বুধবার, , ১৭ অক্টোবর ২০১৮ ইং

শাবি প্রতিনিধি

১১ অক্টোবর, ২০১৮ ১৪:১৬

শাবিতে ‘এক্সিড ২০১৮’ উৎসব শুরু

শিক্ষার্থীদের কর্মক্ষেত্রে চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় প্রস্তুত করে তুলতে দেশের ২৫টি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) ‘এক্সিড ২০১৮ উৎসব শুরু হয়েছে।

সিভিল এন্ড এনভারনমেন্টাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের আয়োজনে এই উৎসবে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের ২৫টি সরকারী-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৫০ জন শিক্ষার্থী বিভিন্ন ইভেন্টে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করছেন।

বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মিলনায়তনে এ উৎসবের উদ্বোধন করেন জাতীয় অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী। অনুষ্ঠানের সভাপতি হিসেবে তখন উপস্থিত ছিলেন উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ।

জ্ঞান ও কর্মক্ষেত্রের  নতুন ধার উন্মোচনের মাধ্যমে নিজেকে ছাড়িয়ে এক নতুন প্ল্যাটফর্ম তৈরি করতে এই উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে বলে জানান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. ইমরান কবির।

উদ্বোধন শেষে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে এক বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভাযাত্রা বের করা হয়। এতে আগত সকল অতিথিসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক, শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

ট্রাস চ্যালেঞ্জ, মেকানিক্স অলিম্পিয়াড, অটোক্যাড ড্রয়িং, পোস্টার প্রেজেন্টেশন, সাধারণ জ্ঞান কুইজ, ব্র্যান্ডিং কম্পিটিশন ও এক্সিড ম্যানিফেস্টেশন মোট সাতটি ইভেন্টে দিনব্যাপী এই প্রতিযোগিতা চলছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী বলেন, “সাস্টেইনেভল ডেভেলপমেন্টের সাথে শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম অঙ্গাঅঙ্গিভাবে জড়িত। ২০৩০ সালের মধ্যে বিশ্বের অনেক দেশ সাস্টেইনেভল ডেভেলপমেন্টের জন্য ১৭ থেকে ৬৯টি গোল নিয়ে এগোচ্ছে। এর মধ্যে অধিকাংশই গোল সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং এর সাথে জড়িত।”

“আমাদের দেশের মাটির যে ধরন, সেখানে অবকাঠামোগত উন্নয়নের মাধ্যমে সাস্টেইনেভল ডেভেলপমেন্ট একটি বড় চ্যালেঞ্জ। এই ধরনের উৎসব হলে জ্ঞান ও অভিজ্ঞতার আদান-প্রদানের মাধ্যমে সাস্টেইনেভল ডেভেলপমেন্ট সম্ভব।”

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট ভূমিকম্প বিশেষজ্ঞ ও বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মেহেদি আহমেদ আনসারী এবং শাবির কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. ইলিয়াস উদ্দিন বিশ্বাস।

ইমরান কবির বলেন, এ আয়োজনের বিভিন্ন ইভেন্টের বিচারক হিসেবে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক রয়েছেন। ‘ব্র্যান্ডিং ব্যালাডস’ প্রতিযোগিতার অতিথি বিচারক হিসেবে থাকবেন টেন মিনিট স্কুলের উপদেষ্টা মোহাম্মদ সামিদ রাজ্জাক।

তিনি বলেন, বিকেলে প্রতিযোগীদের জন্য রয়েছে টেকনিক্যাল সেমিনার, সমাপনী অনুষ্ঠান ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা। এই উৎসবে সহযোগী হিসেবে রয়েছে সেভেন রিংস সিমেন্ট।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত