মঙ্গলবার, , ২০ নভেম্বর ২০১৮ ইং

বইমেলার ডায়েরি-১৯

 প্রকাশিত: ২০১৮-০২-২১ ১৬:২৭:২৪

রেজা ঘটক:

মঙ্গলবার ছিল অমর একুশে বইমেলার বিংশদশতম দিন। বইমেলায় উপস্থিতি বেশ ভালোই ছিল। বইমেলা শুরু হয়েছিল বিকাল তিনটায় আর যথারীতি শেষ হয়েছে রাত নয়টায়। বইমেলায় অনেক পুরানো বন্ধুদের সাথে দেখা হলো, আড্ডা হলো।

মঙ্গলবার শ্রাবণ প্রকাশনী থেকে প্রকাশ পেয়েছে বিশিষ্ট সাংবাদিক আবু সাঈদ খানের মুক্তিযুদ্ধের বই 'ফিরে দেখা একাত্তর'। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন শিল্পী রবীন আহসান। বাতিঘর থেকে প্রকাশ পেয়েছে কথাসাহিত্যিক হরিশংকর জলদাসের অণুগল্পের বই 'ছোটো ছোটো গল্প'। বইটির মূল্য ১৫০ টাকা। সরোবর পাবলিকেশন্স থেকে প্রকাশ পেয়েছে আকন আবু বকরের উপন্যাস 'তিমির রাতের তারা'। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন শিল্পী মোস্তাফিজ কারিগর। বইটির মূল্য ৩০০ টাকা।

অমর একুশে বইমেলায় সবচেয়ে ক্ষুদে লেখক অলীন বাসার। এবারের বইমেলায় অলীন বাসারের দুটি বই প্রকাশ পেয়েছে। জ্ঞান বিতান প্রকাশনী থেকে “ভূতের টিউশনি”। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন শিল্পী শিরীন আক্তার। বইটির মূল্য ১৬০ টাকা। আর ঘাসফড়িং প্রকাশনী থেকে “পালোয়ানের হার”। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন শিল্পী প্রদীপ ভঞ্জন। বইটির মূল্য ১৬০ টাকা।

অলীনের এ পর্যন্ত মোট পাঁচটি বই প্রকাশ পেয়েছে। ১. ভুতের ছায়া— প্রকাশক- সাঁকোবাড়ি -২০১৫। ২. ভুতুড়ে— প্রকাশক- সাঁকোবাড়ি -২০১৬। ৩. ভুতুম— প্রকাশক- সাঁকোবাড়ি -২০১৭। ৪. পালোয়ানের হার-প্রকাশক- ঘাসফড়িং—২০১৮ ও ৫. ভুতের টিউশনি—প্রকাশক জ্ঞান বিতান প্রকাশনী—২০১৮। অলীন বাসার আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র।

বিদ্যাপ্রকাশ থেকে প্রকাশ পেয়েছে খায়রুল আনামের উপন্যাস 'নায়না অব পেনসিলভেনিয়া'। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন শিল্পী রাগীব হাসান। প্রতিভা প্রকাশ থেকে প্রকাশ পেয়েছে কবি শামসুদ্দিন হিরার কাব্যগ্রন্থ 'প্রেমদ্রোহের কাব্য'। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন শিল্পী সুনীল কুমার পথিক। পরিবার পাবলিকেশন্স থেকে প্রকাশ পেয়েছে নাহিদা আশরাফি'র কাব্যগ্রন্থ 'প্রেম নিয়ে পাখিরা যা ভাবে' ও মুক্তিযুদ্ধের গল্প সংকলন 'মুক্তির গল্পে ওরা এগারোজন'। বই দুটোর প্রচ্ছদ করেছেন যথাক্রমে শিল্পী পিপীলিকা ও শিল্পী মোস্তাফিজ কারিগর।

এ বছর পিয়াস মজিদের ছয়টি বই প্রকাশ পেয়েছে। পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স থেকে কবিতার বই 'নাচ, মারবেল ও গোধূলি', ঐতিহ্য থেকে কবিতার বই 'ছোটকবিতা', সময় প্রকাশন থেকে স্মৃতিগদ্যের বই 'স্মৃতিপাখির ওড়াউড়ি', আলোঘর প্রকাশনী থেকে রবীন্দ্রনাথ বিষয়ক বই 'আমার রবি আমার ইন্দ্র', অন্যপ্রকাশ থেকে প্রবন্ধের বই 'রুশ বিপ্লবের শতবর্ষ ও অন্যান্য গদ্য' ও ছায়াবীথি থেকে প্রবন্ধের বই 'পড়ার টেবিল থেকে'।

মহাকাল প্রকাশনী থেকে প্রকাশ পেয়েছে রোদেলা নীলার ভ্রমণ বিষয়ক বই 'মেঘ বালিকার দেশে'। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন শিল্পী মোস্তাফিজ কারিগর। অনিন্দ্য প্রকাশ থেকে প্রকাশ পেয়েছে রাকিবুল ইসলাম মুকুলের উপন্যাস 'দোলনচাঁপার ঘ্রাণ'। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন শিল্পী ধ্রুব এষ। সব্যসাচী প্রকাশনী থেকে প্রকাশ পেয়েছে মোশাররফ মাতুব্বরের কাব্যগ্রন্থ ' মনখারাপের গল্প'। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন শিল্পী চারু পিন্টু।

মঙ্গলবার 'স্বাধীনতা পুরস্কার-২০১৮’ ঘোষণা করা হয়েছে। জাতীয় পর্যায়ে গৌরবোজ্জ্বল ও কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে এ বছর মোট ১৬ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি স্বাধীনতা পুরস্কার পাচ্ছেন। স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধে অবদানের জন্য স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা হলেন কাজী জাকির হাসান (মরণোত্তর), শহিদ বুদ্ধিজীবী এসএমএ রাশীদুল হাসান (মরণোত্তর), শংকর গোবিন্দ চৌধুরী (মরণোত্তর), এয়ার ভাইস মার্শাল সুলতান মাহমুদ বীর উত্তম-এসিএসসি (অব.), এম আবদুর রহিম (মরণোত্তর), ভূপতি ভূষণ চৌধুরী ওরফে মানিক চৌধুরী (মরণোত্তর), শহিদ লে. মো. আনোয়ারুল আজিম (মরণোত্তর), হুমায়ুন রশীদ চৌধুরী (মরণোত্তর), শহিদ আমানুল্লাহ্ মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান (মরণোত্তর), শহিদ মতিউর রহমান মল্লিক (মরণোত্তর), শহিদ সার্জেন্ট জহরুল হক (মরণোত্তর), আমজাদুল হক।

এছাড়া চিকিৎসাবিদ্যায় স্বাধীনতা পদক পাচ্ছেন অধ্যাপক ডা. একেএমডি আহসান আলী, সমাজসেবায় অধ্যাপক একে আজাদ খান, সাহিত্যে সেলিনা হোসেন এবং খাদ্যনিরাপত্তায় ড. মো. আবদুল মজিদ। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের আয়োজনে আগামী ২৫ মার্চ ঢাকার ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে মনোনীত স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের হাতে ‘স্বাধীনতা পুরস্কার-২০১৮’-এর পদক তুলে দেবেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রবাসী বাংলা একাডেমি পুরস্কারখ্যাত 'সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ পুরস্কার ২০১৭' পেয়েছেন কবি মাসুদ খান ও কবি মুজিব ইরম।

আগামীকাল মহান একুশে ফেব্রুয়ারি। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। রাত ১২টা ১ মিনিটে শহীদদের স্মৃতির প্রতি সম্মান জানাতে মহামান্য রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এরপর শহীদ মিনার প্রাঙ্গণ সাধারণের পুষ্পস্তবক প্রদানের জন্য খুলে দেওয়া হয়। রাত ১২ টায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সর্বস্তরের মানুষের যে ঢল নেমেছে তা আগামীকাল সূর্যাস্ত পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে। একুশ মানে মাথা নত না করা। সকল অন্যায়ের প্রতিবাদ করার নাম একুশ।

বন্ধুরা বইমেলায় আসুন, নিজের পছন্দের বই কিনুন। প্রিয়জনকে বই উপহার দিন। সবাইকে অমর একুশে বইমেলার শুভেচ্ছা। বইমেলা অমর হোক। ভাষা শহীদদের আত্মার শান্তি কামনা করি। জয়তু অমর একুশে গ্রন্থমেলা। জয়তু ভাষার মাস।
২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

  • রেজা ঘটক: কথাসাহিত্যিক, চলচ্চিত্র নির্মাতা।

আপনার মন্তব্য