Advertise

চুনারুঘাট প্রতিনিধি

০৭ এপ্রিল, ২০২০ ২২:১১

চুনারুঘাটে ৪ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সাধারণ মানুষের ঘরে থাকা নিশ্চিত করতে হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলা প্রশাসন ও সেনাবাহিনীর যৌথ টহল অব্যাহত রয়েছে। টহলকালীন ৪ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) বিকেল ৪টায় চুনারুঘাট উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মিল্টন পাল এবং সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন বখতিয়ার উদ্দিনের নেতৃত্বে উপজেলার আহম্মদাবাদ ইউনিয়নের আমুরোড বাজার, শুকদেবপুর ও রাজার বাজারসহ চুনারুঘাটের প্রায় এলাকাতেই যৌথ টহল চালানো হয়।

এসময় সরকারি নির্দেশ অমান্য করে দোকান খোলা রাখায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে আমুরোড বাজারের ৩টি বস্ত্রবিতান ও ১টি শিল্পালয়সহ মোট চারটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করা হয়।

জরিমানাকৃত ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো হলো শ্রাবণী বস্ত্রালয়কে (১৫’শ টাকা), লতিফিয়া ক্লথ স্টোরকে (১৫’শ টাকা), লিমা বস্ত্রবিতান ও শাড়ী ঘরকে (১’হাজার টাকা) ও ঝুমা শিল্পালয়কে (৫শত টাকা) করে মোট ৪হাজার ৫শত টাকা জরিমানা করা হয়।

পরে হ্যান্ড মাইক দিয়ে মাইকিং করে সাধারণ মানুষের সমাগমস্থলে গিয়ে প্রয়োজনীয় কাজ সেরে ঘরে তাড়াতাড়ি ফিরে যেতে বলেন। অপ্রয়োজনে ঘর থেকে বের হতে নিষেধ করে করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষিত থাকার পরামর্শ দেন। জনগণকে বাড়িতে নিরাপদে থাকার জন্য আহবান জানানো হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন আহম্মদাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবেদ হাসনাত চৌধুরী সনজু।

সেনাবাহিনীর লেফটেন্যান্ট এ এস এম বখতিয়ার-উল ইসলাম বলেন, নিয়মিত টহলে হ্যান্ড মাইক দিয়ে করোনা ভাইরাস মোকাবেলা সম্পর্কে বাজারের ব্যবসায়ীদের অবহিত করা হয়। দোকানে একাধিক ক্রেতা যাতে এক সাথে ঢুকতে না পারে সে ব্যাপারেও নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, সাধারণ মানুষকে ঘরে থাকতে মাইকিং করে আহবান জানানো হয়। অকারণে ঘরের বাইরে বের হয়ে আড্ডা বা জনসমাগম তৈরি করতে না পারে এ জন্য টহল অব্যাহত থাকবে। তাছাড়া করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে বার-বার হাত ধোয়া এবং প্রত্যেককে আরও বেশি সতর্ক হওয়ার আহবান জানান তিনি।

চুনারুঘাট উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মিল্টন পাল বলেন, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতকরন ও বাজার মনিটরিং করতে অভিযান পরিচালনা করা হয়। সরকারি আদেশ অমান্য করায় উপজেলার আহম্মদাবাদ ইউনিয়নের আমুরোড বাজারের ৪টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে অর্থদণ্ড দেয়া হয়। এ অভিযান নিয়মিত চলবে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত