শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯ ইং

নাজমুল হোসেন

১৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২৩:০৩

তরুণরা স্পষ্টভাবে চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা জানতে চায়

জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে সব দলের আনুষ্ঠানিক ইশতেহার ঘোষণা চলছে। ইতোমধ্যে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টসহ বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক দল তাঁদের ইশতেহার ঘোষণা করেছে। আগামীকাল (মঙ্গলবার) ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ ও বিএনপি তাঁদের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করবে বলে জানা যায়।

আজ সোমবার (১৭ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন রাজধানীর হোটেল পূর্বাণীতে আনুষ্ঠানিকভাবে পুলিশ ও সেনাবাহিনী ছাড়া চাকরিতে প্রবেশের কোন বয়সসীমা না রাখাসহ মোট ১৪টি প্রতিশ্রুতি নিয়ে তাঁদের ইশতেহার ঘোষণা করেছেন।

তাঁদের এই ইশতেহারটি যুগোপযোগী ও সমৃদ্ধশালী দেশ ও উন্নয়নের অঙ্গীকার বহন করছে। বিশেষ করে তরুণদের দীর্ঘদিনের প্রাণের দাবি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসিমা বাড়ানো ও কোটার সঠিক সংস্কারের বিষয়টি স্পষ্ট হয়ে উঠে এসেছে।

তরুণরা বারবার শুনে আসছে সকল রাজনৈতিক দলগুলোই তাঁদের ইশতেহারে তরুণদের জন্য কল্যাণমুখী চিন্তার অংশ হিসেবে তাঁদের দাবি-দাওয়া গুলোকে আমলে নিবেন। ইতোমধ্যে বিভিন্ন সূত্রে শোনা যাচ্ছে, ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ তাঁদের ইশতেহারে চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বাড়ানোর বিষয়টি রাখবে।

কিন্তু সেই বয়সসীমা কতটুকু সেটা স্পষ্টই তরুণরা জানতে চায়! কিন্তু এবার তরুণদের দাবি চাকরিতে প্রবেশের কোন বয়সসীমা থাকবে না। আগামীকাল আনুষ্ঠানিকভাবে বড় দুই দল আওয়ামীলীগ ও বিএনপি’র চূড়ান্ত নির্বাচনী ইশতেহারে শিক্ষিত বেকার তরুণরা চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা না রাখা ও কোটার সঠিক সংস্কার করার প্রতিশ্রুতি নিয়ে তারা তাঁদের ইশতেহার ঘোষণা করবেন বলে এমনটাই তারা আশা করছেন।

তরুণ বান্ধব হয়ে সকল রাজনৈতিক দল যদি তরুণদের দাবিগুলোকে আমলে নিয়ে ইশতেহার ঘোষণা করেতে পারে তো বড় দুই দলও কি এমন ইশতেহার তৈরি করতে পারবে না?

  • নাজমুল হোসেন, প্রকৌশলী, লেখক ও প্রাবন্ধিক

আপনার মন্তব্য

আলোচিত