সিলেটটুডে ডেস্ক

১০ জুন, ২০২৪ ১১:০৩

সোপানের ‘মধুকবি’ স্মরণ

বাংলা সাহিত্যের ধ্রুপদী নক্ষত্র ঊনবিংশ শতাব্দীর বিশিষ্ট বাঙালি কবি ও আধুনিক নাট্যকার মাইকেল মধুসূদন দত্তের দ্বিশত জন্মবর্ষ উপলক্ষে “মধুকবি” স্মরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে সোপান, শিশুদের সংস্কৃতি বিকাশ কেন্দ্র।

গতকাল বিকেল সাড়ে পাঁচটায় মিরাবাজারস্থ সোপান হল রুমে সোপান পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মুক্তিযুদ্ধ গবেষক অপূর্ব শর্মার সভাপতিত্বে ও সোপানের আবৃত্তি বিভাগের সিনিয়র শিক্ষক, আবৃত্তিকার শতাক্ষী চক্রবর্তী কৃষ্টির সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কবি নামব্রম শংকর, সোপান পরিচালনা পর্ষদের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বনাথ সরকারি কলেজের অবসর প্রাপ্ত অধ্যক্ষ তাপসী চক্রবর্তী লিপি এবং কবি সন্তোষ রঞ্জন পাল।

আলোচনায় বক্তারা বলেন, বাংলা সাহিত্যের নব জাগরণের কবি মাইকেল মধুসূদন দত্ত। ১৮৮৪ সালের ২৪ জানুয়ারি যশোহর জেলার এক সম্ভ্রান্ত জমিদার পরিবারে তার জন্ম। তিনি ছিলেন তৎকালীন সমাজের রক্ষণশীলতার বিরুদ্ধে প্রগতির পদাতিক। তবে এর জন্য তাকে অনেক বেগ পেতে হয়েছে। যৌবনে পাশ্চাত্য সাহিত্যের দুর্নিবার আকর্ষণে তিনি বিদেশে পাড়ি দেন ও ইংরেজি ভাষায় সাহিত্য রচনায় মনোনিবেশ করেন। জীবনের দ্বিতীয় পর্বে মধুসূদন আকৃষ্ট হন মাতৃভাষার প্রতি। এই সময়ে তিনি বাংলায় কবিতা, নাটক, প্রহসন ও কাব্য রচনা করেন। বাংলা সাহিত্যে অমিত্রাক্ষর ছন্দ ও সনেটের তিনিই প্রবক্তা। বাংলা সাহিত্যে “মেঘনাদবধ” মহাকাব্য তাঁরই রচনা। যা বাংলা সাহিত্যকে আরও সমৃদ্ধ করেছে।

আলোচনা পর্ব শুরুর আগে দেশাত্মবোধক গানে দেশ সেরার পুরস্কারপ্রাপ্ত শিল্পী অর্পিতা তালুকদার মাইকেল মধুসুধন দত্তের গান পরিবেশন করেন। এছাড়াও সোপানের আবৃত্তি বিভাগের শিক্ষক নিবেদিতা পাল মধুকবির কবিতা পাঠ করেন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সোপানের শ্যামল চন্দ্র দে, অর্পনা সিনহা, সুজিত তালুকদার, সুমিতা চৌধুরী, সাবিনা ইয়াসমিন স্মৃতি, অর্চনা রানী তালুকদার, দোলন চৌধুরী, হরিপদ গোস্বামী, পুষ্পিতা তালুকদার, সুষ্মিতা তালুকদার প্রমুখ।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত