COVID-19
CORONAVIRUS
OUTBREAK

Bangladesh

Worldwide

61

Confirmed Cases,
Bangladesh

06

Deaths in
Bangladesh

26

Total
Recovered

1,081,287

Worldwide
Cases

58,136

Deaths
Worldwide

227,734

Total
Recovered

Source : IEDCR

Source : worldometers.info

নিজস্ব প্রতিবেদক

০৭ ফেব্রুয়ারি , ২০২০ ২১:৪৩

নগরনাটের ‘বাইচাল’ মঞ্চস্থ

নাট্য প্রদর্শনীতে শনিবারের নাটক ‘হট্টমালার ওপারে’

সিলেটের সাংস্কৃতিক আন্দোলনের অন্যতম চালিকা শক্তি সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেট আয়োজিত মহান একুশের আলোকে নাট্য প্রদর্শনীর ৭ম দিনে  মঞ্চস্থ হয়েছে নগরনাটের ‘বাইচাল’ নাটকটি। গোলাম সফিকের রচনায় ও অর্ধেন্দু দাসের নির্দেশনায় ১৭ দিনব্যাপী নাট্য প্রদর্শনীর সপ্তম দিন পরিবেশনাটি উপস্থাপন করে সিলেটের প্রতিশ্রুতিশীল নাট্য সংগঠন নগরনাট।

সিলেটে এ যাবৎ কালের সর্ববৃহৎ এই নাট্য প্রদর্শনীতে শুক্রবার বন্ধের দিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে নাট্যামোদী দর্শকের উপস্থিতিতে অডিটোরিয়াম প্রাঙ্গণ উৎসব মুখর হয়ে উঠে। নাটকটি মূলত গ্রামবাংলার  ইতিহাস ও ঐতিহ্য নৌকাবাইচকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে। সে সাথে আবহমান বাংলার পৌষ সংক্রান্তি ও দেবী মনসা পূজাকেও নাটকটির মধ্যে দিয়ে তুলে ধরা হয়েছে।

নাটকটির প্রদর্শনী শুরু সন্ধ্যা ৭টায় হলেও তা উপভোগ করার জন্য সন্ধ্যা ৬টা বাজার আগে থেকেই রিকাবিবাজারস্থ কবি নজরুল অডিটোরিয়াম চত্বরে ভিড় জমায় সিলেটের নাট্যপ্রেমী মানুষেরা। সময়ের সাথে সাথে বাড়তে থাকে মানুষের ভিড়ও। সন্ধ্যা ৭টা বাজার ১০ মিনিট আগে দর্শকদের জন্য খুলে দেয়া হয় অডিটোরিয়ামে মূল ফটক। আর ৭ টা বাজতেই বেজে ওঠে নাটকটি প্রদর্শনী শুরুর ঘণ্টা।

‘বাইচাল’ নাটকে ফুটে উঠে বাংলার ঐতিহ্যের একটি বড় অংশ জুড়ে থাকা নৌকা বাইচ। যার সাথে বাঙালী মাত্রই একটা যোগসূত্র স্থাপিত হয়ে যায়। বিশেষত ভাটি বাংলার মানুষের জীবনযাত্রা নৌকা বাইচ ছাড়া পূর্ণতা পায় না। তাই নৌকা বাইচ নিয়ে ভাটি অঞ্চলে জন্ম নিয়েছে বেশ মিথ ও লোকগাথা। এরকম একটি লোকগাথা অনুসারে ভাটি অঞ্চলের নৌকা বাইচের উৎপত্তি ও মোগল আমলের ভাটি অঞ্চলের ইতিহাসের সাথে যোগসাজশ নিয়েই ‘বাইচাল’ নাটকের শুরু। এই নাটকে প্রতিনিধিশীল চরিত্র প্রদোষ মাস্টার, দুলাল চেয়ারম্যান ও মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার কফিল উদ্দিনের নৌকা বাইচকে টিকেয়ে রাখার আকুলতা আছে। আছে ভাটি বাংলার শাসত অসাম্প্রদায়িক গ্রামীণ জীবন।

নাটকের বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয়ে করেন মোজাম্মিল হোসাইন, অনির্বাণ রায়, পিয়াস খান, জয়া হোসাইন, রনি ভূষণ দাস, রাজন পাল, সপ্তর্ষি দাস, জ্যোতি প্রকাশ দাস তালুকদার, দিবপ্রিয়া পাল, রায়হান চৌধুরী সৈকত, উজ্জ্বল চক্রবর্তী, হৃদয় মজুমদার অপু, শ্যামলী দাস ও রূপালী দাস।

নাটক শেষে নাট্য দলের হাতে ফুল ও স্মারক তুলে দেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মোসাদ্দেক হোসেন বাবলু, মেট্রোপলিটন পুলিশের কর্মকর্তা কামরুল আমিন।

নাট্য পরিষদের পক্ষ থেকে ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন (ইমজা)’র নব নির্বাচিত সভাপতি মাহবুবুর রহমান রিপন ও সাধারণ সম্পাদক সজল ছত্রীকে নাটক মঞ্চায়ন শেষে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। এ সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সভাপতি মিশফাক আহমেদ চৌধুরী মিশু ও সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্ত ও  নির্বাহী সদস্য ফারজানা সুমী।
 
এদিকে শনিবার নাট্যোৎসবের অষ্টম দিনে দর্পণ থিয়েটার মঞ্চায়ন করবে ‘হট্ট মালার ওপারে’ নাটক। আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রতিদিন সন্ধ্যা ৭টায় রিকাবীবাজার কবি নজরুল অডিটোরিয়াম মঞ্চে নাটক মঞ্চায়িত হবে। নাটকের প্রবেশপত্র হল কাউন্টারে বিকেল ৫টা থেকে পাওয়া যাবে। নাট্য প্রদর্শনীতে সহযোগিতা করছে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়, সিলেট সিটি করপোরেশন ও জেলা পরিষদ, সিলেট।

প্রসঙ্গত, ১৬টি নাট্য দলের অংশ গ্রহণে ১লা ফেব্রুয়ারি থেকে রিকাবীবাজার কবি নজরুল অডিটোরিয়ামে শুরু হয় একুশে আলোকে নাট্য প্রদর্শনী।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত