আজ শনিবার, , ২৩ জুন ২০১৮ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

০৭ মে, ২০১৮ ১৯:১৭

ওসমানী মেমোরিয়াল ট্রাস্টের উদ্যোগে দয়ামীরে ২৩ লক্ষ টাকার বৃত্তি বিতরণ

বঙ্গবীর জেনারেল এমএজি ওসমানী মেমোরিয়াল ট্রাস্ট ঢাকা এর উদ্যোগে স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মধ্যে ২৩ লক্ষ টাকার বৃত্তি বিতরণ করা হয়েছে।

সোমবার (৭ মে) ওসমানীনগর থানার দয়ামীরের সদরুন্নেসা উচ্চ বিদ্যালয়ের ওসমানী অডিটোরিয়ামে এ উপলক্ষে একটি অনুষ্ঠান বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও বঙ্গবীর জেনারেল এমএজি ওসমানী মেমোরিয়াল ট্রাস্টের ট্রাস্টি রোটারিয়ান ইয়াকুতুল গণি ওসমানীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার সিলেট বিভাগের পরিচালক মো. মতিউর রহমান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ওসমানীনগর থানার উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আনিছুর রহমান, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. নজরুল হাকিম, বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী রোটারিয়ান মো. আনহার শিকদার।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্থানীয় সরকার সিলেট বিভাগের পরিচালক মো. মতিউর রহমান বলেন, বঙ্গবীর জেনারেল এমএজি ওসমানী একজন আদর্শবান ব্যক্তি ছিলেন। তাঁর মেধা, যোগ্যতা এবং সুদূরপ্রসারী চিন্তা ভাবনা এবং কর্মদক্ষতার মাধ্যমে বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনে অসামান্য অবদান রেখেছেন। সারাজীবন তিনি মানুষের কল্যাণে কাজ করেছেন। তাঁর জীবনী অনুসরণ করে শিক্ষার্থীদেরকে দেশের জন্য সুযোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে ভালোভাবে লেখাপড়া করতে হবে। আজকের এই বৃত্তিপ্রাপ্তিকে জীবনে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার ক্ষেত্রে অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজে লাগাতে হবে।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সদরুন্নেসা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. দুলাল মিয়া। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. আনেয়ারুল ইসলাম। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী মুফিদুল ইসলাম এবং সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের আনুষ্ঠানিক সূচনা হয়।

এছাড়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি স্থানীয় সরকার সিলেট বিভাগের পরিচালক মো. মতিউর রহমান বঙ্গবীর জেনারেল এম এ জি ওসমানীর ওপর নির্মিত ৪০ মিনিটের একটি ডকুমেন্টারি প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন। পরে প্রজেক্টের মাধ্যমে ডকুমেন্টারি প্রদর্শন করা হলে অতিথিবৃন্দ সহ অনুষ্ঠানের অন্যান্যরা তা উপভোগ করেন। পরে প্রধান অতিথি এবং অন্যান্য অতিথিবৃন্দ স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত ১২৫ জন গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থীর হাতে ২৩ লক্ষ টাকার চেক প্রদান করেন।

অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে সম্মানিত অতিথিবৃন্দকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অতিথিবৃন্দকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের দাতা সদস্য আব্দুর রব, সাধারণ অভিভাবক সদস্য আব্দুস শহীদ, মকবুল আলী, হাজী মো. ছুরাব আলী হাসান, আব্দুল্লাহ মিছবাহ, শিক্ষানুরাগী সদস্য কাজী মো. ছাদ উদ্দিন, সংরক্ষিত অভিভাবক সদস্য জবা চৌধুরী সহ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক এবং এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ওসমানীনগর থানার উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আনিছুর রহমান বলেন, বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদেরকে এই বৃত্তিপ্রাপ্তির মাধ্যমে অনুপ্রেরণা লাভ করতে হবে। নিজেদেরকে আরো বেশি যোগ্য করে গড়ে তুলতে হবে। নেতৃত্বের গুণাবলীকে বিকশিত লক্ষ্যে সহপাঠক্রমিক কার্যাবলী সহ গঠনমূলক কাজে অংশগ্রহণ করার কোনো বিকল্প নেই।

শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. নজরুল হাকিম বলেন, বঙ্গবীর জেনারেল ওসমানী সমগ্র জাতির সম্পদ। তাঁর মহানুভবতা, চিন্তা, কর্মদক্ষতা, মানুষের প্রতি ভালোবাসা আমাদের জন্য অনুকরণীয়। তাঁর জীবন থেকে প্রেরণা লাভ করে শিক্ষার্থীদেরকে তাঁর মত দেশের জন্য গড়ে তুলতে হবে।

শিক্ষানুরাগী রোটারিয়ান মো. আনহার শিকদার বলেন, জীবনে কিভাবে বড় হতে হয়, তা দেখিয়ে দিয়ে গেছেন বঙ্গবীর জেনারেল এম এ জি ওসমানী। মেধা ও যোগ্যতার মাধ্যমে বাঙ্গালী জাতির এক কিংবদন্তি পুরুষ হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন।

সভাপতির বক্তব্যে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি রোটারিয়ান ইয়াকুতুল গণি ওসমানী বলেন, বঙ্গবীর জেনারেল এম এ জি ওসমানী মেমোরিয়াল ট্রাস্টের উদ্যোগে ১২৫ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ২৩ লক্ষ টাকার বৃত্তি বিতরণ করা হচ্ছে। শিক্ষার্থীদেরকে এই টাকাকে শিক্ষার কাজে ব্যবহার করে নিজেদেরকে গড়ে তুলতে হবে। ভালো ফলাফল অর্জন এবং ভালো মানুষ হিসেবে নিজেদেরকে প্রতিষ্ঠা করতে পারলেই সকলের প্রচেষ্টা সার্থক হবে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত