স্পোর্টস ডেস্ক

২৪ মে, ২০২৪ ০৯:৪৭

যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি সিরিজ হার

ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতেও হেরেছে বাংলাদেশ। এবারের হার ৬ রানে।

এর ফলে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ খেলতে নেমেই মার্কিনিরা পেল সিরিজ জয়ের স্বাদ।

মার্কিনিদের বিপক্ষে বাংলাদেশের লক্ষ্যটা ছিল ছোট। প্রতিপক্ষ রান যতই করুক না কেন টপ অর্ডার যেন ফিরিয়ে আনে পুরোনো গল্প। ইনিংসের প্রথম ওভারে গোল্ডেন ডাকের শিকার হয়ে ফেরেন ওপেনার সৌম্য সরকার। সৌরভ নেত্রালকরের করা ফুলার লেন্থের ডেলিভারিতে স্ট্রেইট ফরোয়ার্ড শটে বোলারের হাতে ক্যাচ তুলে দেন।

শুরুতে হোঁচট খাওয়া বাংলাদেশকে সামনের দিকে টেনে তোলার দায়িত্ব নেন ওপেনার তানজিদ তামিম ও অধিনায়ক শান্ত। জিম্বাবুয়ে সিরিজে ফর্মে থাকা তানজিদ আউট বোল্ড হয়ে। ১৫ বলে ১৯ রান করা তানজিদ শিকার হন জাসদ্বীপ সিংয়ের লেন্থে থাকা বলে।

পাওয়ার প্লেতে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় দুই উইকেটে ৪৩ রান। সেখান থেকে দলকে টেনে তোলার দায়িত্ব কাঁধে ওঠে অধিনায়ক শান্ত ও তাওহিদ হৃদয়ের। দু’জন মিলে গড়েন ৪৮ রানের জুটি। ধীরগতিতে এগিয়ে থিতু হয়ে হাত খোলার সময়ই পাননি তারা দুজন। ১৪ রানের ব্যবধানে ফেরেন তারা দুজন।

হৃদয়ের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে রানআউট হন শান্ত। ফেরার আগে ৩৪ বলে করেন ৩৬ রান। ১৪ বল পর হৃদয় হন লেগ বিফোরের শিকার। ২১ বলে ২৫ করা হৃদয়কে ফেরান কোরি অ্যান্ডারসন।

৯২ রানে ৪ উইকেট হারানো বাংলাদেশকে জয়ের দিকে নেওয়ার সুযোগ ছিল দুই অভিজ্ঞ সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সামনে। দলীয় ১০৬ রানের মাথায় বড় শটের আশায় সামনে এগিয়ে এসে পেসার শ্যাডলি ফন স্কাইকয়কের বলে বোল্ড হন রিয়াদ (৩)। তার পথ ধরে পর পর দুই বলে ফেরেন সাকিব (৩০) ও জাকের আলী অনিক (৩)।

তাদের বিদায়ের পর বাংলাদেশের জন্য হার হয়ে উঠেছিল সময়ের ব্যাপারমাত্র। শেষ পর্যন্ত তিন বল হাতে রেখে অলআউট হয় ১৩৮ রানে। যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে আলী খান ২৫ রানে নেন তিন উইকেট।

এর আগে আঁটসাঁট বোলিংয়ে যুক্তরাষ্ট্রকে আটকে দেওয়া বাংলাদেশ বোলিংয়ের শুরুতে সাফল্য পেয়েছে ইনিংসের ৭ম ওভারে। এর আগে প্রথম ম্যাচ জয়ের আত্মবিশ্বাসে ব্যাট চালানো যুক্তরাষ্ট্রের দুই ওপেনার স্কোরবোর্ডে তোলেন ৪৪ রান। পরপর দুই বলে ওপেনার স্টিভেন টেইলর ও তিনে নামা আন্দ্রিস হাউসকে ফিরিয়ে টাইগার শিবিরে স্বস্তি ফেরান রিশাদ হোসেন।

দ্রুত দুই উইকেট হারিয়ে মার্কিনিরা ভেঙে পড়েনি। অ্যারন জোন্স ও অধিনায়ক মোনাঙ্ক প্যাটেলের ৬০ রানের জুটিতে ঘুরে দাঁড়ায়। ৩৪ বলে ৩৫ রান করা জোন্সকে ফেরান বাঁহাতি পেসার মোস্তাফিজুর রহমান। পরে তার শিকার ছিলেন প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ঝড় তোলা হারমিত সিংকে। তাতে মোস্তাফিজের বোলিং ফিগার দাঁড়ায় ৪ ওভারে ৩১ রানে দুই উইকেট।

অন্যদিকে ৩৮ বলে ৪১ রান করা মোনাঙ্ককে ফেরান শরিফুল ইসলাম। ব্যাট হাতে ঝড় তোলার ইঙ্গিত দেওয়া অ্যান্ডারসনকেও ফেরান তিনি।

নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৪৪ রানে থামে যুক্তরাষ্ট্রের ইনিংস। বাংলাদেশের হয়ে রিশাদ, মোস্তাফিজ ও শরিফুল নেন দুইটি করে উইকেট।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত