COVID-19
CORONAVIRUS
OUTBREAK

Bangladesh

Worldwide

56

Confirmed Cases,
Bangladesh

06

Deaths in
Bangladesh

25

Total
Recovered

1,004,533

Worldwide
Cases

51,563

Deaths
Worldwide

210,519

Total
Recovered

Source : IEDCR

Source : worldometers.info

স্পোর্টস ডেস্ক

১০ জুলাই, ২০১৯ ০২:৪১

রিজার্ভ ডে’তে গড়ালো ভারত-নিউজিল্যান্ডের সেমিফাইনাল

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আগেই ছিলো মুষলধারে বৃষ্টির আশঙ্কা। ভয় ছিলো হয়তো ম্যাচ শুরুই করা যাবে না। তা হয়নি। যথাসময়ে ম্যাচ শুরু হয়েছিল ঠিকই কিন্তু বৃষ্টি হানা দিতে ভুল করেনি একটুও।

টস জিতে ব্যাট করতে নামা নিউজিল্যান্ড ইনিংসের ৪৭তম ওভারেই নেমেছে বৃষ্টি। যে কারণে বন্ধ হয়ে যায় প্রথম সেমিফাইনালের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচটি। তবে রিজার্ভ ডে থাকায় আয়োজকদের মনে চিন্তা ছিলো খানিক।

তবু শেষমূহূর্ত পর্যন্ত অপেক্ষা করা হয়েছিল আজকেই (মঙ্গলবার) ম্যাচটি শেষ করার। কিন্তু কোনোভাবেই তা সম্ভব হলো না। ফলে স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬.২০ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় রাত ১১টা ২০) আজকের খেলা স্থগিত করার ঘোষণা দেয়া হয়।

যার ফলে আগামীকাল (বুধবার) আবার মাঠে গড়াবে ম্যাচটি। স্থানীয় সময় সকাল ১০টা ৩০ মিনিটে শুরু হওয়া ম্যাচে নতুন করে খেলা হবে না। বরং আজ শেষ হওয়া অবস্থা থেকেই শুরু হবে কাল। অর্থাৎ নিজেদের ইনিংসের বাকি থাকা ২৩ বল খেলতে নামবে নিউজিল্যান্ড।

এরপর পুরো ৫০ ওভার ব্যাট করবে ভারত। তাড়া করবে নিউজিল্যান্ডের করা রান। নতুবা আজ খেলা শুরু হলে ২০ ওভারে ১৪৮ রানের সংগ্রহের পেছনে ছুটতে হতো তাদের। যা কি-না বৃষ্টিভেজা কন্ডিশনে কঠিন এক চ্যালেঞ্জই হতো।

বৃষ্টি আসার আগপর্যন্ত খেলা হয়েছে ৪৬.১ ওভার। এ সময় নিউজিল্যান্ডের রান ছিল ৫ উইকেট হারিয়ে ২১১। ৮৫ বলে ৬৭ রানে অপরাজিত রস টেলর। তার সঙ্গী ৪ বলে ৩ রান করা টম ল্যাথাম। ৯৬ বল খেলে ৬৭ রান করে আউট হন কেন উইলিয়ামসন। এছাড়া হেনরি নিকোলস আউট হন ৫১ বলে ২৮ রান করে।

বিশ্বকাপের শুরুতে দুর্দান্ত গতিতে এগিয়ে চলছিল তাদের জয়যাত্রা। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের ছন্দপতন ঘটতে শুরু করে পাকিস্তানের কাছে হারের পর। গ্রুপ পর্বের শেষ তিনটি ম্যাচ টানা হেরে গেলেও রানরেটের ব্যবধানে চতুর্থ হয়ে সেমিফাইনালে নাম লেখায় তারা।

সেমিতে ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে মুখোমুখি তারা ভারতের। টস জিতে স্কোরবোর্ডে একটা চ্যালেঞ্জিং স্কোর তোলার লক্ষ্যে শুরুতেই ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। কিন্তু ভারতীয় বোলারদের সামনে যে গতিতে রান তুলছে তারা, তাকে কচ্ছপ গতির সঙ্গে তুলনা করলেও যেন কম করা হবে।

শুরুতেই নিউজ্যিলান্ডের ব্যাটসম্যানদের চেপে ধরেন ভারতীয় বোলাররা। বিশেষ করে দুই ওপেনিং বোলার ভুবনেশ্বর কুমার আর জসপ্রিত বুমরাহ। কিউইরা রানের খাতাই খোলে প্রথম দুই ওভার মেডেন দিয়ে ইনিংসের ১৭তম বলে গিয়ে। তিন ওভার শেষে ১ রান।

চতুর্থ ওভারে গিয়ে জসপ্রিত বুমরাহর বলে ব্যাটের কানায় লাগিয়ে থার্ড স্লিপে ক্যাচ দেন মার্টিন গাপটিল। বিরাট কোহলির হাতে ধরা পড়ে বিদায় নেন গাপটিল। পুরো বিশ্বকাপেই (এক শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচ ছাড়া) ফ্লপ ছিলেন এই কিউই ওপেনার।

ভারতীয় বোলাররা শুরু থেকেই যেভাবে চাপের মুখে রেখেছিল কিউইদের, সেটা ধরে রাখলো তারা প্রায় শেষ পর্যন্ত। ইতিমধ্যে ৪০ ওভার পার হয়েছে। কিন্তু উইকেট ধরে রাখতে পারলেও রান তোলার গতি নিউজিল্যান্ডের একেবারেই মন্থর। সব মিলিয়ে ৪.৫৭ হারে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত