বুধবার, ২২ মে ২০১৯ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

০১ এপ্রিল, ২০১৯ ২৩:৪৮

সিলেট-ঢাকা-বার্মিংহাম সেতুবন্ধন তৈরিতে নাট্যকর্মীদের নিয়ে আনন্দ আয়োজন

সিলেটের সাথে অন্যান্য ক্ষেত্রে বিভিন্ন দেশের যোগাযোগ অব্যাহত থাকলেও নাটকের দিক দিয়ে যোগাযোগ ছিল অত্যন্ত দূর্বল। নাট্যচর্চাসহ সিলেটের সমৃদ্ধ সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য তুলে ধরতে এবার সিলেট-ঢাকা-বার্মিংহাম সংস্কৃতি বিনিময় ও সংস্কৃতি চর্চার উন্নয়নে কাজ শুরু করেছে আর্টস কাউন্সিল ইংল্যান্ড, ব্রিটিশ কাউন্সিল। ট্রান্সফর্মিং ন্যারেটিভস’র মাধ্যমে স্বীকৃত হবে নতুন দিগন্ত।

পূর্বনাট ও সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেটের আয়োজনে সিলেটের নাট্যকর্মীদের নিয়ে এক প্রাণবন্ত অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট নাট্যকার ও সংগঠক মুরাদ খান এবং বিশিষ্ট নাট্য নির্দেশক সুদীপ চক্রবর্তী এ আয়োজনের মধ্যমণি ছিলেন। বর্তমানে ইংল্যান্ড প্রবাসী বৃহত্তর সিলেটের এই দুই কৃতি সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব খোলামেলা ও মুক্ত আলোচনায় তুলে ধরেন সিলেট-ঢাকা-বার্মিংহাম নতুন সাংস্কৃতিক সম্পর্ক উন্নয়নের বিভিন্ন দিক। তাদের আলোচনার মাধ্যমে উঠে এসেছে সিলেটের সমৃদ্ধে সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে বিশ্ব পরিমন্ডলে তুলে ধরার সুযোগ। একই সাথে সিলেটের নাট্য উন্নয়নে ব্রিটিশ কাউন্সিল, আর্টস্ কাউন্সিল ইংল্যান্ড ও পূর্বনাট কিভাবে সহযোগিতা করতে পারে তা মুক্ত আলোচনায় স্থান পায়। সিলেটের নাটক ও অন্যান্য সাংস্কৃতিক মাধ্যমকে ইংল্যান্ডে যথাযথভাবে উপস্থাপনের সুযোগ তৈরিতে কাজ করবে পূর্বনাট।

সোমবার সারদাহল সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেটের মহড়াকক্ষে বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে ৬টা পর্যন্ত এই আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন সম্মিলিত নাট্য পরিষদের প্রাক্তন প্রধান পরিচালক বীর মুক্তিযোদ্ধা নিজামউদ্দিন লস্কর, প্রাক্তন পরিচালক বীর মুক্তিযোদ্ধা ভবতোষ রায় বর্মণ, সম্মিলিত নাট্য পরিষদের প্রধান পরিচালক অরিন্দম দত্ত চন্দন, প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম মুকুল, নাট্য পরিষদের সভাপতি মিশফাক আহমেদ চৌধুরী মিশু ও সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্ত। ব্যতিক্রমী এ আয়োজনে অংশ নেন সিলেটের বিভিন্ন নাট্যদলের প্রায় ৮০জন অংশগ্রহণকারী।

নাট্যকার মুরাদ খান ও সুদীপ চক্রবর্তী সিলেটের নাট্যকর্মীদের বিভিন্ন প্রশ্নের সরাসরি উত্তর দেন এবং সাংস্কৃতিক চর্চার ক্ষেত্রে তাদের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক সহযোগিতার কথা জানান। সিলেটের নাট্যকর্মীদের অনুরোধে আগামীতে নাট্যকার মুরাদ খানের রচনায় ও নির্দেশক সুদীপ চক্রবর্তীর নির্দেশনায় সিলেটের নাট্যকর্মীদের নিয়ে সম্মিলিত নাট্য পরিষদের আয়োজনে যেকোন ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপটকে সামনে রেখে একটি নাটক নির্মাণের প্রস্তাব অনুষ্ঠানে গৃহিত হয়। নাট্যকর্মীদের অংশগ্রহণে ব্যতিক্রমী এই আয়োজনের মধ্য দিয়ে সিলেটের নাট্যচর্চা ও এর প্রসার আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে ভবিষ্যতে অবদান রাখবে বলে সকলেই প্রত্যাশা রাখেন।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত