বুধবার, , ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

১৬ মে, ২০১৮ ১৯:৩৪

সুপ্ত প্রতিভাকে কাজে লাগিয়ে মনুষ্যত্বকে জাগিয়ে তোলতে হবে: আব্দুল আউয়াল

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স সেল (আইকিউএসি) এর পরিচালক অধ্যাপক ড. আব্দুল আউয়াল বিশ্বাস বলেছেন, আত্মবিশ্বাসকে প্রতিষ্ঠার করার মাধ্যমে মানবমনে শিক্ষার বাস্তব প্রতিফলন ঘটে। সুপ্ত প্রতিভাকে কাজে লাগিয়ে ভেতরের সম্ভাবনার সদ্ব্যবহারে মনুষ্যত্বকে জাগিয়ে তোলতে শিক্ষার্থীদেরকে মনোযোগী হতে হবে। নৈতিক এবং মানবিক গুণাবলী অর্জনের ব্যাপারে শিক্ষার্থীরা যদি আন্তরিক হয় তবে দেশ ও সমাজের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করবে।

বুধবার (১৬ মে) কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের শহিদ সোলেমান হলে সিলেট সেন্ট্রাল কলেজের এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

সিলেট সেন্ট্রাল কলেজের অধ্যক্ষ লে. কর্নেল (অব.) এম. আতাউর রহমান পীরের সভাপতিত্বে আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন শাবিপ্রবির ক্যামিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড পলিমার সায়েন্স বিভাগের অধ্যাপক ড. আবু ইউসুফ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রাখেন সিলেট সেন্ট্রাল কলেজের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিজান, সিলেট সেন্ট্রাল কলেজের ভাইস চেয়ারম্যান আক্কাস আলী, সিলেট সেন্ট্রাল কলেজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহনেওয়াজ খান শাকিল।

ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক ফাতেমা বেগম ও আইসিটি বিভাগের প্রভাষক শিরিন সুলতানা রুমির পরিচালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন কলেজ কো-অর্ডিনেটর জাহিদ হোসাইন, প্রভাষক মোর্শেদ আলম, কলেজ পরিচালক ফয়জুল আলম, ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক মাসুদ রানা, মানবিক বিভাগের প্রভাষক মিনহাজ আহমদ, বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক বাবুল আক্তার, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের প্রভাষক মওদুদ ত্বকী বান্না এবং শিক্ষার্থীদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন বৃষ্টি আক্তার।

অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র জারিফ হোসেন রিয়াদ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি এবং অন্যান্য অতিথিবৃন্দ সংবর্ধিত শিক্ষার্থীদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন। শেষে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

প্রধান বক্তার বক্তব্যে শাবিপ্রবির ক্যামিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড পলিমার সায়েন্সের প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ বলেন, জীবনের সফলতা অর্জন করতে হলে সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য স্থির করে প্রতিভা নিয়ে অগ্রসর হবে। জীবনদক্ষতা অর্জনে বাস্তবভিত্তিক শিক্ষার প্রতি খেয়াল রাখতে হবে। তবেই শিক্ষার্থীরা তাদের সুনির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছতে পারবে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত