রবিবার, , ১৮ নভেম্বর ২০১৮ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

০৪ মে, ২০১৮ ১৮:১৭

তাসফিয়া হত্যা: রোববার আদনান মির্জার রিমান্ড শুনানি

চট্টগ্রামে স্কুলছাত্রী তাসফিয়া আমিন হত্যা মামলার প্রধান আসামি আদনান মির্জাকে আদালতে হাজির করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ। আগামী রোববার রিমান্ড শুনানির দিন ধার্য করে আদনানকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয় আদালত।

বৃহস্পতিবার (৩ মে) চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবু সালেম মোহাম্মদ নোমান এ আদেশ দেন বলে নিশ্চিত করেছেন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (প্রসিকিউশন) নির্মলেন্দু বিকাশ

এর আগে দুপুরে তাসফিয়ার কথিত প্রেমিক আদনানসহ ছয়জনকে আসামি করে পতেঙ্গা থানায় মামলা দায়ের করেন নিহত কিশোরীর বাবা ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আমিন। মামলায় এটিকে পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড উল্লেখ করে  করা হয়।

পতেঙ্গা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আনোয়ার হোসেন জানান, মঙ্গলবার রাতে গোলপাহাড়ের মোড়ে অবস্থিত চায়না গ্রিল রেস্টুরেন্ট থেকে একটি ভিডিও ফুটেজ উদ্ধার করা হয়। ওই রেস্টুরেন্ট থেকে তাসফিয়া ও আদনানকে একসঙ্গে বের হতে দেখা যায়। ওই সময় আদনানকে বিল দিতেও দেখা যায়। ওই ভিডিও ফুটেজটি ঠিক কোন মুহূর্তের, তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

পুলিশ ও তাসফিয়ার পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, এক মাস আগে আদনান মির্জা নামে এক তরুণের সঙ্গে ফেসবুকে পরিচয় ও বন্ধুত্ব হয় তাসফিয়ার। এর সূত্র ধরেই আদনান মঙ্গলবার (১ মে) বিকেল পাঁচটায় বন্ধুত্বের মাসপূর্তি উদযাপনে চায়নিজ রেস্টুরেন্টে তাসফিয়াকে নিয়ে যায়।

বুধবার (২ মে) সকালে স্থানীয়রা খবর দিলে পুলিশ গিয়ে পতেঙ্গার ১৮ নম্বর ঘাটের পাশে কর্ণফুলী নদীর পাড় থেকে অজ্ঞাত পরিচয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে। পরে বিকালে পরিবারের লোকজন থানায় গিয়ে নিশ্চিত করে মরদেহটি তাসফিয়া আমিনের।

সেই রাতেই পুলিশ অভিযুক্ত আদনানকে নগরীর খুলশী এলাকা থেকে আটক করে।

তাসফিয়া আমিনদের গ্রামের বাড়ি কক্সবাজারের টেকনাফের ডেইল পাড়া এলাকায়। তার পরিবার নগরীর ওআর নিজাম আবাসিক এলাকার তিন নম্বর সড়কের কে আর এস ভবনে থাকে।

আটক আদনান মির্জা বাংলাদেশ ‍এলিমেন্টারি স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্র। সে ব্যবসায়ী ইস্কান্দার মির্জার ছেলে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত