বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং

স্পোর্টস ডেস্ক

০৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৪:০৬

জিততে রেকর্ড করতে হবে বাংলাদেশকে

চতুর্থ দিনে আফগানরা যখন অলআউট হয় তখন বাংলাদেশের সামনে ৩৯৮ রানের বিশাল লক্ষ্য। এই লক্ষ্য ছুঁতে অভাবনীয় কিছু করতে হবে, রেকর্ড গড়তে হবে বাংলাদেশকে। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ব্যাটিং এই রেকর্ডের সপক্ষে বলছে না যদিও তবু আশা ক্রিকেট অনিশ্চয়তার এক খেলা। এই অনিশ্চয়তাকে সঙ্গী করে বাংলাদেশ কি এগুতে পারবে? প্রশ্ন!

রোববার চতুর্থ দিনে বৃষ্টির কারণে খেলা সোয়া দুই ঘণ্টা দেরিতে শুরু হওয়ার পর আফগানিস্তান দ্বিতীয় ইনিংসে অলআউট হয়েছে ২৬০ রানে। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশকে ২০৫ রানে গুটিয়ে দিয়ে আফগানদের লিড ছিল ১৩৭ রানের।

টেস্টে আগে কখনোই ২১৫ রানের বেশি তাড়া করে জেতেনি বাংলাদেশ। জিততে হলে এবার তাই আগের রেকর্ডকে পেছনে ফেলতে হবে দ্বিগুনের কাছাকাছি ব্যবধানে। টেস্ট ক্রিকেটের ১৪২ বছরের ইতিহাসে ৩৯৮ রানের বেশি তাড়া করে জয়ের কীর্তি আছে মাত্র ৪টি।

দ্বিতীয় ইনিংসে ৮ উইকেটে ২৩৭ রান নিয়ে খেলা শুরু করা আফগানরা চতুর্থ দিনে খেলতে পারে ৬.৩ ওভার। যোগ করে আর ২৩ রান।

৩৪ রানে দিন শুরু করা কিপার-ব্যাটসম্যান আফসার জাজাই অপরাজিত থেকে যান ৪৮ রান।

শেষ দুই জুটির প্রথমটি ইয়ামিন আহমাদজাইয়ের রান আউট। আর জহির খানকে ফিরিয়ে শেষ উইকেটটি নেন মেহেদী হাসান মিরাজ।

এ টেস্টের ভেন্যু জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের পরিসংখ্যানে। এ মাঠে চতুর্থ ইনিংসে সর্বোচ্চ ৩৩১ রান তুলতে পেরেছে বাংলাদেশ। এ মাঠে এটি যেকোনো দলের চতুর্থ ইনিংসে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড। ২০১০ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সে টেস্টে ৫১৩ রান তাড়া করতে নেমে হেরেছিল বাংলাদেশ। আর এ মাঠে চতুর্থ ইনিংসে সর্বোচ্চ ৩১৭ রান তাড়া করে জিতেছে নিউজিল্যান্ড। এটি বাংলাদেশের মাটিতে চতুর্থ ইনিংসে যেকোনো দলের সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ডও। কিন্তু আফগানিস্তান দিয়েছে চার শ রান ছুঁই ছুঁই লক্ষ্য। অর্থাৎ জিততে হলে ঘরের মাঠে চতুর্থ ইনিংসে সর্বোচ্চ রান তাড়া করার নজিরই গড়তে হবে সাকিবদের।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত