স্পোর্টস ডেস্ক

২৩ জুন, ২০২৪ ১৪:২৩

বাংলাদেশের পর আফগানিস্তানের বিপক্ষেও কামিন্সের হ্যাটট্রিক

আগের ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার ফাস্ট বোলার প্যাট কামিন্স। পরের ম্যাচেও একই কীর্তি গড়লেন এই অজি ক্রিকেটার। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এই কীর্তি এবারই প্রথম, ক্রিকেটের সংক্ষিপ্তম এই ভার্সনেও।

এবার আফগানিস্তানের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করেছেন প্যাট কামিন্স। আগের ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে জিতলেও কামিন্সের এই হ্যাটট্রিক জেতাতে পারেনি অস্ট্রেলিয়াকে।

হ্যাটট্রিক সত্ত্বেও ম্যাচ হার অস্ট্রেলিয়ার। এটা নতুন ঘটনা না হলেও আফগানিস্তানের কাছে অস্ট্রেলিয়ার হারটা আলোচনার বিষয়। এতে অবশ্য জমে ওঠেছে এই গ্রুপ। গ্রুপের শেষ দিনের ম্যাচ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হচ্ছে তাই, ভারতের সঙ্গে কে যাচ্ছে সেমিফাইনালে।

কামিন্সের কীর্তির শুরুটা হয়েছিল ইনিংসের ১৮তম ওভারের শেষ বলে। কামিন্স প্রথমে ফেরালেন রশিদ খানকে। ২০তম ওভারে আক্রমণে এলেন আবারও। এবার শুরুর দুই বলে তিনি আউট করেন করিম জানাত ও গুলবদিন নাইবকে। তাতেই গড়া হয়ে যায় রেকর্ডটা। প্রথম বোলার হিসেবে টানা দুই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ম্যাচে হ্যাটট্রিক করে বসেন তিনি।

আরও একটা রেকর্ড হতে হতেও হয়নি। টি-টোয়েন্টিতে চার বলে চার উইকেটের রেকর্ড গড়া আছে স্রেফ লাসিথ মালিঙ্গা, টিম সাউদি, মার্ক পাবলোবিচ, ওয়াসিম আব্বাসের। সে সুযোগটা গড়েওছিলেন কামিন্স। তবে ২০তম ওভারের তৃতীয় বলে নানগায়াল খারোতির ক্যাচটা ছেড়ে বসেন ডেভিড ওয়ার্নার। না হলে পঞ্চম বোলার হিসেবে টানা চার উইকেটের কীর্তিটাও গড়ে ফেলতেন।

তবে তা না হোক, জোড়া হ্যাটট্রিকের কীর্তিটা তো আছে। যদিও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট এর আগেও দেখেছে এই ঘটনা। ১৯৯৯ সালে ওয়াসিম আকরাম এই কীর্তি গড়েছিলেন টেস্টে, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টানা দুই টেস্টে করেছিলেন হ্যাটট্রিক। এবার টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এই কীর্তি গড়ে দেখালেন কামিন্স।

যদিও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দুই হ্যাটট্রিক আছে মালিঙ্গার। তবে সেটা টানা দুই ম্যাচেও ছিল না।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত