একটি সূত্রে জানা গেছে কার্ডধারীদের কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে, তারা চাল ক্রয় করেছে কি না। চালগুলো কীভাবে মনোরঞ্জনের গোডাউনে গেল, কোথায় থেকে সরকারি চাল পেল এ বিষয়ে তদন্ত করার জন্য একটি কমিটি গঠন হতে পারে।

মাধবপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) গোলাম দস্তগীর আহমেদ সোমবার রাতে জানান, সাজায় আদেশপ্রাপ্ত মনোরঞ্জন সরকার এখন থানায় আছেন। মঙ্গলবার সকালে তাকে হবিগঞ্জ কারাগারে পাঠানো হবে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত