মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২০ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

২৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০৫

জানুয়ারিতে মুক্তিযোদ্ধাদের নতুন তালিকা

আগামী জানুয়ারি মাসেই মুক্তিযোদ্ধাদের নতুন তালিকা প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। তিনি বলেছেন, এ কারণে ওয়েবসাইটে থাকা পুরোনো তালিকা স্থগিত করা হবে। অমুক্তিযোদ্ধাদের নাম যাচাই-বাছাই করে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়েছে।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আরও বলেছেন, ১৪ হাজার মুক্তিযোদ্ধার জন্য ১৬ লাখ করে টাকা ব্যয়ে বাড়ি নির্মাণ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া এখন থেকে সরকার যত রাস্তা নির্মাণ ও সংস্কার করবে, সেগুলো মুক্তিযোদ্ধাদের নামে নামকরণ করা হবে।

যশোর সদর উপজেলার খাজুরায় শহীদ মিত্র ও মুক্তিবাহিনীর স্মৃতির উদ্দেশে নির্মিত ‘মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিসৌধ’ এবং মনিরামপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শনিবার মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

সমাবেশে মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, ‘“জয় বাংলা” আমাদের মুক্তিযুদ্ধের স্লোগান। আপনারা নিজ নিজ সন্তানকে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ভালোভাবে শিক্ষা দেন। তারা যদি “জিন্দাবাদের” স্লোগানে লিপ্ত হয়, তাহলে আমাদের আর ইজ্জত থাকবে না।’

মন্ত্রী আরও বলেন, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বর্তমান প্রজন্মকে জানাতে পাঠ্যসূচি এবং বিসিএসে তা অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ২ হাজার ৩০০ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন। প্রত্যেক মুক্তিযোদ্ধা আগামী মার্চের মধ্যে পরিচয়পত্র পাবেন।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ইছালী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ও এম এন মিত্র মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি এস এম আফজাল হোসেন। সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য, যশোর-৩ আসনের সাংসদ কাজী নাবিল আহমেদ, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার রাজেক আহমেদ প্রমুখ।

মনিরামপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মনিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আহসান উল্লাহ শরীফি। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মুক্তিযোদ্ধা খয়রাত হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী মাহমুদুল হাসান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নাজমা খানম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক হোসেন, যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম প্রমুখ।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত